21ST MAY 1860

Table of contents




You ask me to give a few reminiscenses of the
Poet - a somewhat difficult task indeed, considering
that with a failing memory it is not an easy thing for
me at this distance of time to bring back to my mind,
recollections of "auld lang sene ⟨sine⟩". However there is
one incident which of course I will never forget
& that is with reference to the introduction of Blank verse
in our language. of this I have already mentioned to you
but you wish me to give some further details ― well, here they are.

It was a fine evening in the Belgachia Villa & we
were sitting in the Lawn Hall when the Stage had been set
up for the performance of the Re[?]als. Both the brother
Rajahs were there and so was MiMichael. It was a rehearsal night & the amateurs were coming in one
by one; the conversation gradually turned from the subject
of drama in general & of Bengali Drama in particular.
Michael said that no real improvement in the
Bengali Drama could be expected until Blank
verse ways introduced [?] I said that ⟨it⟩
did not [?]⟨seem to me ⟩[?] introduce Blank⟨this [?] of verse⟩
in our language, for th I thought the very nature of construction
of the Bengali was ill-adapted for the stately measure & sonorous cadence of blank verse.

"I do not argue with you there" said he "& I think it is still worth making an attempt."

"You remember I [?] "how once Iswar Chandra Goopta once made
a caricature of blank verse in Bengali beginning with the lines.

কবিতা কমলা কলা পাকা যেন কাঁদি।
ইচ্ছে হয় যত পাই পেট ভোরে খাই।। &c

"Oh!" said he "it is no reason because old Iswar Goopto
could not manage to write blank verse that nobody else will
be able to do it."

"But [?]I said [?] "if I am correctly infomed the
French which is no doubt a more copious & elaborate
language than our own, has no blank verse poems in it,
[?] no wonder then ⟨that⟩ the Bengali should be found inadequate
for the kind of versification.

You forget my dear fellow he replied "that the Bengali
is born of the [?] than which is more copious ⟨& elaborate⟩ language
does not exist." [Page] "True"⟨"True"⟩, said I "but as yet the Bengali seemed to a [?]⟨be a⟩
weakling botho' born of a stout⟨healthy⟩ & robust mother."
"Write me down an [?]" said he languishly "if I am not
able to convince you⟨you⟩ of your [?]⟨error⟩ written in short time"
then looking sharply at me he added "and what if I
succeed in proving that to you that the Bengali is quite
capable of the blank form of versification?"

"Why then" I replied [?] I as ⟨shall⟩ willing stand all the
expenses of presenting & publishing any poem which you may write in blank verse"

"Done!" said he clapping his hands "You shall get
a few stanzas from me written two or three days"
and as a matter of fact written three of four days
the first canto of তিলোত্তমা কাব্য was sent to me. I I
was so arguably surprised since ⟨& at the same time so charmed with the⟩ astute
manner in which the verses written ⟨not to speak of the sentence & rich imageries of tapestry⟩ that I at once took the MS to my friends the Rajahs of [?]
It was then read by several of our friends who had a reputation
for literary tasks & I was glad to find that they were⟨all⟩ argued with
my opinion of the composition. ⟨Very large indents were no doubt made upon the Sancrit vocabulary, but for all that his attempt could not but be
pronounced a complete success.⟩
A few days after I again
met [?] Michael in the Belgachia Hall. He came [?]
smiling to me & shaking me heartily by the hand as was his wont
he asked me "how I liked his specimen verses?" "Liked this?"
said I "Why, they were simply charming! [?] You have won the bet & I
frankly acknowledge my defeat" At this my [?] friend
Rajah [?] said "Well then, our friend Michael must now
complete his little poem as soon as soon possible"

"Certainly" said Michael " & I hope to do as in about a fortnight."
The poem was indeed completed within a very short time & was
printed & published at the Stanhope Press the best Bengali press then
in existance. By way of a compliment the little volume was
dedicated to my humble self & the original MS was also handed
over to me. This ⟨as known[?] is carefully preserved in my Library.
I am afraid I have spun a somewhat tediously long yarn about this incident but here my story ends.



My dear Sir ―

We have now come
up to the Fourth act & you
must allow me to remind
you that unless I get the
songs, we must stand still.

Have you seen the 2nd
Canto of Tilottama?

With kind regards &
in [?],


Michael msDutt



My dear Sir

I must [?]
with you for calling these Songs
"doggerels." They deserve a far more
honourable name. They are smooth
& musical & embody [?] the
ideas wanted.

I donot think I shall
trouble you for the other songs
till perhaps this day next week.

With kind regards [?]

Yours [?]

Michael msDutt



My dear Sir

The letter you recd this
morning was written before
receipt of the pretty little বিরহিণী
Song [for which many thanks] &
that is the reason why it made no
mention of it. I was in my bath-room
when your man came & had no
time to substitute another letter.
The songs must be beautiful,
considering from what source
they come. Rajender thinks that
I [?] not orthodox in my
[?]; but that is of little
consequence in a poetical Romance [Page] as for "[?]", my [?] was
that I had made "Light" the first
of all [?] things. But that I
have given up to humour him

Pray, my dear Sir, who is the gentleman whom you call "কবিন্দ্র as for poor me, I resemble John
Milton in this one particular, viz, that
there can be no sympathy between
me & my contemporaries. Yet I feel
[?] to know some things about
this "Poetic Moon."

With many many
thanks for your kindness & with
sincerest thanksregds



Very sincerely yours




My dear Sir

Many thanks for the Song & your
welcome letters.

I dare say both the [?]
will make their appearance by the end
of this month, though I fear Rajender
does not twist the tails of his fellows
with sufficient force.

The subject proposed
by Raj narain is very good. I myself
thought of something like it some months
ago. I had the wanderings of I[?]
(one of Yayati's sons by Sarmista) in my
mind. But I don't think I have as
yet acquired a sufficient mastery[Page] [Page] over the "art of Poetry" to undertake ⟨the composition of⟩ a
grand Epic. So I must for sometime
to come, [?] with these Epiclings so
as to acquire a pucka hand. [?]
[?] man in Poetry.

I beg, my dear Sir
for will not despair of reading it. I
hope to make you [?] in s[?] above
forest[?]. I shall [?] all [?]!

With kindest regds





of the
তিলোত্তমা সম্ভব
Presented to Baboo
[?] mohana Tagore
By the author
21st May 1860



ধবন নামেতে শৃঙ্গ হিমাচল শিরে
[?], দেবা[?], [?] ভীষণ মূর্তিধর-


"_____________ Rhyme being no necessary adjunct on true [?]
ornament of poem or good verse, in longer works especially,
but the in invention of a barbarous age, to set off wretched
matters and lame metre; graced indeed since by the use of some
famous modern Poets, carried away by custom, but much to
their own vexation, hindrance and constraint to express many
thing otherwise, and for the most part worse, then else they
would have expressed them. Not without cause therefore
some ** poets of prime note have rejected rhyme both in
shorter and longer works *** as a thing of itself, to all judicious
ears, trivial and of no ⟨true⟩ musical delight; which consists only in
apt numbers, fit quantity of syllables, and the sense variously
drawn out from one verse [?] another, not in the jingling
sound of like endings, a [?] by the learned ancients
both in poetry and all good orn[?]. This neglect then of [?] rhyme
[?] so little is the token form [?] though it may seem so
perhaps to vulgar read[?] rather is to be esteemed
an example set * [?] that it [?]⟨of ancient⟩ recovered to
heroic poem, from the ⟨troublesome and ⟩ modern bondage
of rhyming." John Milton


"উৎপৎ[?]স্তি মমকোপি সমানধম্মী।
কালোহ[?] নিরবষির বিপুলার পৃ[?]


"Lit and vice [?]fluid―[?][?][?]few"
Ne que te at turba microtur, pabores,
Conte otus pancis lectoribus.[?]
por Sat 1.X.7.[?]


বন্দনামেতে তুক্ত[?]শৃঙ্গ হিমা[?]⟨লয়⟩⟨হিমালয়শিরে⟩ 1st July, 1869
[?]মূক্তি ধর!
তিলোত্তমা সম্ভব


প্রথম সর্গ[?]
হিব[?]ধবল নামেতে শঙ্গ হিমাচল শিরে[?]
পিতত ধবনাকৃতি, উন্নত, অচল
যেন ঊর্দ্ধবাহু, শুভ্রাবন্দী রুদ্রম্বর[?]
নিরন্তর মসুতপ রাগবে[?] [?]তপসী।⟨৫⟩
কানন, নিকুঞ্চে[?], কুঞ্জ, [?][?]
তরুদল, লতাবলী মুকুল, কুসু[?]
অন্যান্য অচলভালে [?]
যেন মরকতময় কনক,[?][?]
[?]স হীরকের হার রতনমা[?] ১০
না পরে এ গিরি সবে করি অবহেলা
পৃথ্বী সুখে বিরত⟨বিষুখ⟩পৃথিবীপতি যেন
সুনাদিনী বিহঙ্গীনী[?]
মরী[?]বুকা, মধুকুলে
কভু নাহি ভ্রমে তথা মিহি[?], ১৫
শার্দ্দুল, ভল্লুক, বনচর জীবকুল─
বনকমলিনী কুরঞ্জিণী সুলোচনা,─
ফণিনী, মনিকুন্তলা,বিষাকর ফণী,[?]
না যায়[?] নিকট তার বিকট শেখর!
তিলোত্তমা সম্ভব।
সদূরে মোর তিমির, গভীর গহ্বরে, ⟨২০⟩
কন কন করে জন মহা কেলোহনে,
[?] ভোগবতি গ্রোতস্বত্তী পাতানে যেমতি [?] কল্লো়নীনী !
[?]ন স্বন করিয়া [?] পবন বহে যন,
মহাকোপে নয়রূপে, তমোগুণান্বিত,
নিশ্বাস ছাড়ন যেন সর্ব্বনাশকারী! ⟨২৫⟩
যক্ষ, রক্ষ, দানকরি, দানব, মানব,
দানবী, মানবী, দেবী, কিবা নিশাচরী
সকলের⟨সকা[?]তি⟩ অগমং─ দুর্গম দুর্গ [?] যেন!
দিবানিশি মেঘরাশি [?] বুদিকে,
ভূতনাথ সঙ্গে বক্ষে নাচে যেন ভূত! ─ ⟨৩০⟩
এহেন নির্জ্জন স্থানে[?] পুরন্দর,
কেন গো বসিয়া [?] কহ বীণাপাণি!
পদ্মালয়া? কহদেবি, [?]
নমিয়া জিড[?]দয়াময়ি!
তব কৃপা, [?] দেব বন,
শেষের সনো[?] এ দাসোর;
একক মগের আমি করিয়া মথন,
নভি, মা, কবিতামৃত―সুধা নি[?]ম!
অকিঞ্চনে কর দয়া কমন ক [?] ⟨বিশ্ববি[?]
যে শশী জ্বনে, জননি, বিশ্বনাথ [?]সে, ⟨৪০⟩ (ধূজ্জটিননাটে
পুষ্পদনে নিশি[?]নীরের আভা তাকে!
(ত্রিদিব) কোথায় যে স্বর্গ যাব গ[?]বারে[?], কোথা যে ত্রিদিব, যার
যুগে যুগে কঠোর তপস্বা করে নর
কোথা সে সমকপুরী ― কনক নগরী?
কোথা বৈজয়ত্ত ধাম ― স্বর্গের আলয়, ⟨৪৫⟩ [?]
প্রভায় মনিন যার ইন্দু, প্রভাকর? নিরকাব্য[?]
কতশুদ নবপতি[?]
তিলোত্তমা সম্ভব।
কোথায় সে রাজপুত্র─রতন আপন─ যথা রবি পরিধি সৃমরুশৃ পিরে।[?]
উজ্বন রবি মন্ডন মেরুশৃঙ্গো পরে?
কোথা সে নন্দনবন─সুখের সদন?
কোথা পারিজাতফুল, ফুল [?] কুলেশ্বর? ⟨৫০⟩
কোথা সে উর্ব্বসী শশী [?] কষি [?] মনোহরা?
চিত্রলেখা─জগত জনের চিত্রে⟨ত্তে⟩ লেখা?
⟨মিশ্রকেশী─যার কেশ নিগড় গড়িয়া⟩
[?]⟨সমরে⟩⟨কিবা নরে না বাঁধে কাহারে?⟩
কোথায় কিন্নর, কোথা বিদ্যাধর দল?
গন্ধর্ব, মদণগর্ব খর্ব্ব যার রূপে?
কোথা সে ভীষণ বজ্র যাহার গর্জন, ⟨৫৫⟩⟨মহারথী? কোথা বজ্র, ভীম প্রহরণ,
যার [?]হরমন্দ, [?]গভীর গর্জনে⟩
দেব কলেবর কাঁপে করি থর থর─
[?]ভূধর অধীর হয়, চমকে ভবন [?]
কোথায় সে ধনু, [?]⟨ধনুঃকূলরাজা,⟩
আভাময়, যারি[?]
মেঘময় গগনের শিরো পরে শোভে
শিখিপুচ্ছচূড়া যেন হৃ[?]⟨ষী⟩কেশ কেশে,⟨!⟩ ⟨৬০⟩
কিম্বা কনক কিরীট রামায়ন [?]!
কোথায় পুষ্কর আবর্তক─মনেশ্বর ?
কোথায় মাতলী বলী? কোথা সে বিমান,
মনোরথ পরাজিত যে রথের বেগে,
গতি, ভাতি, উভয়েতে তড়িত লাঞ্ছিত? ⟨৬৫⟩
কোথায় গজেন্দ্র ঐরাবত? উচ্চশ্রবা, ⟨উচ্চৈঃশ্রবা,⟩
হয়েশ্বর মনোহর মর মা[?]ত?[?]গতি যথা আশুগতি⟩
কোথায় পৌলমী দেবী⟨সতী⟩রূপগুনবতা,⟨অনন্ত যৌবনা,⟩
দেবেন্দ্র হৃদয় সরোবর কমলিনী,
দেবকুল লোচন আনন্দময়ী সতী!⟨দেবী⟩" ⟨৭০⟩
⟨আয়ত নয়নালোচনা[?]কূলেশ্বরী
⟨কামধক যথা [?] বিধাতা প্লাবনী, যার প্রবাহিনী
সূরকুল পূজিতপুত্রপদ⟩
⟨রঞ্জনবলেপ্লাবন[?]আন দেব দেবী মন্দাকিনী প্রবাহিনী⟩
⟨কেন সদা প্রবাহিণী কাঞ্চন [?]
হায় কোথায় আজি সে দেব বৈভব?
হায় রে কোথায় আজি সে দেব মহিমা?
হায় রে কোথা আজি সে দেব গৌরব?
দুর্দান্ত দানব দল দৈব বলে বলী,
ঘোরতর সমরে অমরে করি জয়,
পুরিয়াছে স্বর্ণপুরী মহা কোলাহলে- ⟨৭৫⟩
বসিয়াছে দেবাসনে দেবারি পামর।
তিলোত্তমা সম্ভব।
যথা প্রলয়ের কালে রুদ্র কোপ বায়ু⟨রুদ্রের নিশ্বাস⟩
[?]⟨কতসম⟩উথলিলে জলধির জল সমাকুল
⟨প্রবল⟩দুর্জয় তরঙ্গদল, অতিক্রমি তীর,
গ্রাসে নগর, নগরী, প্রাচীর প্রাসাদ, ⟨৮০⟩
ক্ষেত্র, কুঞ্জবন, রতিমদন সদন,
বসুধার, কুন্তল হইতে নয় কাড়ি,
সুবর্ণ কুসুমলতা মন্ডিত কিরীট; - (মুকুট)
যে সুথারু শ্যাম মন্দবই[?] ঋতুকুলপতি
গাঁথি নানা পুষ্পমালা সাজান আপনি, ⟨৮৫⟩
হরয়ে প্লাবন তার সর্ব্ব আভরণ! -
সহস্রেক বৎসর যুকিয়া দেবকুল,
আকুল হইয়া শেষে ভঙ্গ দিলা রণে।
সহস্রেক বৎসর সংগ্রাম অগ্নি ঘেড়ি
কনক অমরাপুরী- সুখের নগরী- ⟨৯০⟩
মহা উপদ্রব জন্মাইল ত্রিভুবনে।
তিমির সাগরে ডুবি মিহির রহিলা,
নিশি নই⟨নয়ে⟩ চারুশশী রতন যতনে
ঢাকিল[?] বদন তার দিতিজের ভয়ে,⟨সুবারির ডরে⟩
ভৈরবীর চরণ কমল তলে যেন ৯৫
লুকাইলা উমাপতি সতী মনোহর।
সদাগতি সদাগতি ত্যজি আপনার,
গতিহীন হইলেন পরম প্রমাদে,
দ্রুতবেগী স্রোত যেন প্রষীপ গমনে।
তাঁহার বিরহ শোকে বৃক্ষশাখা যত, ⟨১০০⟩
পল্লব ভূষণ খুলি ফেলাইল দূরে;
ফুল কুল ব্যাকুল মুদিল আঁখি সবে,
সরসী রূপসী ক্ষীণ দীণ দিনে দিনে
হাহাকার আর্তনাদ করিয়া ধরণী
অধীর হইয়া সদা কাঁদিতে লাগিলা। ⟨১০৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
গহন বিপিন যেন ছাড়ি অরি গজঅরি
ক্ষুধাতুর হয়ে রোষে নাশে জীবচয়,
অকালে আসিয়া কাল আসিতে লাগিল
ভূচর, খেচর, জনচর অনিকর।
সহস্রেক বৎসর যুকিয়া দান করি, ⟨১১০⟩
প্রচন্ড দিতিজ ভুজ প্রত্তাপে তাপি[?]য়া
ভঙ্গ দিয়া বিমুখ হইলা সবে রণে
যথা বৈশ্বানর যবে মহা ক্রোধাবলে, ⟨আকুল! যথা পাত্র [?] যথা, বায়ু যার সখা
সর্ব্বভুক প্রবেশিলে বৈশ্বানর নিবিড় কানন [?]
প্রবেশক যবে [?] কোন নিবিড় কানন
[?] বিজাল তরু, গুল্ম, লতাচয় ⟨১১৫⟩
ভস্মময় আশু আশুশুক্ষণির তেজে;
মন মনাকার ধূম উঠয়ে গগণে,
তার মাকে অগ্নিশিখা লকলক করে,
রক্ত রসে রসিত রুদ্রাণীর রসনা
রক্ত বীজ রক্ত পানে লুলিত যে মত - ⟨১২০⟩
গভীর গর্জন করি তীম বিভাবসু
গ্রাসেন যাহারে পান আপনার পাশে;-
মহাত্রাসে ঊর্দ্ধশ্বাসে পালায় কেশরী;
⟨শুনি তাঁর গভীর গর্জ্জন, হেরি দূরে⟩
⟨মন মনাকর ধূম [?] তার শিখা⟩
⟨- রক্ত রসে রণিত রুদ্রশীর বসুধা⟩
রক্তবীজ রক্তপানে লুলিত যেন[?]
[?]মদকল, নাগদল, [?] হইয়া
করভ, করিণী হাতি পালায় অমনি
⟨আশুগতি⟩[?] পালায় শার্দ্দুল, মৃগাদল, দল দল
বরাহ, মহিষ, [?]খঙ্গি অক্ষয় শরীর;
পালায় কুরঙ্গ রঙ্গ রসে ভঙ্গ দিয়া;
ভুজঙ্গ, বিহঙ্গ বেগে ধায় চারিদিগে;
মহা কোহ[?]কোলাহলে চলে জীবনতরঙ্গ, ⟨১৩০⟩
জীবনতরঙ্গ যেন জীবন প্রান তাড়িত পবন তাড়নে।
সব্যর্থ কুলিশে ব্যর্থ দেখিয়া সমরে
ভয়ে পালাল ⟨পালাইল⟩কুলিশী রণ পরিহরি; সমর
পালাইলা পাশী দেখি পাশ ভয়ঙ্কর,
ম্রিয়মান মন্ত্রবলে মহোরণ যেন; ⟨১৩৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
পালান অলকানাথ ভীম গদা ফেলি,
করী যেন করহীন ─ যক্ষদল লয়ে;
পবন পবন বেগে হই দ্রুত গতি।
দুষ্টাসুর শরে জরজর কলেবর,
⟨শিখিপৃষ্ঠে পালাইয়া বহি [?]
⟨মহারথী, পালাইয়া [?]
⟨সর্ব্বঅস্ত্র[?]কারী কোপে [?]
⟨আপটি[?] প্রচন্ড দন্ড, [?]
পালাইলা দেবগন রণ ভূমি ত্যাজি─ ⟨১৪০⟩
জন্ম লয় নাদে দৈত্য পূরে ত্রিভূবন!
দৈববলে বলী দুরাচার, অহংকারে
প্রবেশিল স্বর্গ পুরী ─ কনকনগরী─
বসিল দেব আসনে দেবারি পামর!
দিনমণি প্রণয়িনী কমলিনী ধনী─ ⟨১৪৫⟩
ভেদিয়া ভ্রমর যেন বক্ষস্থল তার,
লুটিতে লাগিল মধু─অমৃত দুর্লভ!
নির্মল সলিলা নগবালা শৈবলিনী,
পঙ্করাশি আসি যেন কনুষিলাতারে।
বসুধার শ্যাম অঙ্গ বরাই দুর্জয় ⟨১৫০⟩
ভীষণ দশনে যেন খন্ডিতে লাগিল! করিল খণ্ডন।
সুন্দ উপসুন্দাসুর সুরে পরাভবি,
লন্ডভন্ড করিল অখিল ভূমন্ডল;
ঔর্ব্ব ঋষি ক্রোধানল পশি যেন জলে
জ্বালাইলা জলধি; চঞ্চলি জলধর। ⟨১৫৫⟩
তোমার এ বিধি, বিধি কে রুকিতে পারে,
কিবা নরে, কি অমরে? বোধাগম্য তুমি!
তেজিয়া ত্রিদিব দেবেশ্বর পুরন্দর,
হিমাচলে মহাবল চলিলা একাকি; ─
নির্দয় কিরাত যেন পর্ব্বত কঙ্কর[?], ⟨১৬০⟩
লুটিলে কুলায়, পক্ষরাজ বাজ বলী,
শোকে অভিমানে মনে প্রমাদ গণিয়া,
মৌণভাবে⟨সকল বিহঙ্গ⟩ তুঙ্গ গিরিশৃঙ্গে বসে উড়ি[?]
কিম্বা বিশাল বসাল তরু শাখা [?]⟨পাশে⟩
ধবল অচল পাশে আইলা বজ্রপষণ [?]⟨১৬৫⟩
বিপদের কাল জাল আসি বেড়ে যবে,
মহত জনের আশা মহত যে মন;
এই সুরপতি যবে ভীষণ অশনি
প্রহারে চুর্ণী যাতনা শেন কুল পাখা
তিলোত্তমা সম্ভব।
পর্বত তরঙ্গ তাড়িলে জগত তরি পোত সমুদ্র ⟨মহা দূত বেশে⟩
নয় অদৃষ্ট আশ্রয় নির্ভয় [?]ইয়ে
যথা ঘোরতর বাত্যা করিয়া অস্থির ⟨১৭০⟩
গভীর পয়োধি নীর, ধরি মহাবলে
জনচর কুলপতি মীনেন্দ্র তিমির
ফেলাইলে তুলে কুলে, মৎস্যনাথ তথা
চারু কনক পতঙ্গ উপবন ছাড়ি
প্রবাল, হীরক, মনিমুকুতা খচিত
নিকেতন [?],ত্যাজি তিমির সুন্দরী
গতিহীন মহামতি,থাকেন পড়িয়া⟨যেন অচল⟩
অভিমানে শিলা সনে বসিলেন দেব ⟨১৭৫⟩
জিষ্ণু অজিষ্ণুলা আজি দুর্জয় কোলাহলে
সহস্র নোয়ন হতে [?] করি ধারা
মন্দার কুসুমদল তিতে অবিরাম
নিশির শিশির যেন শতদল দল
নিকটে বিকট বজ্র ব্যর্থইউ বনে ⟨১৮০⟩
কমলে চরণে পড়ি যায় গড়াগড়ি, -
প্রচন্ড আঘাতে খন্ড শরীর কেশরী
শিখরী সমীপে যেন ব্যথিত হৃদয়।
কনক নির্ম্মিত ধনু, রতন মন্ডিত,
কাদম্বিনী ধনী যাবে, পাইনে অমনি ⟨১৮৫⟩
যতনে সীমান্ত দেশে পত্রয়ে হরষে-
অনাদরে অদূরে পর্ব্বত পারে [?]
আভায় করিয়া আন ধবল অচল⟨ললাট⟩
শশীকণা উমাপতি কপালে[?] যেমতি।
শূন্যতূন, করি শূন্য সাগর যেমন ⟨১৯০⟩
যাক্‌ ঋষি অগস্ত্য শুষিয়াছেন তারে।
কম্বু-অম্বুদ বিহনে চাতক যেমন
[?] যার নিনাদে আকুল⟩
নিঃশব্দ[?]। হায় কি প্রমাদ।
হায়রে অনাথ আজি ত্রিদেবের নাথ।
হায়রে গরিমাহীন [?] ⟨১৯৫⟩ গরিয়া আকর[?]
যে মিহির তিমিকরি, করি দান
উজ্জ্বল করেন [?] সুধাংশু মন্ডল
⟨ভূষণ রজনী সখা [?]
⟨দৈত্যকুল করী অরি গর্জ্জনে যেমতি⟩
করিবল নিরানন্দে নিরব সে কবে
দুষ্ট রাই আমি আসিয়াছে তাঁরে ,
আধোমুখে শিলাতলে বসিলা কনক
[?] - মহা অভিমানে ⟨২০০⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
এবে দিনমণি দেব, মৃদু মন্দগতি,
অস্তাচলে চালাইয়া⟨ল⟩ স্বর্ণচক্ররথ;
বিশ্রাম বিলাস আশে মহীপাল⟨পতি⟩ যথা,
সাঙ্গ করি ধার্য্য কার্য্য অবনী মণ্ডলে।
শুখাইল নলিনীর প্রফুল্ল আনন; ⟨২০৫⟩
দুরুহ বিরহ কাল কাল চয়ন দেখি।
মহাশোকে চক্রবাকী অবাক হইয়া,
আলো⟨এলো⟩ তরুবর কোলে ভাসি নেত্রনীরে⟨জলে⟩
একাকিনী─ বিরহিণী─ বিষণ্ণ বদনা─
বিধবা দুহিতা যেন জনকের গেছে। ⟨২১০⟩
মৃদুহাসি শশীসহ নিশিদিন দেখা,
তারাময় সিঁথি পরি সীমন্তে সুন্দরী।
বন, উপবন, শৈল, সর, জলাশয়,
চন্দ্রিমার রজকান্তি কান্তিল সবারে।
কুমুদিনী, বিধু প্রণয়িণী শোভে জলে ⟨২১৫⟩
স্থলে শোভে ধুতূরা ধবল বেশ ধরি।
আলো⟨এলো⟩ নিদ্রা দেবী এবে─ বিরামদায়িনী─
কুহকিনী স্বজনী স্বপন দেবী সহ; l[?]
বসুমতী সা⟨সতী⟩ তাঁর কমলচরণে,
জীবকুল লই নমি নিস্তব্ধ⟨নীরব⟩ হইলা। ⟨২২০⟩
আইলা রজনী ধনী ধবল শিখরে,
ধীর ভাবে, ভৈরবী ভৈরব পাশে যেন
মন্দগতি; গেলা সতী, কৌমুদীবসনা⟨কৌমুদীবসনা⟩
যথা বিরাজেন দেবরাজ শিলাতলে
ধরি কর কমলে কমল পদ যুগ, ⟨২২৫⟩
কাঁদিয়া সাষ্টাঙ্গে দেবী প্রণাম করিলা [?]দেবনাথে, অশ্রু বিন্দু⟩
গড়ি অশ্রু জল বিন্দু, দেবেন্দ্র চরণে,
শোভিল শিশির যেন শতদল দলে।
⟨ঊষা যবে জাগান অরুণে সাজাইতে[?]
একস্বর্ণ [?] রথ, কনক[?] খুলি পদ্ম[?]
⟨প্রা[?], স্নান[?] হৈম হার, সই[?]
এলো নিদ্রাদেবীসহ স্বপ্নদেবী সহচরী,
সৌরভ মধু যেমতি পুষ্পদাম সহ। ⟨২৩০⟩
মৃদুমন্দ পবন বাহসোপরি[?] বসি
আসি উতরিলা দুহে যথা বজ্রপাণি;
কিন্তু মুদিত[?] দেখিয়া সহস্র লোচনে,
নিঃশব্দে, বিনতভাবে, দূরে দাঁড়াইলা,─
সুন্দরী কিঙ্করী নারী নরেন্দ্র সমীপে ⟨২৩৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
দাঁড়ায় যেমতি─ স্বর্ণপুত্তলির দল।
হেরি অসুরারি দেবে শোকের সাগরে[?]
মগ্ন, মগ্ন বিশ্ব যেন[?]
কাঁদিতে কাঁদিতে। নিশি [?]
মৃদুস্বরে, শ্যামাঙ্গিনী, লাগিলা[?]
হায়, সখি, বিষম [?]
দেবকুলে পতি⟨শ্বর⟩ যিনি, ত্রিদিবের নাথ,
এই শিলাময় দেশ। অগম্য[?] বিজন,─
ভয়ঙ্কর,বিকট, কি উপ[?] তরে
হায় রে [?] কল্পতরু, নন্দন কাননে,
মন্দাকিনী[?]টিনীর স্বর্ণতটে শোভে,
কে ফেলে [?]যথা তারে [?]গহন [?]
নীল জলে [?] শতদল ব[?] কেলি।
করে [?]
মরুভূমে [?] তাহা [?]
কহি[?] শর্ব্বরী সু[?]ন্দরী,
কাঁদিনা ব্যাকু[?]হইয়া[?]
কাকে [?]ঊথলে [?]
অকর্ম্ম[?]পূরিত [?]
অরে রে দারু[?][?]
শুনি যামিনীর[?]
উত্তর করিলা মাতা[?]ণী
মধুপানে মাতি যেন মধুরীশ্ব[?][?]
গুণ্‌গুণ্‌ ধ্বনি করি⟨মধু বোনে⟩ নিকুঞ্জে শুধিলা [?]
যা কহিলে সত্য, স[?]খি [?]
কিন্তু বিধির নির্ব্বন্ধকে খণ্ডি[?]পানে[?]
আইস এবে তুমি আমি, [?]
যদি পারি, কিঞ্চিৎ কালের জন্যে হরি
এ বিষম শোকশেল [?]ণী যতন।─
[?]কে তুমি স্বজনি[?] মারুতে রে
[?] তারে আনি সৌরভ [?]গতি
তব সুধাংশুরে সুধা বরষিতে[?]
[?] যাই, মুদি যদি পারি, প্রিয়সখি,
তিলোত্তমা সম্ভব।
ও সহস্র আঁখি, মন্ত্রবলে [?]শলে।
গড়ুক স্বপন[?]য়ার [?] ⟨২৭০⟩
মৃগ[?][?]ধরা, কৃ[?]শোভিত।
কৃ[?] শোভিত
বে[?]ধ্রুব নন্দন।
মা[?], স্বর্ণবীণা করে,
[?]দ্মযোনি বিলাসিনী, ⟨২৭৫⟩
[?] কাল মধু পঞ্চ স্বরে।
[?], ননীর বিরহে কাতর
[?], আসি, নাহি দেন দেখা
[?]যাচিল শিখরে─ তপন─
[?] সখি বিধুমুখি, [?], আইস তোমা। ⟨২৮০⟩
[?]তে এ কার্য্য মোরা করি [?]
[?]রে নিশি, নিদ্রা, স্বপ্ন দেবী কুহকি
[?]ধরাধরি [?], বেড়িলা বাসবে─
বর্ণ চম্পকদাম[?] গাঁথি যেন রতি
রণপতি মদনের গ[?]লে পোহাইলা ⟨২৮৫⟩
[?]হেরি দেবেন্দ্রে দেবী দলে[?], স্তব্ধ ভাবে[?]
[?]যত তন্ত্র মন্ত্র ছিটা ফোঁটা [?]
[?]কে লাগাইল; কিন্তু দৈব দে[?]
[?]ল বিফল হইল; যা[?]নী [?]
[?], জননী, মৃদু, ব[?]স্ব[?]⟨২৯০⟩
[?], সুনাদিনী, কপোতী[?]
[?] নিবিড় বনে─ কহিতে লাগিলা।
কি আশ্চর্য্য[?], প্রিয়সখি⟨,⟩ দেখিলাম আজি
আমা[?] এ ভব মণ্ডলে কেবা ভি[?]ন?
যথা [?] মোরা সব। ⟨২৯৫⟩
গহন বিপিনে, [?]কারে
বাসরে, আসরে, রাজসভা, রণভূমে
কারাগারে, দুঃখ সুখ উভয় স[?]দ নে,─
স্বর্গে, মর্ত্যে, পাতালে আমরা করি [?];
কিন্তু হেথা বৃথা আজি [?]বল। ⟨৩০০⟩ [?]
তিলোত্তমা সম্ভব।
শুনি স্বপ্নদেবী হাসি─ শশী যেন হাসে─
কহিলা শ্যাম অঙ্গিণী রজনীর প্রতি।
মিছে খেদ কেন, সখি, কর গো আপনি ?
দেবেন্দ্র রমণী [?] ধনী পুলোম দুহিতা
বিনা, অন্য কার সাধ্য নিবাইতে পারে ⟨৩০৫⟩
এ জ্বলন্ত শোকানল? যদি আজ্ঞা দেহ,
যাই আমি আনি হেথা সে চারুহাসিনী।
গতিহীন পারাবতী যেমতি, বিলাপী,
তরুবর, শৃঙ্গধর সমীপে রূপসী
কান্ত চাহে নিতান্ত ব্যাকুল হ⟨য়ে⟩ মনে;─ ⟨৩১০⟩
ভ্রান্তি দূতী সহ সতী ভ্রমে ত্রিভুবনে;─ ⟨শোকাতুরা! শুন ওগো রজনী স্বজনি⟩
যদি আজ্ঞা কর, সখি⟨তবে⟩, এখনি যাইব।
যাও বলি আদেশ করিলা শশীপ্রিয়া।
চলিলা স্বপন দেবী নীলাম্বর পথে;
নির্মল তরলতর রূপের আভায়, ⟨৩১৫⟩
আলো করি ত্রিলোক, ত্রিলোক মনোহরা,
ভূপতিত তারা যেন উঠিল আকাশে।
গেলা চলি স্বপ্নদেবী মায়াবী সুন্দরী
দ্রুত বেগে ; শর্ব্বরী নিদ্রার সহ তবে
বসিলা ধবল শৃঙ্গে; আহা, কিবা শোভা। ⟨৩২০⟩
যুগল কমল যেন, জগত মোহিতে,
ফুটিল এক মৃণালে মানস সলিলেপয়স সাগরে⟨ক্ষীর সরোবরে⟩
বসি ধবল শিখরে নিদ্রা, বিভাবরী,
আকাশের পানে দুহে চাহিতে লাগিলা;
জলধারা বিহনে কাতরা চাতকিনী ⟨৩২৫⟩
চাহে যেন এক দৃষ্টে জলদের পানে।
আচম্বিতে পূর্ব্বভাগে গগন মণ্ড
উজ্জ্বল হইল, যেন পাবকের শিখা,
ঠেলি ফেলি দুই পাশে তিমির তরঙ্গ,
উঠিলা অম্বর পথে; কিম্বা দিবকর ⟨৩৩০⟩
অরুণ সারথি সহ স্বর্ণ চক্ররথে,
উদয় অচলে আসি দিলা দরশন।
তিলোত্তমা সম্ভব।
শ[?]তেক যোজন বেড়ি⟨যুড়ি⟩ আলোক মণ্ডল
ল কণ্ঠে হীরকের কণ্ঠমালা যথা[?]
শো[?]ভিল আকাশে⟨,⟩ কিম্বা⟨যেন⟩ রঞ্জনের ছটা
নীলোৎপলদলে, কিম্বা [?] যেমন ⟨৩৩৫⟩
সুবর্ণের যে রেখা, লেখা বক্র চক্রাকারে।
এ সুন্দর, প্রভাকর পরিধি মাঝারে,
মেঘাসনে বসি ওগো কোন শশী ওই?
কেমনে, কহ মা শ্বেতকমলবাসিনি,
কেমনে, মানব আমি, চাহি⟨চাব⟩ ওঁর পানে⟨রবি ছবি পানে দেবি কে পারে[?]?⟩⟨৩৪০⟩
এ দুর্বল দাসে কর তবে বলে বলী।
চরণযুগল শোভে মেঘবর শিরে,
নীল জলে রক্তোৎপল প্রফুল্লিত যথা, ⟨উজ্জ্বল, উষার ভালে তারামণি যথা।⟩
কিম্বা মাধবের বুকে কৌস্তভ রতন।
দশচন্দ্র পড়িয়া রাজীব⟨ইন্দীবর⟩ পদতলে,
পূজা স্থানে বসে তথা─ সুখের সঙ্গমে⟨সদন⟩
চঞ্চলা চপলা যেন, হইয়াঅবলা,
দেখা দিলা ইন্দ্রাণী─ ইন্দ্রের মনোলোভা,
আলো করি ত্রিভুবন; যথা পদ্মালয়া ⟨৩৫০⟩
রমা, যাঁর বক্ষস্থলে─ সৌরভ যেমতি
ও পুষ্পদলে─ নিবাস করেন শ্রীনিবাস,
আয়তনয়না, ইন্দুবদনা ইন্দিরা,
⟨যেন অচঞ্চল, ⟩[?] মহাপ্রভাস!
সে অঞ্চল ইন্দ্রাণীর পীনস্তনো পরে
[?]যথা কামকেতু, যবে কামসখা
⟨বসন্ত, হিমান্তে, তারে উড়ায় কৌতুকে!⟩
সুরাসুর, দক্ষ, যক্ষ, রক্ষ, [?][?] মিলি,
মথিলা জলধি বিধি, লা সুন্দরী[?] একমন হয়ে,⟨বিধি বিধি দিবে,⟩⟨৩৫৫⟩
হেরি অপরূপ রূপ জীবকুলদল
নত হয়ে পূজিল জগত জননীরে─
⟨রত্নাকর রত্নোত্তমা নিরুপমা সুতা⟩
⟨দরশন দিয়া ছিলা কমলা বিমলা দেবী⟩
অরে রে নয়ন মোর হইয়া চকোর,
এ চারু সুধাংশু সুধা পানেতে[?] মাতিয়া
ভুলিনি কি দেববরে [?]শিখরে।[?] ⟨৩৬০⟩
আইলা পৌলমী শচী⟨শশী⟩ মেঘাসনে বসি,
তেজরাশি বেষ্টিত; নাদিল জলধর[?];
তিলোত্তমা সম্ভব।
সে গভীর নিনাদ শুনিয়া প্রতিধ্বনি,
অমনি রমণী তাহে বিস্তার করিলা [?]
পর্ব্বত কন্দর, কুঞ্জ, বন, উপবন,
সে স্বরতরঙ্গ রসে পূরে চারিদিন।
⟨চারিদিগে; পর্ব্বতকন্দর, কুঞ্জবন,⟩
⟨নিবিড় কানন, দূর নগর, নগরী,⟩
⟨সে স্বরতরঙ্গ বহি আকাশে⟨রঙ্গে⟩পূরিল;[?]⟨সকাল⟩ ⟨৩৬৫⟩
চাতকিনী জয়ধ্বনি করিয়া উঠিলা,
বিরহবিধুরা বালা হেরি দূরে যথা
প্রাণনাথ, ধায় রড়ে লাজে বাজ হানি।
⟨শূন্যপথে, বিরহবিধুরাবালা যথা⟩
⟨হেরি দূরে প্রাণনাথে ধায় ধনী রড়ে⟩
⟨লাজের মাথায় হানি বাজ⟨মুখেতে ঢালি⟨দিয়া ⟩ছাই─⟩ তার পানে[?]কামাতুরা⟩;
নাচিতে লাগিল মত্ত শিখিনী সুখিনী, ⟨৩৭০⟩
শিখি প্রকাশিল তারামণ্ডিত গগ⟨ণ⟩
বলাকা, আবদ্ধমানা, আইলা ত্বরিতে
যুড়িয়া গগণ⟨আকাশ⟩ পথ; সুবর্ণ কন্দলী─
ফুলকুলবধূ সতী সদা লজ্জাবতী,
মাথা তুলি শূন্যপানে চাহিয়া হাসিলা, ⟨৩৭৫⟩
গোপিনী শুনি যেমনি মুরলির ধ্বনি,
যার রব, লাজ ভয়─ সব ভুলাইত।
চাহে গো নিকুঞ্জ যথা⟨পানে⟩ যমুনার তট[?] কূলে
⟨বিরাজেবাজান যথা বনমালী কদম্বমূলে যমুনার কূলে⟩
আইলা ইন্দ্রাণী শচী দেবীকুলেশ্বরী─
চাহে গো নিকুঞ্জপানে, যথা বনমালী
বসিয়া কদম্বমূলে যমুনার কুলে, [?]
মৃদু স্বরে ডাকেনসুন্দরীরে ডাকেন মুরারি।
ঘনাসন ত্যজি তবে নাবিলেন শচী ⟨৩৮০⟩
ধবল শিখর পাশে; একি চমৎকার?
প্রভাকীর্ণ, তেজোময়, কনকমণ্ডিত
সোপান দেখিলা দেবী আপন [?] সমুখে;
মণি, মুক্তা, হীরক খচিত শত সিঁড়ি
গড়ি যেন বিশ্বকর্ম্মা স্থাপিলা সেখানে। ⟨৩৮৫⟩
উঠিলেন ইন্দ্রপ্রিয়া মৃদুমন্দগতি,
ধবল মালায় সতী। আচম্বিতে তথা,
নয়ন রঞ্জন এক নিকুঞ্জ শোভিলা।
তিলোত্তমা সম্ভব।
বিবিধ কুসুমজাল স্তবকে স্তবকে─
বনরত্ন, মধুর সর্ব্বস্ব, স্মর ধন─ ⟨৩৯০⟩
বিকশিয়া চারিদিগে হাসিতে লাগিলা,
নীলাম্বর কোলে⟨তলে⟩ হাসে তারাদল যথা।
মধুকর নিকর, আনন্দধ্বনি করি,
মকরন্দ লোভে অন্ধ, আসি উতরিলা;
বনান্তের কলকণ্ঠ গায়ক কোকিল, ⟨৩৯৫⟩
বরষিলা সুধাস্বর; মলয় মারুত,
ফুলকুল প্রেমিক প্রবর সমীরণ─
প্রতি অনুকূল ফুল শ্রবন কুহরে,
প্রেমের রহস্য আসি কহিতে লাগিলা।
ছুটিল সৌরভ যেন রতির নিশ্বাস, ⟨৪০০⟩
মন্মথের মন যবে মথেন কামিনী
অক্ষয়যৌবনা, পাতি পীরিতের ফাঁদ ⟨পাতি ধনী, পীরিত, কুসুমফাঁদ তোর বিরলে।⟩
বিশাল তমাল তরু─ লয়ে[?] মনোরম⟨বল্লরীরমণ[?]
মঞ্জরিত লতাদল বাহুপাশে বাঁধা,
দাঁড়াইলা চারিদিশে বীরবৃন্দ যথা।
শত শত উৎস, রজস্তম্ভের আকার, ⟨৪০৫⟩
উঠিয়া আকাশে, মুক্তাফল, কলরবে
বর্ষিয়া, কান্তিল সবলের বক্ষস্থল।
⟨যে সকল জলবিন্দু একত্র মিলিয়া⟩
সৃজিল সত্বর এক রম্য সরোবর,
বিমল সলিল পূর্ণ; তাহাতে হাসিল
নলিনী, ভুলিয়া ধনী তপন বিরহ
ক্ষণকাল; কুমুদিনী বাসরে যে[?]
যুবতী কামিনী কান্তে একান্তে [?]
সুখের তরঙ্গে রঙ্গে ফুটিয়া ভাসি[?]
সে সব দর্পণে তারা, তারানাথ [?]
শোভিল পুলকে যেন নূতন গগনে[?]
তরলতর,! বসন্ত, মদন [?]
ঋতুকুলপতি, আসি অতি দ্রুত[?]
⟨উতরিলা সম্ভাষিতে ত্রিদিবের দেবী[?]
হায় রে, কোথা পাব এ কুঞ্জের তুলনা?
প্রজাপতি সহ রতি ভুঞ্জে রতি যথা,
কি ছার সে কুঞ্জবন এ নিকুঞ্জ কাছে? ⟨৪১০⟩
কালিন্দী আনন্দময়ী তটিনীর তটে
শোভে⟨ফোটে⟩ যে নিকুঞ্জবন─ যথা প্রতিধ্বনি,
বংশীধ্বনি শুনি ধনী─ আকাশ দুহিতা─
শিখে সদা রাধানাম মাধবের মুখে─
এ কুঞ্জ সহিত তার ও তুলনা না খাটে! ⟨৪১৫⟩
কি কহিবে কবি তবে এ কুঞ্জের শোভা?
প্রমদার পাদপদ্ম পরশে অশোক,
সুখে, প্রসূনের হার পরে তরুবর;
কামিনীর বিধুমুখ শীধুসিক্ত হলে,
তিলোত্তমা সম্ভব।
[?]ল ব্যাকুল তার মন রঞ্জাইতে,
পুষ্প আভরণে তার[?] আপনার বপু ⟨হরষে, মাতিয়া তরু [?]⟨নাগর যথা,⟩, প্রেমলাভ আশে। ⟨৪২০⟩
কিন্তু আজি ধবলের হের বাজি খেলা।
[?]রেরে বিজন, বন্ধ্য, ভয়ঙ্কর গিরি,
[?] নারীন্দু পদ অরবিন্দ যুগ,
আনন্দ সাগরে মগ্ন হলি রে কি তুই⟨আনন্দসাগর নীরে মজিলি কি তুই⟩? ⟨৪২৫⟩
[?] দিগম্বর, শর প্রহরণে,
[?]বতী সতীরূপ মাধুরি দেখিয়া,
মাতিলা কি কাম মদে তপ যায়[?] ছাড়ি?
ভস্ম [?] কি[?] বদনে লেপিলা ?⟨বদনে⟩?
ফেলি দূরে হাড় মালা, রত্ন কণ্ঠমালা ⟨৪৩০⟩
পরিলা কি নীলকণ্ঠে নীলকণ্ঠ ভব?─
[?]র অঙ্গনাকুল, বলিহারি তোরে। ⟨2nd august,59⟩
⟨অশোক বৈদেহি হায়,⟩
⟨তব শোকে দেবি⟩
⟨লোহিতবরণ [?] প্রসূন যথা [?] আঁখি⟩
প্রবেশিলা কুঞ্জবনে পৌলোমী সুন্দরী।
অ[?]লিকুল ঝঙ্কার⟨ঝঙ্কারিয়া⟩ ঝাঁকে ঝাঁকে উড়ি,
মকরন্দ গন্ধে যেন আকুল হইয়া ⟨৪৩৫⟩
বেড়িল বাসবহৃৎসরসী পদ্মিনীরে,[?]
মনোরম পথ দেবী দেখিলা সমুখে।⟨স্বর্গের লভিতে সুখ স্বর্গ পুরী যথা─⟩
বেড়ে আসি দৈত্যদল! অদূরে সুন্দরী
⟨মনোরম পথ এক দেখিলা [?]
উভয় পারশে শোভে দীর্ঘ তরুবলী,
মুকুলিত সুবর্ণ লতিকা [?]⟨বিভূষিত⟩,
⟨বীরদেহে শোভে যথা কনকের হার⟩
চকমকি; দেবদারু, শৈলশৃঙ্গ
উচ্চতর; [?]কুলের বঁধু,
রসের সাগরতরু, যাহার [?]
চূত মঞ্জরী [?] সুন্দরী কামবধূ দূতী;
মৌন-মধুদ্রুম; শোভাঞ্জন, জটাধারী,
যথা কপর্দ্দী; বদরী, ⟨⟩[?]
বসি দ্বৈপায়ন ঋষি কবিকুলগুরু─
কহেন⟨গায়েন⟩মধুর স্বরে তুষিয়া ভুবন
পাণ্ডব কৌরব রণ! কদম্ব সুন্দর,
কামিনীর সুরভি নিশ্বাস [?]
⟨দিয়াছে মদন যার কুসুম [?]
[?] ধরে [?] ফুলরতন!⟩
শিমূল বিশাল [?]⟨বৃক্ষ⟩; ইঙ্গুদী, [?] তপস্বী।
[?]তপোবনবাসী;[?]খী, তরুকুলবাসী।⟩
চলিলা দেবকামিনী, মরালগামিনী, ⟨৪৪০⟩
ঘুনু ঘুনু[?] ধ্বনি করি কিঙ্কিণী বাজিলা।
শুনি সে মধুর বোল তরুদল যত
রতিভ্রমে পুষ্পাঞ্জলি শত হস্ত হতে
দিয়া, স্তব্ধভাবে পূজে রাজা পা দুখানি
কোকিলা কোকিল সহ মিলি আরম্ভিলা ⟨৪৪৫⟩
মদন কীর্ত্তণ গান; চলিলা রূপসী─
যথায় অর্পণ দেবী করেন চরণ,
কোকনদ, কুমুদ ফুটিয়া শোভে তথা।
অদূরে দেখিলা সতী অতি মনোহর
হৈম মরকতময় চারু সিংহাসন।⟨৪৫০⟩
তাহার উপরে তরু শাখাদল মিলি,
আজি দিয়া পরস্পরে[?]
তিলোত্তমা সম্ভব।
নবীন পল্লবাহু, পরান খচিত,
মুকুল, কুসুম─ পদ্মরাগমণি সম─
ঝালর [?] বেষ্টিত; ─ ধরে পরম যতনে;⟨মরি কিবা শোভা তার!⟩
সুপ্ত পীতাম্বরোপার অনন্ত যে মতি ⟨৪৫৫⟩
অযুত ফণা ফণীন্দ্র করেন বিস্তার।
চারিদিগে ফোটে ফুল; কেতকী, কিংশুক,
স্মর প্রহরণ উভে; কেশর সুন্দর,
রতিপতি মহাদরে করে ধরে যারে,
মহীপতি ধরয়ে কনকদণ্ড যথা! ⟨৪৬০⟩
মাধবিকা, যার পরিমল মধু আশে
অনিল উন্মত্ত সদা; নবীন মালিকা,
কানন আনন্দময়ী; চারু গন্ধরাজ
গন্ধের আকর─ [?] গন্ধমাদন অচল ⟨যেমতি!⟩
চম্পক যাহার আভা দেবী কি মানবী ⟨৪৬৫⟩
কে না লোভে ত্রিভুবনে? লোহিতলোচনা
জবা মহিষমর্দ্দিণী আদরেন যারে;
বকুল, আকুল অলি যাহার সৌরভে [?] !
গন্ধ, যাহার কান্তি দেখি, সুখে মজি,
রতির কুচযুগল গড়িলা বিধাতা;
⟨কর্ণিকা─ যার কোমল উর[?] বিলাস,⟩
⟨শিলীসুখ তপন তাপেতে তাপি সুখ⟩
⟨লভয়ে সুবিরাম যথা বিরাজয়ে রাজা⟩
⟨সুপট্ট শয়নে! হায়, কর্ণিকা অভাগা!,⟩
⟨সুবর্ণ বৃথা যার সৌরভ বিহনে⟩
⟨সতীত্ব [?] বিহনে যথা যুবতী যৌবনে⟩
রজনীগন্ধা─ রজনীকুন্ডল শোভিনী,
শ্বেত, সরস্বতি, যেন তব ভুজদ্বয়!
⟨কামিনী যামিনী সখী, শুক্ল⟨বিশদ⟩বসনা─⟩
⟨ধুতূরা সতী যেমতি, কিন্তু রতিদূতী⟩
⟨রতি সহিতে যুবতী নহে[?] রত!⟩
⟨রতি কাম সেবায় সতত ধনী রত!⟩
⟨তিলক প্রমদা [?]⟨ভবানীর ভালে শশীকলা যথা সুচারু মূর্ত্তি যার⟩
⟨মনোহর! [?]
⟨পলাশ সিঁদূরে মজিল গজমুক্তাফল,[?]⟨প্রবালে গড়া কুণ্ডল যেমতি⟩
[?]⟨ঝলকে যে ফুল⟩ বনস্থলী [?]
শোলাব─ পরশমণি ভূভারত যারে⟨পাটনি, মদনতূণ [?]
পরেন জননী নিজ কুসুম মুকুটে
সর্ব্বোপরি, নিশিভালে তারাকান্ত যেন; ⟨৪৭৫⟩
অন্যান্য প্রসূন যত কত কব আর?
এসব ফুলের মাঝে, দেখিলেন দেবী,
ফুটিয়াছে নারীফুল ফুল রুচি হরি,
রূপের আভায় আল করিয়া কানন।
পর্ব্বতদুহিতা সবে─ কনক পুতলি, ⟨৪৮০⟩
কমলবসনা, শিরে কমল কিরীট,
তিলোত্তমা সম্ভব।
কমলভূষণা, কমলায়তনয়না,
কমলময়ী যেমনি কমলকামিনী ,
কাহার করকমলে হৈম ধূপদান⟨ইদিরা! কাহার করে হৈমধূপদান⟩,
তাহে পুড়ি গন্ধরস, কুন্দুরু অগুরু,
গন্ধামোদে আমোদ করিছে কুঞ্জবন;─
যেন মহাব্রতে ব্রতী বসুন্ধরা পতি
ধবল─ ভূধরেশ্বর; কার হাতে শোভে
স্বর্ণ থালে পাদ্য অর্ঘ্য; কেহ বা যোগায়
মন্দাকিনী বারি মণিময় পাত্রে ধরি⟨ভরি⟩, ⟨৪৯০⟩
কেহ বা মন্দারদাম─ তারাময় মালা─
ধরে করিয়া যতন রতন বাসনে ⟨;⟩
⟨পুষ্পরজপূর্ণিত কুম্‌কুম কার হাতে⟩
মৃদঙ্গ বাজায় কেহ রঙ্গরসে ঢলি;
কোন ধনী, বীণাপাণি ,গঞ্জিনী, পুলকে ⟨৪৯৫⟩
ধরি বীণা, বরিষয় মধুর সুস্বর;
কোন বামা─ কামের কামিনীসমা─ ধরে
ররাব─ সঙ্গীতরস রসিত অর্ণব;
বাজে কপিনাশ, দুঃখনাশ যার রবে;
সপ্তস্বরা, মন্দিরা, ভুবন মনোহরা; ⟨৫০০⟩
তম্বুরা, অম্বর মার্গে গরজে যেমতি
গভীর জীমূত, নাচাইয়া ময়ূরীরে।
দেখিয়া সতীরে যত পার্ব্বতী যুবতী
নৃত্য করি মহানন্দে গাইতে লাগিলা।
যথা যবে, আশ্বিন, রে মাসবংশ রাজা, ⟨৫০৫⟩
আনিস্‌ গিরীশ গেহে গিরীশ দুহিতা
দশভুজা গিরিজা, সমবৎসর বিরহ
নাশিনী আনন্দময়ী, গিরীশমহিষী,
সহ সহচরীগণ, ভাসি নেত্র নীরে,
হাসি, কাঁদি গায় নাচে!─হেরিয়া শচীরে, ⟨৫১০⟩
অচিরে পার্ব্বতীদল গীত আরম্ভিলা।─
আইস, হে বিধুবদনা বাসব বাসনা,
তিলোত্তমা সম্ভব।
অমরাপুরী ঈশ্বরী⟨ঈশ্বরি,⟩ ত্রিদিবের দেবি,
স্বাগত, স্বগত তুমি! তব দরশনে
ধবল আচল আজি আনন্দে অচল! ⟨৫১৫⟩
শৈলকুল শক্র শত্রু, তব প্রাণপতি;
কিন্তু যূথনাথ যুঝে যূথনাথ সহ,
কেশরী কেশরী সঙ্গে যুদ্ধ রঙ্গে রত।
আইস, হে মহিমামতি, ⟨আইসে [?] পিত্রালয়ে⟨জনক আলয়ে দুহিতা যেমনি⟩ নির্ভয় হৃদয়ে
⟨কিম্বা বিহঙ্গিণী যথা বিপদের কালে⟩
⟨বহুবাহু তরুকুলে⟩
যাঁহারে যতনে লাবণ্যবতি
তলাষি⟨স⟩ছ, সে রতনে পাইবে এখনি। ⟨৫২০⟩
বসি ওই সিংহাসন তব পুরন্দর।
স্তব্ধ হইলা নগরালাবৃন্দ অরবিন্দ
ভূষণা;─ সম্মুখে দেবী কনক আসনে
নন্দন কাননে যেন, দেখেন বাসবে।
অমনি রমণী দে⟨হেরি⟩ হৃদয় রমন, ⟨৫২৫⟩
চলিলা তাঁহার পাশে অতি দ্রুতগতি⟨কুঞ্জর গামিনী⟩
অতি দ্রুতগতি; যথা বরিষার কালে,
শৈবলিনী, বিরহ বিধুরা, ধায় রড়ে
কল কল কল রবে সাগর উদ্দেশে,
মজিতে প্রেম তরঙ্গ রঙ্গে তরঙ্গিণী। ⟨৫৩০⟩
যথা শুনি চিত্তবিনোদিনী বীণাধ্বনি
উল্লাসে ফণীন্দ্র জাগে, শুনিয়া অদূরে
পৌলোমীর পদ শব্দ─ (স্মৃত চিরদিন)─ চির পরিচিত
উঠিলেন শচীপতি শচী সমাগমে।
উন্মীলিনা আখণ্ডন সহস্র লোচন, ⟨৫৩৫⟩
যথা নিশা অবসানে মানস সরস
উন্মীলে কমল কুল; কিম্বা যথা যবে
রজনী শ্যাম অঙ্গিণী আইসে মৃদুগতি,
অযুত আঁখি খুলিয়া গগণ কৌতূকে
হেরে সে শ্যাম বদন─ সুখের সদন! ⟨৫৪০⟩
বাহু পসারিয়া দেব ত্রিদিবের নাথ
ধরিয়ে⟨লইলা⟩ ত্রিদিব দেবী নিজ বক্ষস্থলে,
তিলোত্তমা সম্ভব।
রত্নাকর ⟨যত্নে⟩ যেমন ধরেন নিশাকর, যত্নে, রত্নাকর যথা ধরে নিশাকরে ⟨যতনে রতনাকর নিশাকরে যথা,⟩
যবে ফুল দল সখা ⟨সুবর্ণ⟩ প্রত্যূষ, আসিয়া
মুক্তাময় কুণ্ডল পরায় ফুল দলে! ⟨৫৪৫⟩
কোথা সে ত্রিদিব, নাথ?─ (ভাসি নেত্র নীে জলে
কহিতে লাগিলা শচী)─ দারুণ বিধাতা
হেন বাম মোর প্রতি কিসের কারণে?
কিন্তু হেরিয়া, রমণ, ও বিধু বদন,
পাশরিনাম আমি এবে যত⟨পূর্ব্ব⟩দুঃখ !⟨যত!⟩⟨৫৫০⟩
কি ছার⟨কি ছার⟩ সে স্বর্গ, তার সুখ ভোগে ছাই,
এ অধিনী সুখিনী সর্ব্বত্র⟨কেবল⟩ তব পাশে!
বাঁধিলে শৈবললতা⟨বৃন্দ⟩ সরের শরীর,
নলিনী কি ছাড়ে তারে? নিদাঘ যদপি
শুখায় সে জল তবে নলিনীও মরে,
সতী সাধ্যা নারী যথা প্রাণপতি সহ ⟨৫৫৫⟩
ঽব্যবাহন বাহনে স্বর্গে যায় চলি,
ত্যজি এ [?] সংসার মায়া!─ কাঁদিয়া কাঁদিয়া,
নিস্তব্ধ হইলা দেবী অশ্রুময় আঁখি;
সে আঁখির অশ্রু দেবেশ্বর পুরন্দর⟨চুম্বিলা সে অশ্রুআঁখি দেব পুরন্দর⟩
চুম্বিলা⟨সোহাগে⟩─ চুম্বয়ে যথা মলয় অনিল ⟨৫৬০⟩
সোহাগে⟨উজ্জ্বল প্রত্যূষে⟩ শিশির বিম্ব কমল লোচনে!
তোমারে পাইলে, প্রিয়ে, স্বর্গের বিরহ
দুরুহ কি ভাবে, ধনি, তোমার কিঙ্কর?
তুমি যথা স্বর্গ তথা!─ কহিলা বাসব,
গভীর বচনে, যথা গরজে কেশরী ⟨৫৬৫⟩
কৃষোদর, হেরি বীর পর্ব্বত কন্দরে
সিংহী কামিনীরে;─ কহিলেন পুরন্দর─
তুমি যথা স্বর্গ তথা, ত্রিদিবের দেবি!
কিন্তু, প্রিয়ে, কহ এবে সকল সংবাদ।
তিলোত্তমা সম্ভব।
কোথা জলনাথ এ[?]⟨কোথা⟩ সনকার পতি?⟨,⟩⟨৫৭০⟩
কোথা হৈমবতী সূত তারকসূদন?⟨,⟩
তপন⟨শমন⟩, পবন, আর যত দেব রথী?⟨,─⟩
কোথা চিত্ররথ? কহ, কেমনে জানিলা
এ নি[?]⟨ভৃ⟩ত স্থানে আমি আছি পালাইয়া?
উত্তর করিলা দেবী পুলোম দুহিতা,─ ⟨৫৭৫⟩
মৃগাক্ষী, বিম্ব অধরা, পীন পয়োধরা,
কৃষোদরী;─ মমভাগ্যে, প্রাণসখা, আজি
দেখা মোর স্বপ্ন সঙ্গে⟨শূন্য মার্গে⟩ স্বপ্নদেবী সহ!
পুষ্করের পৃষ্ঠে বসি, সৌদামিনী যেন,
ভ্রমিতে ছিলাম বিশ্ব অনাথা হইয়া,─ ⟨৫৮০⟩
স্বপ্ন মোরে দিলে, নাথ, তোমার বারতা।
সমরে বিমুখ অমরের সেনা
ব্রহ্মলোকে চাহে⟨স্মরে⟩ তোমা, চল দেবপতি,
⟨শীঘ্রগতি চল তথা ওহে দে[?][?]
শুনি ইন্দ্রাণীর বাণী দেবেন্দ্র অমনি ⟨৫৮৫⟩
স্মরণ করিলা দেব আপন বিমান─
মনোরথ পরাজিত যে রথের বেগে,
গতি, ভাতি, উভয়েতে তড়িত লাঞ্ছিত।
আইল রথ তেজোপুঞ্জ সে নিকুঞ্জ বনে।
বসিলা দেব দম্পতী পদ্মাসনোপরে;
উঠিল আকাশে গর্জ্জি স্বর্ণ ব্যোম যান, ⟨৫৯০⟩
নীমাম্বরে আল করে, বৈনত যেমত,
শশী আর অমৃত উভয়ে লয়ে সাথে।
ইতি প্রথম সর্গ⟨কিম্বা যেন হৈম পোত, বিস্তার[?]
⟨বাষ্প পাখা, ভাসিল সাগর নী[?]


ইতি শ্রীতিলোত্তমা সম্ভবে কাব্যে
ধবল শিখর নাম
প্রথম সর্গ।

2nd august

⟨the Whole of this Book is in the
author's ⟨own⟩ Hand-writing
M. M. Dutta⟩



Of the Sanksrit Poets, except Kalidasa:—
Remove their swelling Epithets; think laid
as varnish on a harlot's cheeks; the rest
Thin down with aught of profit or delight!
Pur: Reg: Book IV.



তিলোত্তমা সম্ভব
দ্বিতীয় সর্গ।


কোথা ব্রহ্মলোক? কোথা আমি মন্দমতি
অকিঞ্চনা? যে দুর্ল্লভ লোক লভিবারে
যুগে যুগে যোগীন্দ্র করেন মহা যাগ (যোগ)⟨যোগ,─⟩
কেমনে মানব আমি─ ভব মায়াজালে
আবৃত, পিঞ্জরাবৃত বিহঙ্গ যেমনি,─ ⟨৫⟩
যাইব সে মোক্ষধামে? ভেলায় চড়িয়া
কে পারে হইতে পার দুস্তর⟨অপার⟩সাগর?
কিন্তু হে সারদে, দেবি বিশ্ববিনোদিনি,
তব বলে বলী যে, মা, কি অসাধ্য তার
এ জগতে? আইস, তবে, আইস পদ্মালয়া ⟨১০⟩
বীণাপাণী, কবির হৃদয় পদ্মাসনে
অধিষ্ঠান কর উরি! কল্পনা সুন্দরী─
হৈমবতী কিঙ্করী তোমার, শ্বেতভুজে,
আন সঙ্গে হরি, শশী⟨কলা⟩ কৌমুদী যেমতি!
এ দাসেরে বর যদি দেহ গো বরদে,─ ⟨১৫⟩
তোমার প্রসাদে, মাতঃ, এ ভারতভূমি
শুনিবে, আনন্দার্ণবে ভাসি চিরদিন⟨অনুদিন⟩ অনুক্ষণ,⟨নিরবধি⟩,
মধুর সঙ্গীত ধ্বনি মধু হেন মানি!─
উঠিল অম্বর পথে হৈম ব্যোমযান
মহাবেগে, ঐরাবত আর সৌদামিনী ⟨২০⟩
সহ পয়োবাহ যথা; দেবধ্বজোপরে
শোভিল দেব পতাকা, বিদ্যুতের রেখা⟨যেন অচঞ্চলা⟩
অচঞ্চল যোগ⟨বিদ্যুতের রেখা;⟩ চারিদিগে ⟨যত⟩ মেঘকুল
হেরি সে কেতুর কান্তি, ভ্রান্তি মদে মাতি,
ভাবি তারে অচলা চপলা, দ্রুতগামী ⟨২৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
গর্জ্জিয়া আইল সবে নভিবার আশে
সে সুর সুন্দরী,─ যথা রাজেন্দ্র মণ্ডল,
স্বয়ম্বরস্থলে, স্বয়ম্বরা রূপবতী
রূপ মাধুরিতে সবে⟨অতি⟩ মোহিত হইয়া
বেড়ে তারে, পঞ্চশর শরে জর জর! ⟨৩০⟩
এইরূপে মেঘদল আইল ধাধাইয়া
দেখি সে কেতন রতনের চারুভাতি;
কিন্তু হেরে দেবরথে দেব দম্পতীরে
সিহরি অম্বরতলে সাষ্টাঙ্গে পড়িলা
অমনি! চলিল রথ মেঘ[?]⟨মালা⟩পরে⟨শিরে⟩, ⟨৩৫⟩
আনন্দময় মদন [?] যেমন
অপরাজিতা কাননে চলে মন্দগতি
মধু কালে; কিম্বা যথা সেতুবন্ধোপরে
সীতা সীতানাথ নয়ে কনক পুষ্পক!
এড়াইয়া মেঘমালা মাতলি সারথি ⟨৪০⟩
চালাইলা বিমান; নাদিল দেবরথ;
শুনি সে ভৈরব রব দিগ্বারণ গণ─
ভীষণ মূরতিধর─ রুষী হুঙ্কারিলা
চারিদিগে; চমকিলা জগত; বাসুকীকি
অস্থির হইলা ত্রাসে! চলিল বিমান! ⟨৪৫⟩
কতদূরে চন্দ্রলোক অম্বরে শোভিল,
রজদ্বীপ নীলজলে! তার মধ্যস্থলে
দক্ষের দুহিতা দলে─ কুমুদের দাম─
বেষ্ঠিত, রতমাসনে, কুমুদ বাসনা
বসেন রোহিনীপতি, সুধার আকর,
কামিনী কুলের সখী ⟨নিশি-⟩ তার সখা,
মদন রাজার বঁধু! মশ্তক উপরে
⟨তাহার সাকারে,⟩
⟨বসেন রজতাসনে কুমুদবাসন,─⟩
⟨কামিনী কুলের সখী যামুনীর সখা, ⟩
অনঙ্গমদন⟨সকল⟩ রাজার বঁধু, সুধা নিধি দেব⟩
⟨সুধাংশু; >দক্ষ তনয়া দল বরাঙ্গনা
বেড়ে শশাঙ্ক⟨ধরে⟩ যেমতি কুমুদের⟩
⟨চির বিকচিত, পূরি সৌরভে গগণ আকাশ,⟩
⟨রূপের আভায় মোহি রজনীরমণ!─⟩
⟨হেম হর্ম্মে, যার চারিদিগে⟨পাশে⟩ দিবানিশি⟩
⟨ফেরে অ[?] চক্ররাশি, মহা ভয়ঙ্কর-⟩
বিরাজে অমৃত⟨যে সুধাংশু⟩ ; [?] যথা মেঘবর কোলে
ললিতা, ভুবনস্পৃহা, কুসুমযুবতী⟨কুমারী⟩!
তিলোত্তমা সম্ভব।
হীরক মুকুট জ্বলে; কোলে কৃষ্ণসার।
নারী অরবিন্দ সহ ইন্দু মহামতি
হেরি দেব দম্পতীরে দূরে প্রণমিলা ৫৫
নম্রভাবে; যথা যবে প্রলয় পবন
বহে নিবিড় কাননে, তরুকুলপতি
বল্লরী সুন্দরী দল⟨বৃন্দ⟩ শাখাবলী সহ,
বন্দে নমাইয়া শির অজেয় মারুতে!
পশ্চাতে রাখিয়া চন্দ্রলোক, দেবযান
উতরিল রবির মন্ডল শোভে⟨বাস⟩ যথা
গগণে; - কনকময় মনোহর পুরী,
[?]⟨তার চারিদিগে শোভে⟩⟨ মেখলা যেমন⟩
আলিঙ্গয়ে যুবতী বামার কৃশোদর
হরষে পসারি বাহু!, তাহার উপরে
রাজ অট্টালিকা পরে চাঁদনী যেমন
জ্বলে অন্তপ পরিধি - আলোকের নিধি!
⟨রাশিচক্র; তাহে -রাশিরাশির আলয়; নগর উপরেমাকা[?]
এক চক্র রথে দেব বসেন ভাস্কর।
অরুণ, তরুণ সদা, নয়নরমণ
মধু কামবঁধু, জবে ঋতুপতি
হিমান্তে শুনিয়া কোকিলার কলরব
আসে বিলাসী তুষিতে দেবী বসুন্ধরা
কাতরা বিরহে তার,- বসেছে সমুখে
সারথি; ছায়া সুন্দরী, মলিনবদনা,
বসেন পতির পাশে
নলিনী সুখিনী সুখে দুঃখিনী কামিনী,
বসেন পতির পাশে নয়ন মুদিয়া!
সপত্নীর প্রভা নারী পারে কি সহিতে?
চারিদিগে গ্রহদল দাঁড়ায়ে সকলে
নতভাবে, মানবেন্দ্রে সমীপে যেমতি
অমাত্যবর্গ; অদূরে তারাবৃন্দ যত, ⟨Dawn, and the Pleiades before him danc'd Shedding sweet influence: less bright the Moon⟩ ৮০
ইন্দীবর নিকর, অম্বর তলে নাচে,
যথা, রে অমরাপুরি- কনকনগরি,
নাচিত অপ্‌সরীকুল যবে দেবেশ্বর
শচীসহ শচীপতি দেবসভা মাঝে
বসিতেন দেবাসনে! নাচে তারাবলী
বেড়িদেব দিবাকরে স্বর্ণপাত্র হাতে[?]মৃদুমন্দপদে
করে তাহা [?]⟨পুরস্কারেন⟩ হাসিয়া প্রভাকর! -
⟨তা সকলে,রত্নদানে যথা মহিপাল⟩
⟨তুষে কিঙ্করীসুন্দরীদল- তুষ্ঠ হয়ে⟩
হেরি দূরে দেবরাজে গ্রহকুল রাজা
তিলোত্তমা সম্ভব।
সসম্ভ্রমে প্রণাম করিলা মহামতি।-
এড়াইয়া সূর্য্যলোক চলিল বিমান। ⟨৯০⟩
এবে চন্দ্র, সূর্য্য আর নক্ষত্র মণ্ডল
-রজত, কনক দ্বীপ অম্বর সাগরে-
পশ্চাতে রাখিয়া সবে, হৈম ব্যোমযান
উতরিল যথা শত দিবাকর যিনি⟨জিনি⟩
প্রভা- স্বয়ম্ভূর পাদপদ্মে স্থান যার-⟨৯৫⟩
উজ্বলে গগণ ধনী প্রকৃতিরূপিনী,
রূপে মোহি অনাদি অনন্ত সনাতনে;
প্রভা- শক্তিকুলেশ্বরী, যাঁর সেবা করি
তিমিরারি ভাস্কর তোষেন করদানে
শশী তারা গ্রহাবলী, বারিদ যেমনতি ⟨১০০⟩
অম্বুনিধি সেবি সদা তোষে বসুন্ধরা
তৃষ্ণাতুরা, আর তোষে চাতকিনী দল
জলদানে। ইন্দ্রপ্রিয়া পৌলোমী রমণী⟨রূপসী⟩,
গৌরাঙ্গিনী, কমল নয়না, পীনস্তনী,
অনন্ত যৌবনা,- হেরি কারণ কিরণ ⟨১০৫⟩
সভয়ে চারুহাসিনী নয়ন মুদিলা,
কুমুদিনী বিধুপ্রিয়া তপন উদিলে
⟨মুদয়ে⟩নয়ন মুদয়েযথা; দেব পুরন্দর
অসুরারি, যে করে দম্ভোলি তুলি দেব
বেত্রাসুরেন্দ্রে মহেন্দ্র নাশেন সমরে, ⟨১১০⟩
সেইকর দিয়া এবে প্রভার আভায়
চমকি ঢাকিলে আঁখি! দেবধ্বজোপরে
দেবকেতু, ধূমকেতু দিবাভাগে যেন,
হইল মলিন; যান মুখে সূতেশ্বর
মাতলি হইয়া অন্ধ রশ্মি দিলা ছাড়ি ⟨১১৫⟩
মহাভয়ে; আতঙ্ককিয়া তুরঙ্গের⟨ঙ্গম⟩দল
চলে মন্দগতি যথা প্রতীপ গমনে
প্রবাহ[?]! আইল এবে ব্রহ্মলোকে রথ।
মেরু- কনক মৃণাল কারণ সলিলে,
তাহে ব্রহ্ম লোক শোভে কনক উৎপল; ১২০
তিলোত্তমা সম্ভব।
তথা বিরাজেন ধাতা- পদতল যাঁর ⟨পদাম্বুজ⟩
মুমুক্ষুবৃন্দের ধ্যেয়- মহামোক্ষধাম!
অদূরে হেরিলা এবে দেবেন্দ্র বাসব
কাঞ্চন তোরণ, রাজতোরণ যেমন
আভাময়; তাহে জ্বলে আদিত্য আকৃতি ⟨১২৫⟩
আদিত্য জিনি প্রতাপে, রতন নিকর।
নরচক্ষু কভু নাহি হেরিয়াছে যাহা,
কেমনে নর রসনা বর্ণাইবে তারে
অতুল ভব মন্ডলে! তোরণ সমুখে
দেখেন দেব দম্পতী দেব সৈন্য দল ১৩০
ভগ্ন রণে; যথা যবে প্রলয় প্লাবন
গভীর গরজি গ্রাসে নগর নগরী
সর্ব্বভুক, নগর বাসী জনগণ যত
নিরাশ্রয়, মহাত্রাসে পালায় সকলে
যথা উচ্চ পর্বেত ভুধর মহা⟨ম⟩তি। ⟨১৩৫⟩
অটল, উন্নত, বীরেশ্বর ধীরভাবে
বজ্র পদপ্রহরণে তরঙ্গ নিচয়
ি[?]বিমুখযে; কিম্বা যথা দিবা অবসানে-
মহত সহিত যদি নীচের তুলনা
সম্ভবযে- কিম্বা যথা দিবা অবসানে, ⟨১৪০⟩
তমঃ যবে আলিঙ্গয়ে বসুধা সুন্দরী,
বিহঙ্গমকুল ভয়ে তরুবর পাশে
আসে আশ্রয়ের আশে; দেব সৈন্যদল-
সমুদ্র তরঙ্গ যথা, যবে জলনিধি
উথলে কুপিয়া শুনি পবনের রব ⟨১৪৫⟩
বীরদর্পে, কিম্বা যথা সাগরের তীরে
বালিবৃন্দ, কিম্বা যথা গগণ মন্ডলে
নক্ষত্রচয়- অগন্য! কোটি কোটি রথ,
স্বর্ণচক্র, অগ্নিময়, রিপুভস্মকর,
বিদ্যুত গঠিত ধ্বজামন্ডিত; তুরগ- ⟨১৫০⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
যার খুর⟨পদ⟩ তলে বিরাজেন সদাগতি
সদা, শূভ্র কলেবর হিমানী আবৃত
গিরি যথা, পৃষ্ঠে কেশরাবরীল শোভা
ক্ষীরসিন্ধু ফেনা যেন অতি মনোহর!
হস্তী, মেঘাকার সবে,- যে সকল মেঘ, ⟨১৫৫⟩
সৃষ্টি বিনাশিতে যবে আদেশেন ধাতা,
আখন্ডল পাঠান ভাসাতে ভুমন্ডল
প্রলয়ের জলে; শুনি যে মেঘ গর্জ্জন
শৈলের পাষাণ হইয়া ফাটে মহাভয়ে,
বসুধা কাঁপিয়া যান সাগরের তলে ⟨১৬০⟩
ত্রাসে আকুলা সুন্দরী! গন্ধর্ব্ব, কিন্নর,
যক্ষ, রক্ষ মহাবলী নানা অস্ত্রধারী,
ভীষণ দশনে, বজ্র নখে বারণারি
অস্রিত যেমত, কিম্বা নাগারি বৈনত
গরুত্মন্ডকুলপতি! সহস্র পতাকা ⟨১৬৫⟩
উড্রিত গগণে, কিন্তু বিহঙ্গ যেমন
কিরাতের কণাঘাতে ব্যথিত হৃদয়!
শঙ্খ, দুন্দুভি নীরব! দৈব বলে বলী
যার স য়ে[?]⟨সমুখে⟩ বিমুখ্‌ এ চতুরঙ্গ দল!
⟨হেন সৈন্যদল,⟩
⟨অজেয় জগতে, আজি দানবের রণে⟩
⟨বিমুখ,⟩ হইয়া সবে [?]⟨পালায়ে আসি পসিয়াছে সবে⟩
দুর্ব্বার সমরে যার ভয়ে ডরে দৈত্যকুল
[?]দৈত্য প্রতাপ নাশক![?]
যথা⟨কিম্বা⟩ ফণীন্দ্র তক্ষক মহৌষধ গুণে ১৭০
নত দুরন্ডনাশক,- যার বিষানলে
ভস্ম পৌরবকুলেন্দু উত্তরা নন্দন!
তিলোত্তমা সম্ভব।
এ হেন দুর্ব্বার সেনা, যার কেতু'পরে
জয় বিরাজয়ে সদা -গ্রহেন্দ্র⟨খগেন্দ্র⟩ যেমতি
স্বর্ণ[?]রথে- হেরি এ হেন দশায়,⟨বিশ্বম্ভরধ্বজোপরে পাখা বিস্তারিয়া⟩
⟨অরুণ নয়ন- হেরি ভগ্ন দৈত্যরণে⟩⟨১৭৫⟩
শোকাকুল হইলেন দেবকুলপতি
অসুরারি! মহত যে পরদুঃখে দুঃখী
নিজ দুঃখে কভু নহে কাতর সে জন!
পর্ব্বত⟨কুলিশ⟩ চূর্ণিলে শৃঙ্গ, শৃঙ্গধর সহে
সে যাতনা, ক্ষণমাত্র হইয়া অস্থির; ⟨১৮০⟩
কিন্তু যবে কেশরীর প্রচন্ড আঘাতে
ব্যাথিত বারণ আসি কাঁদে উচ্চস্বরে
পড়ি গিরিবর পদে, গিরিবর কাঁদে
তার সহ! মহা শোকে শোকাকুল দেব
দেবপতি, ধরি ইন্দ্রাণীর করযুগ ⟨১৮৫⟩
-সোহাগে মরাল যেন⟨যথা⟩ ধরয়ে কমল-
কহিতে লাগিলা ইন্দ্র; হায় প্রাণেশ্বরি,
বিধির অদ্ভুত বিধি দেখি বুক ফাটে!
শৃগালের সমরে বিমুখ সিংহদল
বসি, সুরেশ্বরি ঐ তোরণ সমীপে ⟨১৯০⟩
ম্রিয়মাণ অভিমানে! হায়, দেবকুলে,
কে আজি না চাহে ত্যাজিবারে কলেবর?
যাইতে, শমন, তার তিমির ভবনে?
পাশরিতে এ গঞ্জনা? ধিক! শত ধিক্‌
এ দেব মহিমা! অমরতা, ধিক তোরে! ⟨১৯৫⟩
হায়, বিধি, কি পাপে আমার প্রতি তুমি
এ হেন দারুণ? যুগে যুগে এ যন্ত্রণা
কেন ভোগ করাও আমারে? এ জগতে
তিলোত্তমা সম্ভব।
ত্রিদিবের নাথ ইন্দ্র তার সম আজি
কে অনাথ? কিন্তু নহি নিজ দুঃখে দুঃখী। ⟨২০০⟩
সৃজন, পালন, নয় তোমারি ইচ্ছায়;
তুমি গড়, তুমি ভাঙ্‌গ, বজায় রাখহ
তুমি! কিন্তু এই যে অগন্য দেবগণ-
এ সবার দুঃখ, দেব, দেখি প্রাণ কাঁদে!
তপন তাপেতে তাপি পশু পঃক্ষী যদি ⟨২০৫⟩
বিশ্রাম বিনাস আশে যায় তরু পাশে,
দিনকর খরতর কর সহ্য করি
আপনি সে মহীরুহ, আশ্রিত যে প্রাণী
ঘুচায় তাহার ক্লেশ! হায় রে, দেবেন্দ্র
আমি স্বর্গপতি[?]⟨মোর⟩রক্ষিত যে জন ⟨২১০⟩
রক্ষিতে তাহারে মোর⟨মম⟩ না হয় ক্ষমতা?
এতেক কহিয়া দেব দেবকুলপতি
নাবিলেন রথ হৈতে সহ সুরেশ্বরী -
গৌরাঙ্গিণী, কমলনয়না, পীনস্তনী-
শূন্য পথে⟨মার্গে⟩; পরশি গগণ, পৌলমীর ⟨২১৫⟩
পদ অরবিন্দ, সুখে হাসিতে লাগিল!
চলিলা দেব দম্পতী নীলাম্বর পথে,
যথা ভাসেমকালত[?]⟨তরুকমল⟩ বল্লরী সুন্দরী
⟨যতনে ধরিয়া⟩
তরুরাজ[?][?]⟨কোলে মুকুলিত⟩
পবন উপাস্থিতি তারে ফেলে বাহু বলে ⟨২২০⟩
নিরে গ[?]জানে জানিলেন মাহামাতি
দেবেন্দ্র ইন্দ্রাণী সহ দেবসৈন্য পানে!
হেথা দেব সৈন্য হেরি দেবেন্দ্র বাসবে
উল্লাসে⟨অমনি⟩ উঠিলা সবে করি জয়ধ্বনি
অমনি⟨উল্লাসে⟩ বারণ[?]বৃন্দ আনন্দে যেমতি ⟨২২৫⟩
হেরি যূথনাথে; লয়ে গন্ধর্ব্বের দল-
গন্ধর্ব্ব মদনগর্ব্ব খর্ব্ব যার রূপে-
গন্ধর্ব্বকুলের পতি চিত্ররথ পরী⟨রথী⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
বেড়িনা মেঘবাহনে, অগ্নিচক্ররাশি
বেড়ে যথা অমৃত বা সুবর্ণ প্রাচীর ⟨২৩০⟩
দেবালয়, নিষ্কোষিয়া [?] অসি
ধরি বাম করে [?]⟨জ্ঞান⟩
অভেদ্য সমরে [?]
ভাতিল রবি পরিধি উদিলেক যেন[?]
মেরুশৃঙ্গোপরে- মণিময় [?]
বিস্তারি কিরণজাল চতুরঙ্গ দলে[?]
রঙ্গে বাজে রণ বাদ্য, যে [?]
পবন উথলে যথা সাগরের বারি-
উথলে বীর হৃদয় সাহস অর্ণব!
আইলেন কৃতান্ত ভীষণ দন্ড হাতে;
ভালে জ্বলে কোপাগ্নি ভৈরব ভালে[?] যথা
বৈশ্বানর, যবে, হায়, [?]মদন
ঘুচাইয়া রতির মৃ[?] মৃনাল ভুজ [?]⟨পাশ⟩
আসি, যথা মগ্ন তপঃসাগরে[?] ভূতেশ,
বিঁধিয়াছিলেন্‌ [?]যথা[?]শৈব হিয়া
ফুলশরে; আইলেন [?]⟨বরুণ দুর্জয়⟩
পাশহস্তে জলেশ্বর, রাগে চক্ষু রাঙা[?]
তড়িত জড়িত ভীমাকৃতি মেঘ যেন!
আইলা অলকাপতি[?] সাপটিয়া ধরি
গদাবর; আইলেন হৈমবতী সূত
তারকসূদন দেব বহিণ ক্র[?]
ধনুর্ব্বাণ হাতে দেব সেনানী ক্র[?] আইলা
পবন সর্ব্বদমন; আর কব কত?
[?]অগন্য দেবতাগন বেরিলা বাসবে[?],
যথা-নীচ সহ যদি মহতের খাটে[?]
তুলনা- নিদ্রার মাতা নিশীথিনী যবে[?]
তারাকুন্তলা মহিষী আসি দেন দেখা[?]
মৃদুগতি জোনাকের [?]⟨প্রতিসরে⟩
মোর তরুবর রত্ন কিরীট পরিয়া
শিরে, উজ্বলিয়া দেশ বিমল আভায়[?]
তিলোত্তমা সম্ভব।
কহিতে লাগিলা তবে দেব পুরন্দর;─
সহস্রেক বৎসর এ চতুরঙ্গ দল
দুর্ব্বার,দানব সঙ্গে ঘোরতর রণে
নিরন্তর যুঝি, এবে নিস্তেজ সমরে
দৈব বলে; হায়, দৈববল বিনা কেবা ⟨২৬৫⟩
এ জগতে তোমা সবা পারে পরাজিতে
অজেয়, অমর, বীরকুলশ্রেষ্ঠ? বিনা
অনন্ত, কে ক্ষম, যম সর্ব্বঅন্তকারি,
বিমুখিতে তোমা সহ এ দিক্‌পালগণে
বিগ্রহে? কেমনে এবে এ দুর্জ্জয় রিপু─ ⟨২৭০⟩
বিধির প্রাসাদে দুষ্ট দুর্জ্জয়─ কেমনে
বিনাশিবে বিবেচনা কর দেব দল।
যে বিধির বরে ত্রিদিবের সিংহাসনে
বসি আমি বাসব, আমার প্রতি তিনি
মহাপ্রতিকূল! হায়, এ কার্ম্মুক রাজা ⟨২৭৫⟩
বৃথা আমি ধরি আজি এই বাম করে!
এ ভীষণ বজ্র আজি নিস্তেজ পাবক!
শুনি দেবেন্দ্রের বাণী কহিতে লাগিলা
অন্তক, গভীর স্বরে গরজে যেমতি
মেঘকুলপতি রুষী, কিম্বা বারণারি ⟨২৮০⟩
বিদরিয়া বসুধার বক্ষ বজ্রনখে
ক্রোধাবেশে; না পারি বুঝিতে, দেব, আমি
বিধির এ লীলা! যুগে যুগে পিতামহ
এইরূপ বিড়ম্বেন অমরের কুল;
বাড়ান দানব দর্প, শৃগালের হাতে ⟨২৮৫⟩
সিংহেরে দিয়া লাঞ্ছনা! তপেতুষ্ট তিনি;
যে তাঁহারে ভক্তিভাবে ভজে তিনি তার
বশীভূত; আমরা দিক্‌পালগণ যত
রত সতত স্বকার্য্যে─ লালনে পালনে
এ ভব মণ্ডল; তাঁরে পূজিতে অক্ষম ⟨২৯০⟩
যথা বিধি; অতএব আজ্ঞা যদি কর,
ত্রিদিবের পতি, এই দণ্ডে দণ্ডাঘাতে
নাশি এ জগত, চূর্ণ করি বিশ্ব, ফেলি
তিলোত্তমা সম্ভব।
স্বর্গ, মর্ত্য, পাতাল অতল জলতলে!
পরে, এড়াইয়া সবে সংসারের দায়, ⟨২৯৫⟩
যোগধর্ম্ম অবলম্বী, নিশ্চিত হইয়া
তুষি চতুরাননে, দানব ভয় ভুলি,
ভুলি এ দুঃখ, এ সুখ ;⟨!⟩ ⟨কে পারে সহিতে─⟩
⟨হায় রে, কহ দেবেন্দ্র! হেন অপমান?⟩
⟨এই মতে সৃষ্টি যদি পালিতে ধাতার⟩
⟨ইচ্ছা তবে বৃথা কেন আমা সবা দিয়া⟩
⟨মথাইলা সাগর? অমৃত পানে মোরা⟩
⟨অমর; কিন্তু এ অমরতার কি এই⟩
⟨ফল? হায়, নীলকণ্ঠ, কিসের লাগিয়া⟩
⟨ধর হলাহল দেব নিজ কণ্ঠদেশে?⟩
⟨জ্বলুক জগত! ভস্ম কর বিশ্ব! ফেল⟩
⟨উগরিয়া সে বিষাগ্নি! কার [?]⟨হেন⟩ সাধ⟩
⟨আজি, যে সে ধরে প্রাণ[?] অমরকুলে![?]
এতেক কহিয়া দেব তপনতনয়
কৃতান্ত, হইলা ক্ষান্ত─ রাগে চক্ষুদ্বয় ⟨৩০০⟩
লোহিতবরণ, রাঙা জবা যুগ যেন।
তবে সর্ব্বদমন পবন মহাবলী
কহিতে লাগিলা, যথা পর্ব্বত গহ্বরে
হুহুঙ্কারে কারাবদ্ধ বারি, বিদরিয়া
অচলের কর্ণ; যাহা কহিলা, শমন, ⟨৩০৫⟩
অযার্থ নহে কিছু; নিদারুণ বিধি
আমা সবা প্রতি বাম সদা অকারণে সদা।
নাশিতে এ সৃষ্টি, প্রনয়ের কালে যথা
নাশেন আপনি ধাতা, [?] ⟨বিধি মম⟩ কেন?
কেন, হে ত্রিদশগণ, কিসের কারণে ⟨৩১০⟩
সহিব এ অপমান আমরা সকলে
অমর? দিতিজকুল প্রতি যদি এত
স্নেহ। পিতামহের, নূতন সৃষ্টি সৃজি,
দান তিনি করুন্‌ পরম ভক্তদলে!
এ সৃষ্টি, এ স্বর্গ, মর্ত্য, পাতাল─ আলয় ⟨৩১৫⟩
সৌন্দয্যের, রত্নাগার, সুখের সদন,─
এত দিন রক্ষা করি বাহু বলে, এবে
দিব কি দানবে? বৈনতের[?] উচ্চধামে
মেঘাবৃত, খঞ্জন গঞ্জন মাত্র তার!
দেহ আজ্ঞা, দেবেশ্বর; দাঁড়াইয়া হেথা─ ⟨৩২০⟩
এ ব্রহ্ম মণ্ডলে─ দেখ সবে, মুহূর্ত্তেকে,
এক নিমিষে এ সৃষ্টি─ বিপুল, [?] সুন্দর,
নাশি আমি লণ্ডভণ্ড করি ত্রিভুবন ⟨ত্রিজগত!⟩
কহিতে কহিতে ভীমাকৃতি প্রভঞ্জন
নিশ্বাস ছাড়িলা রোষে; থর থর করি─ ⟨৩২৫⟩
ধাতার কনক পদ্ম আসন যে স্থলে,
সে স্থল ব্যতীত─ বিশ্ব কাঁপিতে লাগিল!
⟨ভাঙ্গিল পর্বতশৃঙ্গ⟨চূড়া⟩; ডুবিল সাগরে⟩
⟨তরী; তরি কেশরী কানননিবিড় কানন পর্বতগুহা ছাড়ি⟩
⟨পালাইলা দ্রুত বেগে; গর্ভিণী রমণী─⟩
প্রসবিলা অকালে ভয়াবতী⟨ভয়াকুলা⟩ যুবতী─ অকালে প্রসবিলা!⟩
তবে ষড়ানন তারকারি, অনুপম।
রূপে, হৈমবতী সতী কৃত্তিকা যাঁহারে
পালিয়াছিলা, সরসী রাজহংস শিশু ⟨৩৩০⟩
পালি[?]ল যথা আদরে, সেনানী মহারথী,─
তিলোত্তমা সম্ভব।
মৃদুস্বরে─ যথা বাজে মুরারির বা⟨বাঁশী⟩
গোপিনীর মনোহরী⟨ি⟩, উত্তর করিলা
পার্ব্বতীনন্দন, রণে প্রচণ্ড প্রহারী,
কিন্ত ধীর মলয় সমীর যেন, যবে ⟨৩৩৫⟩
স্বর্ণবর্ণা উষা সহ ভ্রমেন মারুত্‌
শিশির মণ্ডিত ফুলবনে প্রেমামোদে,─
উত্তর করিলা দেব ময়ূরবাহন [?]
⟨মৃদুস্বরে, যথা বাজে মুরারির বাঁশি⟩
⟨গোপিনীর মনোহরি, মঞ্জু কুঞ্জবনে!─⟩
জয় পরাজয় রণে বিধির ইচ্ছায়।
তবে যদি রথী যথা সাধ্য যুদ্ধ করি ⟨৩৪০⟩
রিপু সমুখে বিমুখ হয় মহামতি,
রণক্ষেত্রে, শরম কি তার? দৈববলে
বলী যে অরি সে যেন অভেদ্য কবজে
ভূষিত, শতসহস্ত্রতীক্ষ্ণতর শর
পড়ে তার শরীরে পর্ব্বত দেহে যথা ⟨৩৪৫⟩
বরিষার জলাসার! আমরা সকলে
প্রাণপণে যুঝি আজি সমরে বিরত,
এ নিমিত্তে কে ধিক্কার দিবে আমা সবে?
বিধির নিবন্ধ কহ কে পারে খণ্ডাতে?
অতএব শুন যম, শুন সদাগতি ⟨৩৫০⟩
দুর্জ্জয় সমরে দুহে, শুন মোর বাণী,
দূর কর মনস্তাপ; তবে যদি বল
কেন বিধির এ বিধি? কেন প্রতিকূল
আমা সবা প্রতি হেন দেব পিতামহ?
কি কহিব আমি দেব কুলের কনিষ্ঠ? ⟨৩৫৫⟩
সৃষ্টি, স্থিতি, প্রলয় যাঁহার ইচ্ছাক্রমে
অনাদি অগম্য⟨অনন্ত⟩ যিনি বোধাগম্য, তাঁর
যে রীতি সেই সুরীতি! কিসের কারণে,
কেন হেন করেন চতুরানন, কহ,
কে পারে বুঝিতে? রাজা যাহা ইচ্ছা, করে; ⟨৩৬০⟩
প্রজার কি উচিত বিবাদ রাজা সহ?
তিলোত্তমা সম্ভব।
এতেক কহিয়া দেব স্কন্দ তারকারি
হইলা নিস্তব্ধ; তবে অম্বুরাশিপতি─
বীরকম্বু নাদে যথা, উত্তর করিলা
প্রচেতা; এ বৃথা ক্রোধ⟨রোষ⟩ কর সম্বরণ ⟨৩৬৫⟩
আদিতেয়দল; যাহা কহিলেন দেব
কার্ত্তিকেয়, সত্য তাহা; আমরা সকলে
বিধাতার অধীন, তাঁহারি পদাশ্রিত;
অধীন যে জন কহ স্বাধি⟨স্বাধীনতা⟩ কোথা
সে জনের? দাস সদা প্রভু আজ্ঞাকারী। ⟨৩৭০⟩
দানব দমন আজ্ঞা আমা সবা প্রতি;
এবে দানব দমনে অক্ষম আমরা;
চল যাই ধাতার সমীপে, দেবগণ!
সাগর আদেশে যবে তরঙ্গ নিকর
ধায় যুদ্ধ বেশে সংহারিতে শিলাময় ⟨৩৭৫⟩
পাড়, তার বজ্রপ্রতিঘাত বেদনায়
ফাঁফর হইয়া পুনঃ বেগে যায় ফিরি
সে তরঙ্গ দল। [?]ল পদ্মযোনি কাছে⟨যায় [?] সিন্ধু পাশে।[?] চল যাই⟩
যথা পদ্ম যোনি [?]আমা সবাকার।⟨পদ্মাসন জগদে⟨দী⟩শ।⟩
নাশিতে এ বিপুল ভুবন সাধ্য কার ⟨৩৮০⟩
তিনি বিনা? তুমি, হে অনন্ত[?]⟨ন্তক⟩ বীরবর,
সর্ব্ব অন্তকারী, কিন্তু বিধির বিধানে!
এই যে প্রচণ্ড দণ্ডে শোভে তব করে,
দণ্ডধর, যাহার প্রহারে হয় ক্ষয়
অমর অক্ষয় দেহ, চূর্ণ নগরাজা; ⟨৩৮৫⟩
ইহার ভীম আঘাত বিধি আদেশিলে
বাজে শরীরে, কোমল ফুলাঘাত যেন,
যবে কামিনী নিক্ষেপে ,মৃদুমন্দ হাসি, বেলায়⟨হানায়⟩
প্রিয় দেহে প্রণয়িনী হৃদয় রমণী,
পুষ্পদল[?] ফুলশর! তুমি, হে ভীষণ প্রভঞ্জন, ⟨৩৯০⟩
ভগ্ন যার নিশ্বাসে বিশাল তরুকুল,
তুঙ্গ গিরিশৃঙ্গ, গিরি প্রসাদে যেমত
জয়ী স্রোত, বিরিঞ্চির বলে তব বল!
অতএব। বিবেচনা করি দেখ⟨দেখ সবে করি⟩ বিবেচনা,
দেব দল! মোর মনে জ্বলে কোপানল ⟨৩৯৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
বাড়ব আনল যেন জলধিহৃদয়ে!
আমিও এ দুর্দ্দান্ত দানব প্রহরাণ
ব্যথিত, কিন্তু কি করি? এ ভৈরব পাশ,
যার ভয়ে কম্পয়ে জগত, হায়, আজি
ম্রিয়মান মন্ত্রবলে মহোরগ যেন! ⟨৪০০⟩
তবে অলকার নাথ, এ বিশ্ব যাঁহার
রত্নাগার, কহিতে লাগিলা যক্ষপতি,
রণে চির বিজয়ী, ভীষণ গদাধর,
ধনদ;─ নাশিতে সৃষ্টি, যেমন কহিলা
প্রচেতা─ কাহার সাধ্য? তবে যদি থাকে ⟨৪০৫⟩
এ হেন শকতি কারো, কেমনে সে জন
দেব কি মানব, পারে এ কর্ম্ম করিতে
নিষ্ঠুর? কঠিন হিয়া হেন কার আছে?
কে পারে নাশিতে তোরে জগত জননি
বসুন্ধরা⟨ধা⟩, ⟨রে⟩ ঋতুকুল রমণি, যাহার ⟨৪১০⟩
প্রেমে সদা মত্ত ভানু, ইন্দু ইন্দীবর
গগনের? তারাদল যার সখী দল!
সোহাগে বাসুকি নিজ শত শিরোপরে
বসায়! ফণীন্দ্র [?] ⟨ফণি মহামণি যথা⟩
শ্যামাঙ্গি[?]! রে অনন্তা, ⟨রে⟩ মেদিনি কামিনি, ⟨৪১৫⟩
শ্যামাঙ্গিণি ধনি, যার অলক ভূষিতে
সৃজেন সতত ধাতা ফুল রত্ন চয়
বহু বিধ! ভূধর যাহারে ধরি থাকে!
হায় রে, কে আছে, কহ, হে দিক্‌পালগণ,
এমত নিষ্ঠুর⟨র্দ্দয়⟩? রাহু শশী গ্রাসিবারে ⟨৪২০⟩
ব্যাগ্র সদা দুষ্ট, কিন্তু রাহু─ সে দানব!
আমরা দেবতা─ এ কি আমাদের কাজ?
অতএব চল সবে যাই যথা ধাতা
পিতামহ। কি আজ্ঞা তোমার, দেবপতি?
তিলোত্তমা সম্ভব।
কহিতে লাগিলা পুনঃ দেবেন্দ্র বাসব ⟨৪২৫⟩
অসুরারি─ পালিতে এ বিপুল জগত
সৃজন, হে দেবগণ, আমা সবাকার;
অতএর কেমনে যে রক্ষক সে জন
হইবে ভক্ষক? যথা ধর্ম্ম, তথা জয়!
অন্যায় করিতে যদি আরম্ভি আমরা, ⟨৪৩০⟩
সুরাসুরে বিভেদ কি থাকিবেক, কহ
সকলে? দিতিজবৃন্দ অধর্ম্মেতে রত;
কেমনে আমরা যত অদিতিনন্দন,
অমর, ত্রিদিববাসী, তার সুখভোগী,
আচরিব যেমত আচরে দৈত্যদল ⟨৪৩৫⟩
পাপাচার? চল সবে ব্রহ্মার সদনে,
নিবেদি চরণে তাঁর এ ঘোর বিপদ।
হে কৃতান্ত দণ্ডধর, সর্ব্ব অন্তকারি;─
হে সর্ব্বদমন বায়ুকুল পতি, রণে
অজেয়;─ হে তারক সূদন ধনুর্দ্ধারি, ⟨৪৪০⟩
শিখিধ্বজ;─ হে বরুণ, রিপুভস্মকর
বাণানলে;─ হে কুবের, অলকার নাথ,
পুষ্পকবাহনদেব, ভীমগদাধা ি⟨র⟩,
ধনেশ;─ আইস সবে যথা পদ্মযোনি
পদ্মাসনে বসেন অনাদি সনাতন। ⟨৪৪৫⟩
এ মহা সঙ্কট হতে তিনি বিনা আর
কে পারিবে উদ্ধারিতে এ দেব সমাজ
তাঁহারি রক্ষিত? চল বিরিঞ্চি সমীপে।
এতেক কহিয়া দেব ত্রিদিবের পতি
বজ্রী, স্মরিলেন। চিত্ররথ মহাবলী⟨রথী⟩ ⟨৪৫০⟩
গন্ধর্ব্বকুলের রাজা, রমণীরমণ,
মহাতেজা; অগ্রসর হইয়া অমনি
করযোড়ে দেবেন্দ্রে নমিলা চিত্ররথ।
আশীর্ব্বাদ করিয়া বাসব মহামতি
বজ্রপাণি, আদেশিলা গন্ধর্ব্ব ঈশ্বরে ⟨৪৫৫⟩
দেবেশ্বর,─ এ দিকপালগণ সহ আমি
প্রবেশিব ব্রহ্ম , পুরী রক্ষা; রক্ষা কর, বীর,
ত্রিদিব মহিষী তুমি, দেবীকুল সহ[?]
বিদায় হইয়া দেব পতি পুরন্দর
তিলোত্তমা সম্ভব।
শচীর নিকটে, সহ ভীম গন্ধবহ, ⟨৪৬০⟩
শমন, তপনসুত তিমির [?]বিলাসী,
তারকনাশক, হৈম কৃত্তিকার কোলে
লালিত যে কান্তবর, প্রচেতা দুর্জ্জয়,
ধনদ অলকানাথ, প্রবেশ করিলা
ব্রহ্মপুরী─ মোক্ষধাম, জগত বাঞ্ছিত। ⟨৪৬৫⟩
তবে চিত্ররথ বলী⟨রথী⟩, গন্ধর্ব্ব ঈশ্বর
মহারথী⟨বলী⟩, দেবদত্ত শংখ ধরি করে
ধ্বনিলা সে শংখ বর; সে ভৈরব⟨গভীর⟩
শুনিয়া, অমনি আস্তে ব্যস্তে দেব সেনা
অগণ্য, দুর্ব্বার রণে, গরজি উঠিলা ⟨৪৭০⟩
চারিদিকে; লক্ষ লক্ষ অসি, নাগরাশি
উদ্গীরি পাবক যেন, ভাতিল আকাশে
ভয়ঙ্কর! উড়িল পতাকাচয় যথা
বিহঙ্গমদল─ রত্নচ্ছায়া ব্যতিকর⟨রতনে মণ্ডিত অঙ্গ⟩!
উঠি রথে রথী দর্পে ধনু টঙ্কারিলা ⟨৪৭৫⟩
চাপে বসাইয়া শর⟨পরাইয়া গুণ⟩; গদা করে ধরি
করিপৃষ্ঠে চড়ে কেহ─ কেশরী যেমতি
চড়ে তুঙ্গ গিরিশৃঙ্গে; কেহ আরোহিলা
(গরুড় বাহনে যথা দেব চক্রপাণি)
অশ্ব, সদাগতি সদা বাঁধা যার পদে; ⟨৪৮০⟩
শূল হস্তে, যেন শূলী ভীষণ নাশক,
পদাতিকবৃন্দ উঠে হুহুঙ্কার করি,
মাতি বীর মদে শুনি সে শংখ নিনাদ!
বাজিতে লাগিল রণবাদ্য, যার বোল
শুনি নাচে বীর হিয়া, [?]⟨ডমরু শুনিয়া⟩ ⟨৪৮৫⟩
নাচে যথা ফণীবর দুরন্ত দংশক
বিষাকর; ভীরু যে বিদরে প্রাণ তার
মহাভয়ে! সাজিল নিমিষে দেব⟨সুর⟩সেনা
দানব বংশের ত্রাস, রক্ষা করিবারে
ত্রিদিব⟨স্বর্গের⟩ ঈশ্বরী দেবী পৌলোমী সুন্দরী, ⟨৪৯০⟩
আর যত দেব⟨সুর⟩নারী; নিবিড় কাননে
যথা মহীরুহ দল। কিন্তু করিয়া বাহু
অযুত, রক্ষায় সবে বল্লবীর কুল,
তিলোত্তমা সম্ভব।
অলকে ঝলকে যার কুসুম রতন
অমূল রতনে⟨জগতে⟩, রাজ⟨ইন্দ্র⟩ ইন্দ্রাণী ঈপ্সিত! ৪৯৫
যথা সপ্ত সিন্ধু বেড়ে সতী বসুমতী
জগত্‌জননী, ত্রিদিবের সৈন্যদল
বেড়িল ত্রিদিব দেবী অনন্ত যৌবনা
শচী, সাপটিয়া ধরি চন্দ্রাকার ঢাল,
অসি, অগ্নিশিখা যেন; শত প্রতিসরে ⟨৫০০⟩
বেড়িলা ইন্দ্ররমণী চতুরঙ্গ দল।
এবে চিত্ররথ রথী, সৃজিয়া মায়ায়
কনক পুষ্প⟨সিংহ⟩ আসন, অতুল, অমূল
জগতে, যুড়িয়া কর কহিতে লাগিলা
পৌলোমীরে, বসুন এ আসনে, জননি ⟨৫০৫⟩
দেবকুলেশ্বরি! যথাসাধ্য, আমি দাস,
দেবেন্দ্র অভাবে, রক্ষা করিব আপনে!
বসিলা কনকাসনে বাসব বাসনা
মৃগাক্ষী; হায়রে মরি, হেরি ও বদন
মলিন, না বিদরে কাহার হিয়া আজি! ⟨৫১০⟩
কাহার না কাঁদে প্রাণ, শরদের শশি,
হেরি তোরে রাহুগ্রাসে? তোরে রে, নলিনি,
বিষন্নবদনা, যবে কুমুদিনীসখী
নিশি আসি নাশে, ভানুপ্রিয়ে ⟨নাশে⟩ সুখ তোর!
হেরি ইন্দ্রাণীরে, যত সুচারুহাসিনী ⟨৫১৫⟩
দেব কামিনী সুন্দরী আসি উতরিলা
মৃদুগতি, সম্ভাষিত ত্রিদিবমহিষী
আয়তলোচনা; আইলেন ষষ্টী দেবী─
বঙ্গকুলবধূ যাঁরে পূজে মহাদরে,
মঙ্গলদায়িনী; আইলেন মা শীতলা, ⟨৫২০⟩
দুরন্ত বসন্তা নলে⟨তাপে⟩ তাপিত শরীর
শীতল যার প্রসাদে, মহা দয়াময়ী
ধাত্রী! আইলেন দেবী মনসা, যাঁহার
প্রতাপে ভীত ফণীন্দ্র ফণীকুল সহ,
নিস্তেজ পাবক যথা বারিধারা বলে! ⟨৫২৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
আইলেন সুবচনী─ মধুরভাষিণী!
আইলেন যক্ষেশ্বরী, রূপবতী সখী মুরজাসুন্দরী,
কুঞ্জরগামিনী; আইলেন কামবধূ
রতি; হায়! কেমনে বর্ণিব অল্পমতি
আমি ও রূপমাধুরি─ ও স্থির যৌবন, ⟨৫৩০⟩
যার মধুপানে মত্ত স্মর মধুসখা
নিরবধি? উজ্বল, উষা যেমতি, যবে
দরশন দেন ধনী অরুণরমণী
কনক উদয়াচলে, [?], মৃদুমন্দ হাসি⟨(ফুলসাজে সাজি)⟩
মৃদু হাসি⟨মৃদুহাসি─⟩ আইলেন মন্মথ মোহিনী। ⟨৫৩৫⟩
আইলা জাহ্নবী দেবী⟨─⟩ ভীষ্মের জননী;
কালিন্দী আনন্দময়ী, যাঁর চারু কূলে
শোভে রাধার নিকুঞ্জ, যে নিকুঞ্জ বনে⟨যথায় মুরারি⟩
রাধা প্রেম ডোরে বাঁধা রাধানাথ, হরি⟨সদা⟩
ভ্রমেন, মরাল যথা পঙ্কজ কাননে ⟨৫৪০⟩
নলিণীরমণ; আইলেন ভগবতী
তমসা, সঙ্গে করিয়া⟨সহ⟩ মুরলা বিমল সলিলা,
বৈদেহীর সখী দুহে─ কমল ভূষিতা। ⟨আর কব কত?⟩
অগণ্য সুরসুন্দরী, ক্ষণপ্রভা সম
প্রভায়, কিন্তু সর্ব্বদা অচঞ্চ⟨প⟩লা যেন⟨যথা⟩ ⟨৫৪৫⟩
রত্নকান্তিছটা, আসি বসিলা চৌদিকে⟨গ⟩,
যথা তারা দল⟨বলী⟩ নীলাম্বরতলে
শশীসহ, [?]⟨হৈম⟩ করে পূরিয়া ভূবন।⟨ভরি ভব কাঞ্চন-বিভাসে!⟩
ইতি দ্বিতীয় সর্গ
তিলোত্তমা সম্ভব।
বসিলেন দেবীকুল শচী দেবী সহ
রতন আসনে; হায়, নীরব গো আজি ⟨৫৫০⟩
সকলে⟨বিষাদে⟩! আইলা এবে বিদ্যাধরী দল।
আইলা উর্ব্বশী শশী─ ত্রিদিবের শোভা!
ভবললাটের শোভা শশীকলা যথা
আভাময়ী! কেমনে বর্ণিব রূপ তব,
হে ললনে, বাসবের প্রহরণ তুমি ⟨৫৫৫⟩
অব্যর্থ! যে রূপ হেরি রাজা পুরুরবা,
ইন্দুবংশেন্দু শূরেন্দ্র, মোহিত হইয়া
ভুলিয়াছিলা কাশীন্দ্র দুহিতা মানিনী
বিধুমুখী⟨চন্দ্রাননা⟩, ভুলে যথা অলি মধুশোভা
⟨হেরি কমলিনীর মাধুরি নিরুপম,⟩
ভূত মঞ্জরী! আইলা চারু চিত্রলেখা─ ⟨৫৬০⟩
বিশালাক্ষী যথা লক্ষ্মী মাধবরমণী!
আইলেন মিশ্র কেশী─ যাঁর কেশ, তব,
হে মদন, নাগপাশ অজেয় জগতে।
আইলেন রম্ভা─ যাঁর উরুর আকার⟨বর্ত্তুল⟩
বরতুল⟨বর্ত্তুল⟩⟨প্রতিকৃতি⟩, ধরি [?]দর প্রিয়তমা⟨বনবধূ বিধুমুখী⟩ ⟨৫৬৫⟩
কদলীর নাম রম্ভা ভুবনে বিদিত!
আইলেন অলম্বুষা─ মহালজ্জাশীলা⟨বতী⟩
যথা লতা লজ্জাশীলা⟨বতী⟩! কিন্তু (কেনা জানে?)
অপাঙ্গে গরল─ বিশ্ব দহেগো যাহাতে!
আইলেন সহজনী─ সুচারুহাসিনী, ⟨৫৭০⟩
সুবর্ণ উষার ডালে ⟨জ্বলে⟩ যে তারা রতন⟨বিমল⟩
জ্বলে⟨তারা⟩ তার কান্তি ধরি─ কমল⟨উজ্জ্বল⟩ নয়না!
আইলেন মেনকা; হে গাধির নন্দন
অভিমানি, যার প্রেম রস বরিষণে
নিবারিলা তপোগ্নি তোমার পুরন্দর, ⟨৫৭৫⟩
নিবারয়ে মেঘ যথা বরষি আসার
তিলোত্তমা সম্ভব।
দাবানল! শত শত আসিয়া অপ্সরী,
দেবীকুলে নত ভাবে নমি, দাঁড়াইলা⟨নমি ইন্দ্রাণীরে ⟩
চারিদিকে;-মহাশোকে শোকাকুল সবে।⟨যথা যবে- হায়রে স্মরিলে বুকফাটে
শোক⟨ফাটে বুক⟩- ত্যজি ব্রজকম অক্রূরের সহ⟨ব্রজপতি⟩⟨৫৮০⟩
বজ্রের ভূষণ⟨অক্রূরের সহ⟩ চলি গেলা মধুপুরে,⟩
⟨অনাথা গোপিনীদল যমুনা পুলিনে⟩
⟨নীরবে বেড়িল সবে রাধাবিলাপিনী!⟩


ইতি শ্রী তিলোত্তমা সম্ভব কাব্যে
ব্রহ্মপুরী তোরণ নাম
দ্বিতীয় সর্গঃ।



The whole of this Book is in the author's
own hand-writing.


1.17. Begun 29th oct,1859
তিলোত্তমা সম্ভব
তৃতীয় সর্গ।


হেথা তুরাসাহ সহ ভীম প্রভঞ্জন-
বায়ুকুল ঈশ্বর, প্রচেতা পরন্তপ,
দন্ডধর মহারথী-তপন তনয়-
যক্ষদলপতি দেব অলকার নাথ, [?]
সুর সেনানী শূরেন্দ্র,- প্রবেশ করিলা। ⟨৫⟩
ব্রহ্মপুরী; এড়াইয়া কাঞ্চন তোরণ
হীরন্ময়,চলিলা দিক্‌পালগণ এবে
যথা পদ্মাসনে বিরাজেন পদ্মযোনি
পিতামহ; সুবর্ণ নির্ম্মিত পথ দিয়া
আয়ত⟨প্রশস্ত⟩,চলিলা যত্র ত্রিদশ ঈশ্বর। ⟨১০⟩
দুই পাশে শোভে হৈমতরুবলী; তাহে
মরকতময় পাতা, ফুল রত্নমালা,
ফল-হায়, কেমনে বর্ণিব তার ছটা!
সে সকল তরু শাখা উপরে বসিয়া,
কলস্বরে গান করে পিকবর কুল, ⟨১৫⟩
বিনোদি বিধির হিয়া! তরুবলী মাঝে,
ভাতে⟨শোভে⟩ পদ্মরাগ মণি উৎস শত শত,
উগরি অমৃত,যথা রতির অধর
বিশ্ব⟨ম্ব⟩ময় বরিষে বচন সুধা, তুষি
কামের কর্ণকুহর! সুমন্দ্র অনিল, ⟨২০⟩
সহগন্ধ- বিরিঞ্চির চরণযুগল
অরবিন্দে জন্ম যার- বহে অনুক্ষণ
আমোদে পূরিয়া পুরী! কিছার ইহার
তিলোত্তমা সম্ভব
কাছে বনস্থলীর নিশ্বাস, যবে আসি
বসন্ত বিলাসী আলিঙ্গয়ে, কামে মাতি, ⟨২৫⟩
সে বন সুন্দরী,সাজাইয়া তনু তার
ফুল আভরণে! চারিদিগে দেবগণ
দেখিয়া অযুত [?]হর্ম্ম্য উন্নত, আভায়
যথা সুমেরু নগেন্দ্র, মহাপ্রভাকর[?];
তাহে সুখে করে বাস ব্রহ্ম পুরবাসী, ⟨৩০⟩
রমার রম উরসে যথা শ্রী নিবাস
মাধব! কোথায় কেহ, কুসুম কাননে,
কুসুম আসনে বসি স্বর্ণ বীণা করে,
গায় মধুর সঙ্গীত; কোথায় বা কেহ-
ভ্রমে,সদানন্দ সম সদানন্দ মন, ⟨৩৫⟩
কুঞ্জবনে- অপ্সরী বল্লরী, তরুবর⟨বহে যথা পীযূষ সলিলা⟩
অমর অবারূপধারী ফুল কুল
শোভে যথা, প্রবাহিনী⟨যথানদী⟩পী্যুষ সলিলা[?]
প্রবাহিনী,⟨নদী,⟩ কুল্‌ কুল্‌ধ্বনি করি বহে নিরবধি,⟨রবকারী নিরবধি,⟩
পরি বক্ষস্থলে হেম কনকের⟨কমলের⟩দাম; [?] ⟨৪০⟩
নাচে যে কমলদাম মলয় হিল্লোলে,
যথা উর্ব্বশী উরসে মন্দারের হায়, মালা/
যবে নৃত্যপরিশ্রমে ক্লান্তা সীমন্তিনী
ছাড়েন ঘন নিশ্বাস, সৌরভে পরিয়া
দেবসভা! কাম-যাব[?]⟨হায় বিষম অনল⟩[?] ⟨৪৫⟩
দহে গো হৃদয়,যথা⟨অন্তরিত দহে[?]হৃদয়[?]যথা দহে⟩ বাড়ব অনল
[?]ধি⟨সাগর বাড়বানল⟩! ক্রোধ- [?] ঘোরতর কাল⟨রাতময়⟩
উথলে যে শোণিত তরঙ্গ, স্বপ্ন[?]⟨ডুবাইয়া⟩
তিলোত্তমা সম্ভব
বিবেক!ক্ষুধার্ত⟨দুরন্ত⟩লোভ- বিরাম নাশক!
হায় রে, গ্রাসক যথা কাল, তবু সদা ⟨৫০⟩
অশনাথ [?]পীড়ীত! মোহ- কুসুমডোর!
[?] কিন্তু[?]⟨আদরনীয় নাগপাশ যথা⟩
⟨কিন্তু ত [?] [?] শৃঙ্খল যে ভবকারাগার⟩
⟨দৃঢ়তর! মাফর অজেয় নাগপাশ!⟩
মদ- ⟨পর⟩ মত্তকারী[?]⟨হায়⟩, মাফকর বায়ু,
ফাঁপায় যে হৃদয়, কুরস যথা দেহ
রোগীর! মাৎসর্য্য- পরোসুখে যার দুঃখ, ⟨৫৫⟩
গরলকণ্ঠ! এসকল⟨সব দুষ্ট⟩ রিপু, [?]যারা
[?]প্রবেশি জীবন ফুলে,⟨কীট যেন,⟩নাশে
সে ফুলের অপরূপ রূপ, এ নগরে
নারে প্রবেশিতে, যথা বিষাক্ত ভুজগ
মহৌষধাগারে! হেথা, জিতেন্দ্রিয় সবে; ⟨৬০⟩
ব্রহ্মার নৈ⟨নি⟩সর্গধারী!⟨;⟩যথা নদচয়
ক্ষীর সাগরে বহিয়ানা নভয়ে ক্ষীরতা!-
হেরি এ নগরকান্তি, ভ্রান্তি মদে মাতি,
ভুলিলা দেবেশদল মনের বেদনা
মহানন্দে! কুসুম কাননে পশি, কেহ ⟨৬৫⟩
তুলিলা সুবর্নফুল; কেহ, ক্ষুধাতুর,
পাড়িয়া অমৃতফল ক্ষুধা নিবারিলা;
কেহ পান করিলা পীযূষ সুধা সুখে;
কেহ কেহ সঙ্গীত তরঙ্গে রঙ্গে ঢালি
মনঃ, হৈম তরুমূলে না যেন কৌতুকে! ⟨৭০⟩
এই রূপে ভ্রমিতে ভ্রমিতে দেবগণ।
উতরিলা বিরিঞ্চির মন্দির সমীপে
স্বর্ণ[?]⟨ম⟩য়! হীরকের স্তম্ভ সারি সারি
শোভে⟨শোভে⟩ম্মু ⟨মু⟩খে, অমর চক্ষু যার আভা
ক্ষণ সহিতে সক্ষম! কে পারে বর্ণিতে ⟨৭৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব
তাঁহার সদন, বিশ্বম্ভর সনাতন
যিনি? কিম্বা কি আছে গো এ ভব মন্ডলে,
যার সহ তুলিবে কবি [?]⟨সে⟩মহালয়!
মানব কল্পনা কভু পারে কি কল্পিতে
খেয়ার⟨ধাতার⟩বৈভব,[?] ⟨যিনি⟩ বৈতরিনী ধি[?] ? ⟨৮০⟩
বিধাতঃ! তব দুহিতা কমল বাসিনী,
তাঁর দাম মাগি নমি তব শ্রীচরণে!
মন্দির দুয়ারে, দেখিলেন দেবগণ,
বসিয়া কনকাসনে বিশদবসনা
ভক্তি- শক্তিকুলেশ্বরী, পতিত পাবণী,
মহাদেবী! অমনি দিক্‌পালদল, নমি
সাষ্ঠাঙ্গে,পূজিলা তার চরণকমল। ⟨৮৫⟩
হে জননি!- করযোড়ে কহিলা বাসব-
হে জননি!উষা যথা নাশেন তিমির,
কলুষনাশিনী তুমি; এ ভব সাগরে
তুমি না রাখিলে মাতঃ, ডুবে গো সকলে
অসহায়! হে জননি, কৈবল্যদায়িনি, ⟨৯০⟩
কৃপাকর আমা সবা প্রতি- তব দাস!
শুনি সুরপতি স্তুতি, ভক্তি দেবীশ্বরী
আশীষ করিলা দেবী যত দেবগণে
মৃদুহাসি; পাইলেন দিব্যচক্ষু সবে!
তবে অপর আসনে দেখিনা সকলে ⟨৯৫⟩
দেবী আরাধনা, ভক্তিদেবীর স্বজনী,
একপ্রাণা দুহে! পুনঃ সাষ্ঠাঙ্গে নমিয়া
তিলোত্তমা সম্ভব
কহিত লাগিলা শচীকান্ত কৃতাঞ্জলি
পুটে; হে জননি, যথা আকাশমন্ডলী
শব[?] বাহিনী, তেমনি তুমি শক্তীশ্বরি, ⟨১০০⟩
বিধাতার কর্ণমূলে বহ গো সতত
আরাধিহৃদয়বাণী! আমা সবা প্রতি
দয়া কর দয়াময়ী! সদয় হইয়া।
তবে আরাধনা দেবী প্রসন্নবদনা,
চাহিয়া ভক্তির পানে মৃদুকলস্বরে
[?]⟨শুনিয়া ঈন্দ্রের বানী দেবী আরাধনা⟩
প্রসন্নবদনা মাতা ভক্তিপানে চাহি
চাহে যথা সূর্যমুখী রবিছবিপানে,⟨১০৫⟩
কহিলা- আইস, ওগো সখি বিধুমুখি,
চল যাই লইয়া দিক্‌পালদল, যথা
পদ্মাসনে বিরাজেন ধাতা; তোমা বিণা,
কে পারে খুলিতে,সখি, এ হৈম কপাট!
খুলি এ কপাট আমি বটে; কিন্তু,সখি, ⟨১১০⟩
( উত্তর করিলা ভক্তি) তোমা বিনা কার
বাণী শুনি কর্ণদান করেন বিধাতা?
হে স্বজনি অমৃতভাষিণি, চল যাই।
খুলি আমি দুয়ার; সদয় হয়ে ওমি
অবগত করাও ধাতারে কি কারণে ⟨১১৫⟩
আসি আজি উপস্থিত হেথা দেবদল।
এবে ভক্তি শক্তিশ্বরী, সহ আরাধনা
অমৃতভাষিনী, লয়ে দেবপতিকুল⟨দল⟩,
প্রবেশিলা ধাতার মন্দির মন্দ্রগতি
তিলোত্তমা সম্ভব
নতভাবে; কনক কমলাসনে তথা ⟨১২০⟩
দেখি লেন দেবগণ স্বয়ম্ভু লো কেশ!
লক্ষ লক্ষ⟨শত শত⟩ ব্রহ্ম ঋষি বসে চারিদিগে
মহাতেজা, ত্বিষায় জিনিয়া ত্বিষাম্পতি,
কাঞ্চন কিরীট শিরে; প্রভা- আভাময়ী
জীব ⟨সৃষ্ট⟩ কুল জ্যেষ্ঠা দেবী- দাঁড়ান সমুখে- ⟨১২৫⟩
যেন বিধাতার হাস্যাবলী মূর্ত্তিমতী!
তাঁর সহ দাঁড়ান, সুবর্ণ বীণা করে,
বীণাপানি ধাতার দুহিতা-⟨আনত নয়না⟩বিনোদিয়া
সঙ্গীত সুধা বর্ষণে বিরিঞ্চি হৃদয়,
দেবীযথা মন্দাকিনী দেবীপুত্রী পতিত পাবনী
কল কল রবে সদা তুষেণ অয়ন
কুল ইন্দ্র হিমাচল [?]মহানন্দময়ী!
⟨শ্বেতভুজা- শ্বেতাঙ্গে বিরাজে পাদুখানি,⟩
⟨রক্তোৎপল দল যেন মহেশ উরসে⟩;
⟨জগত প্রণেতা দেবী[?]
হেরি বিরিঞ্চির পাদপদ্ম, সুরদল ⟨১৩০⟩
অমনি শচীরমল সহ পঞ্চজন-
⟨লমিলা সাষ্ঠাঙ্গে⟩পড়িলা ভূতলে; তবে দেবী আরাধনা ১৩৫
যুড়ি কর কলস্বরে কহিতে লাগিলা।-
হে অজ⟨ধাতঃ⟩ জগত্‌ পিতঃ, দেব সনাতন,
দয়াসিন্ধু সুন্দ, উপসুন্দাসুর বলী ⟨১৩৫⟩
মহাবলে দলিয়া দেবতাদল রণে,
বসিয়াছে দেবাসনে, দেবারি পামর
লন্ডভন্ড করি স্বর্গ, কীটকূল যথা
কুসুমকাননে পশি নাশে রূপতার
তিলোত্তমা সম্ভব
তীক্ষদন্ত! রাজ্যচ্যুত রণেপরাভূত, ⟨১৪০⟩
তোমার আশ্রয় চাহে নিরাশ্রয় এবে-
দেবদল, নিদাঘার্ত্ত পথিক যেমতি
তরুবর পাশে আসে আশ্রম আশায়!
হে বিভো, জগত্‌যোনি, অযোনি আপনি-
জগদন্ত, নিরন্তক, জগতের আদি ⟨১৪৫⟩
অনাদি! হে সর্ব্বব্যাপি, সর্বজ্ঞ, কে জানে
মহিমা তোমার? হায়, কাহার রসনা-
দেব কি মানব- গুনকীর্ত্তনে তোমার
পারক? হে বিশ্বপতি, এ বিপদ জলে
মগ্ন দেবকুলে,দেব[?]করহ উদ্ধার! ⟨১৫০⟩
এতেক নিবেদী তবে দেবী আরাধনা
নীরব হইলা মাতা আরাধি হৃদয়
বাণী বাহিনী, নমিয়া ধাতার চরণে
কৃতাঞ্জলিপুটে; শুনি দেবীর বচন,
( কিছার তাহার কাছে কোকিলার বোল ⟨১৫৫⟩
মধুসখী!) উত্তর করিলা সনাতন
ধাতা; এ বারতা,বৎসে! অবিদিত নহে।
সুন্দ উপসুন্দাসুর দৈববলেবনি বলী;
কঠোর তপস্যাফলে অজেয় জগতে!
কি অমর কিবা নর সমরে দুর্ব্বার ⟨১৬০⟩
দুহে! ভ্রাতৃ⟨ভেদ⟩ ভিন্য অন্য নাহি পথ
তিলোত্তমা সম্ভব
নিবারিতে এ দানব হয়; বায়ুসখী,
সহ বায়ু, আক্রমিলে কানন, তাহারে
কে পারে রোধিতে? কার হেন পরাক্রম?
এতেক কহিলা দেব দেব প্রজাপতি। ⟨১৬৫⟩
অমনি, করিয়া পান ধাতার বচন
মধু, ব্রহ্মপুরী সুখতরঙ্গে ভাসিল!
উজ্জ্বলতর হইলা প্রভা─ আভাময়ী,
সৃষ্টকুল জ্যেষ্ঠা দেবী! অখিল ভূতল জগত
আমোদিল সৌরভ, পঙ্কজবন যেন ⟨১৭০⟩
অযুত ফুটিয়া, মঙ্গলময় আনিলে
দিল পরিমল সুধা, বরবরে যথা
সুখ দান করে পিতা দুহিতা রতন!
যথায় সাগর মাঝে পবন প্রবল
বলে ধরি পোত, হায়, মজাইতে ছিল ⟨১৭৫⟩
তারে, শান্তিদেবী, মাতা বিরামদায়িনী,
কাঁট উতরিয়া তথা শান্তিলা মারুতে!─
যথায় কাল নশ্বর নিশ্বাস অনলে
ভস্মময় জীবকুল, ফুলকুল যথা
নিদাঘে,জীবনামৃত প্রবাহ বহিলা ⟨১৮০⟩
তথায়, জীবন দান করিয়া সকলে─
নিশির শিশির বিন্দু সরসে যেমতি
প্রসূন, নীরস, মরি, নিদাঘ জ্বালায়⟨জ্বলনে⟩!─
প্রবেশিলা মঙ্গলা─ মঙ্গল প্রদায়িনী─
প্রতি গৃহে; শস্যে পূর্ণা হাসিলা বসুধা!─ ⟨১৮৫⟩
প্রমোদে পূরিল বিশ্ব বিস্ময় মানিয়া!
তিলোত্তমা সম্ভব
তবে⟨তবে⟩ ভক্তি শক্তিশ্বরী সহ আরাধনা─
প্রফুল্লবদনা যথা কমলিনী, যবে
তপেতুষ্ট তপন, তিমিরে তাড়াইয়া,
আসি দেন দেখা দেব উদয় অচলে,─ ⟨১৯০⟩
লইয়া দিক্‌পালদল, যথা বিধি পূজি
বিধি, বাহির হইলা ব্রহ্মালয় হতে
হে বাসব─ কহিলেন ভক্তি মহাদেবী─
সুরেন্দ্র, সতত রত থাক ধর্ম্ম পথে;
তোমার হৃদয়ে, যথা রাজেন্দ্র মন্দিরে ⟨১৯৫⟩
রাজলক্ষ্মী, বিরাজ করিব আমি সদা।
বিধুমুখী সখী মম শত ভক্তি শক্তীশ্বরী,
(কহিলেন আরাধনা মৃদুমন্দ হাসি)
বিরাজেন যদি দেবী তোমার হৃদয়ে,
শচি⟨শচীকান্ত⟩, নিতান্ত জানিও আমি তব ⟨২০০⟩
বশীভূতা! শশী যথা কৌমুদী সে খানে!
মণি, আভা,─ একপ্রাণা! লভ এ রতনে;
সযতনে আভা লাভ করিবে, দেবেশ!
⟨কালিন্দীরে পান সিন্ধু গঙ্গার সঙ্গমে⟩
বিদায় হইয়া⟨লা⟩তবে সুর দল, (সেবি
দেবীত্রয় চরণকমল নতভাবে ⟨২০৫⟩
⟨বিদায় হইয়া সবে ভ্রমিতে ভ্রমিতে⟩
উতরিলা পুনঃ যথা পীযূষ সলিলা
নদী বহে কুলকুল রবে নিরবধি
সুবর্ণ তটিনী; যথা অমরী বল্লরী,
তরুবর অমর, অবচ রূপ ধারী
ফু[?]ল কুল সাজায় নিকুঞ্জবন, পূরি ⟨২১০⟩
সৌরভ সুধায় পুরী; স্বর্ণতরু মূলে;
শত রঞ্জিত কুসুমে, বসিলেন সবে।
তবে সুর পতি দেব পৌলোমীবল্লভ
অসুরারি কহিতে লাগিলা⟨লেন⟩পুরন্দর ⟨ঈষৎ হাসিয়া⟩;─
তিলোত্তমা সম্ভব
দিতিজভুজ প্রতাপে,রণ পরিহরি, ⟨২১৫⟩
আইলাম আমা সবে ধাতার সমীপে
ধায়ে রড়ে─ বিধির বিধান বোধাগম!
ভ্রাতৃ ভেদ। ভিন্য অন্য [?] নাহি পথ;─ এই
সঙ্কেত বাক্যে কি বুঝ, কহ দেবগণ?
সাবধানে বিচার করহ সবে; দেখ ⟨২২০⟩
কি মর্ম্ম ইহার; দুধে জল যদি থাকে,
তবু রাজহংসপতি পান করে তারে
তেয়াগিয়া করি⟨তোয়ঃ⟩! কে কি ভাব, বল, শুনি।
উত্তর করিলা
উত্তর করিলা যম;─ এ বিষয়ে আমি,
হে দেবেন্দ্র, স্বীকারি আপন অক্ষমতা! ⟨২২৫⟩
বাহু পরাক্রমে কর্ম্ম নির্ব্বাহ যেখানে
সেখানে আমি; এ দণ্ড─ প্রচণ্ডঘাতক!─
শিখিয়াছি ধরিতে, সুরেশ, নাহি জানি
চালাইতে লেখনী, পশিতে শব্দার্ণবে
অর্থরত্ন লোভ আশে─ বিদ্যার ধীবর! ⟨২৩০⟩
আমিও অক্ষম যমসম, (কহিলেন
দেব পবন,) সাধিতে তোমার এ কাজ
বাসব! করীর কর যথা, পারি আমি
উপাড়িতে তরুবর, চূর্ণিতে পাষাণ,
ধীর ভূধরে অধীর করিতে আমাতে ⟨২৩৫⟩
বজ্রসম; কিন্তু নারি বাছিয়া তুলিতে
ক্ষুদ্র[?] ⟨সূচি⟩, হে নমুচিসূদন মহামতি⟨শচীপতি⟩!
তিলোত্তমা সম্ভব
উত্তর করিলা তবে স্কন্দ ষড়ানন
তারকারি, শুন, ওহে দেবকুলপতি,
দেহ অনুমতি মোরে যাই আমি যথা ⟨২৪০⟩
বসে সুন্দ উপসুন্দ─ দুরন্ত অসুর!
যুদ্ধার্থে আহ্বানি গিয়া ভাই দুইজনে।
শুনি মম শঙ্খধ্বনি রুষিবে অমনি
উভে;আমি কহিব─ যে তোমাদের মাঝে
বীরশ্রেষ্ঠ, তার সহ বিগ্রহ আমার। ⟨২৪৫⟩
তাই ভাই বিরোধ হইবে এ হইলে।─
সুন্দ কহিবেক আমি শূর চূড়ামণি;
উপসুন্দ এ কথায় সায় নাহি দিবে
অভিমানে;─ কে আছে, কহ গো দেবগণ,
যোদ্ধাকুলে, স্বীকারে যে আপনি ন্যূনতা! ⟨২৫০⟩
তাই ভাই বিবাদ হইলে, একে একে
বধিব উভয়ে আমি বিধির প্রসাদে,
বধে যথা বারণারি বারণ ঈশ্বরে!
শুনি সেনানীর বাণী, ঈষৎ হাসিয়া
কহিতে লাগিলা দেব যক্ষকুল রাজা ⟨২৫৫⟩
ধনেশ;─ যা কহিলেন হৈমবতীসুত
কৃত্তিকাকুলবল্লভ, মনে নাহি লাগে!
কেনা জানে ফণী সহ বিষ ⟨সহ⟩ সদাবাসী [?]?
দংশিলে ভুজঙ্গ, বিষতরঙ্গ⟨অশনি⟩ অমনি
বজ্র⟨বায়ু⟩পতি পশে অঙ্গে─ দুর্ব্বার অনল! ⟨২৬০⟩
যথায় যুঝিবে সুন্দাসুর দুষ্টমতি,
তিলোত্তমা সম্ভব
নিষ্কোষিবে অসি তথা উপসুন্দবলী
সহকারী! উভয়ের বিক্রম উভয়!
বিশেষতঃ কূটযুদ্ধে দৈত্যকুল⟨দল⟩ রত!
পাইলে একাকী তোমা, হে উমানন্দন⟨কুমার⟩ ⟨২৬৫⟩
অবশ্য অন্যায় যুদ্ধ করিবে দানব
পাপাচার; পড়িবে সঙ্কটে বীরবর
বৃথা!─ শুন মোর বাণী, দেবকুলমণি─⟨[বৃথায়! এ মোর মত⟨আমার বাণী⟩ শুন দেবপতি⟩
মহেন্দ্র; আদেশ মোরে, ধন জালে বেড়ি,
বধি আসি─ যথা ব্যাধ বধয়ে শার্দ্দূল, ⟨২৭০⟩
আনায়─ মাঝারে তারে আনিয়া কৌশলে─
[?] দুষ্ট দনুজ দুহে! অবিদিত নহে,
বসুমতী সতী মম বসু পূর্ণাগার,
যথা পঙ্কজিনী ধনী ধরয়ে যতনে
কেশর─ মদন অর্থ; বিবিধ রতন, ⟨২৭৫⟩
তেজোপুঞ্জ, নয়নরঞ্জন[?]─ রাশি রাশি,
দেহ আজ্ঞা, দেব, দান করি দানবেরে।
করি দান সুবর্ণ, উজ্জ্বল বর্ণ যথা
রতি, যবে [?] বিরলে বাধিঁয়া মধুসখা
ভুজপাশে, কামরসে ভাসেন কামিনী! ⟨২৮০⟩
রজত, সুসিত যথা দেবী শ্বেতভুজা!─
ধন লোভে উন্মত্ত উভয় দৈত্যপতি,
অবশ্য বিবাদ করি মরিবে দুজনে,[?]
মরিয়াছেন যেমতি লোভী বিভাবসু
সহ সুপ্রতীক ভ্রাতা দ্বন্দ্ব, মন্দমতি! ⟨২৮৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব
উত্তর করিলা তবে গনেশ বরুণ
পাপী;─ যা কহিলে সত্য, গুহ্যক ঈশ্বর!
অর্থে লোভ; লোভে পাপ; পাপ─ নষ্টকারী।
কিন্তু ধন কোথা এবে পাবে ধনপতি?
কোথা⟨এবে⟩ বসু ধারিণী তোমার─ বসুন্ধরা⟨কোথায় তোমায় বসুধারিণী বসুধা।⟩ ⟨২৯০⟩
শ্যামা? ভুলিলে কি, আজি আমরা সকলে
দীণ, হ⟨ি⟩মাণীতে তরু পত্রহীণ যথা!
আর কি আছে গো দেব সে সব বৈভব?
আর কি─ কিন্তু এ মিছা বী⟨বি⟩লাপে কি কাজ?
কহ কি মত তোমার⟨বিধি তব,⟩, ⟨হে⟩ দেবকুলপতি? ⟨২৯৫⟩
কহিতে লাগিলা পুনঃ⟨তবে⟩দেব পুরন্দর
অসুরারি; রতনে যথা[?]⟨অজ্ঞাত সাগরে⟨সলিলে⟩ ভাসি আসি⟩
কর্ণধার, ভাবনায়, চিন্তায় আকুল,!
⟨না দেখিয়া কূল─ অনুকূল তারামণি!⟩
কেমনে চালাব তরি বুঝিতে না পারি।
কেন ককেমনে হইব পার দুশ্চর সাগর?অকুল⟨অপার সাগর?⟩ ⟨৩০০⟩
শূন্য⟨ণ⟩তূণ আমি আজি এ মোর সমরে!
বজ্রাপেক্ষা তীক্ষ্ণ মম যত প্রহরণ,
তা সকলে নিবারণ করিয়াছে রণে
অসুর! যখন দুষ্ট ভাই দুই জন
আরম্ভিলা তপঃ, আমি পাঠাই যতনে ⟨৩০৫⟩
উর্ব্বশী রূপসী─ যার কেশ, নাগপাশ;
অপাঙ্গ ⟨গ⟩রলময়; সুরভি নিশ্বাস,
কামবাত, অধীরি[?]য়া ভূধর হইতে
ধীর যোগীন্দ্রহৃদয়; কিন্তু দৈবফলে,
বিফল সে শর! যথা শৈল দেহে বাজি, ⟨৩১০⟩
রাজীব ফিরিয়া পড়ে তার পদতলে
হানে যে অবোধ তারে, উর্ব্বশী ফিরিল!
বৃথা মোরে জিজ্ঞাসহ জলদলপতি।─
এতেক কহিয়া দেব দেবেন্দ্র বাসব
তিলোত্তমা সম্ভব
নীরব হইলা খেদে⟨এবে⟩ নিশ্বাস ছাড়িয়া ⟨৩১৫⟩
মহামতি![?]!বিষাদে! নীরবহইলা মার পঙ্কজ।⟨দেখি পৌলোমী [?]⟨রঞ্জনে⟩
আর পঞ্চজন বসিলেন মৌনভাবে।
হেন কালে─ বিধির অদ্ভূত লীলা খেলা
কে পারে বুঝিতে গো এ ব্রহ্মাণ্ড মণ্ডলে?─
হেনকালে অকস্মাৎ হইল দৈব বাণী। ⟨৩২০⟩
[?] আনি বিশ্বকর্ম্মায়, হে দেবগণ, গড়
বরাঙ্গণা, অতুলা অঙ্গণাকুলে বালা[?]
ত্রিলোকে আছে যে যত স্থাবর জঙ্গম
ভূত, [?]⟨সবা হইতে লইয়া⟩, তিল তিল, লয়ে
[?]⟨সৃজ⟩ এক প্রমদা ভুবন প্রমোদিনী। ⟨৩২৫⟩
তার দ্বা হতে হবে নষ্ট দুষ্ট অমরারি।─
তবে দেবপতি,শুনি আকাশ সম্ভবা
[?] সরস্বতী ভারতী, আদেশিলা পবনে[?]
দ্রুতগতি⟨হৃষ্টমতি⟩,─ যাও, ওহে [?] বায়ুকুলরাজা,
দ্রুতগতি; আন হেথা বিশ্বকর্ম্মা, বীর! ⟨৩৩০⟩
শুনি দেবেন্দ্রের বাণী অমনি তখনি
উড়িলা আকাশ মার্গে দেব প্রভঞ্জন
অন্তেগতি; যথা যবে বীর ধনঞ্জয়,
মৃত্যুঞ্জয়জয়ী কুন্তীনন্দন, ধরিয়া
গাণ্ডীব, ছাড়েন পশুপতি ভয়ঙ্কর, ৩৩৫
মহাবেগে উড়ে[?] শর বিশ্ব কাপাঁইয়া!
আশুগ; কাঁপিল বিশ্ব [?] থরথর [?] করি!
⟨আতঙ্কে! প্রমাদ গণি অস্থির বাসুকি!⟩
⟨যথা যবে মহাপ্রলয়ের কালে ধরি⟩
⟨পিনাক, পিনাকী টঙ্কারি ভীমধনু,⟩
⟨হুহুঙ্কারে পাশুপত ছাড়েন ভৈরব,─⟩
⟨ঘোর রবে উড়ে বাণ আকাশ মণ্ডলে⟩
⟨বাতময়, উগরিয়া কালানল শিখা!⟩
⟨আতঙ্কে! প্রমাদ গণি অস্থির হইয়া⟩
⟨জীবকুল। যথা যবে প্রলয়ের কালে⟩
⟨টঙ্করিয়া পিনাক পিনাকী পশুপতি⟩
⟨ঘোর রবে⟨নাদে⟩ উড়ে বাণ আকাশমণ্ডলে⟨প্রদেশে⟩
⟨বাতময়, উদ্‌গিরিয়া কালানল শিখা!⟩
চলি গেলা পবন পবনবেগে দেব
শূন্যপথে; হেথা ব্রহ্মপুরে পঞ্চজন ⟨৩৩৫⟩
খসিলা─ মানস সরে রাজহংস যথা─
আনন্দসলিলে সদানন্দের সদনে!
যে যাহা ইচ্ছিলা, তাহা পাইলা অমনি।
যে আশা,এ তব মরুভূমে─ মরীচিকা,
বিধির আলয়ে ফলবতী নিরবধি! ⟨৩৪০⟩
তিলোত্তমা সম্ভব
মাগিলেন সুধা শচীকান্ত শান্তমতি;
অমনি সুধা লহরী চুম্বিলেক আসি
ইন্দ্রের ইন্দুবদন─ চুম্বয়ে যেমতি
শীধুমধু অধরা প্রমদা নিতম্বিনী
প্রাণসখা! চাহিলেন ফল জলপতি; ⟨৩৪৫⟩
রাশি রাশি ফল আসি─ সুবর্ণবরণ─
পড়িল সমুখে! যাচিলেন ফুল দেব
সেনানী; অযুত ফুল, তবকে তবকে,
বেড়িল শূরেন্দ্রে যথা চন্দ্রে তারাবলী!
রত্নাসন মাগি তাহে বসিলা কুবের; ⟨৩৫০⟩
মণিময় শেষের অশেষ দেহোপরে
শোভিলেন যেন পীতাম্বর চিন্তামণি!
ভ্রমিতে লাগিলেনেন⟨া⟩ যম─ মহাহৃষ্টমতি,
যথা শরদের। নিশাকালে, মেঘবর গগণমণ্ডলে
পবনবাহনারোহি, এসে কুতূহ[?]⟨লী⟩ ⟨৩৫৫⟩
আকাশে⟨মেঘেন্দ্র⟩, রজনীকান্ত রজঃকান্তি হেরি
হেরি বরাঙ্গণা তারাবৃন্দ, মন্দগতি!
এড়াইয়া ব্রহ্মপুরী বায়ুকুল রাজা
প্রভঞ্জন বায়ুবেগে চলিলেন বীর
যথায় বসেন বিশ্বোপান্তে মহামতি! ⟨৩৬০⟩
বিশ্বকর্ম্মা; উড়িয়া আকাশেপথে রথী
বাতাকৃতি, উথলিয়া নীলাম্বর, যেন
নীল অম্বুরাশি; কত দূরে প্রভাকর
রবিমণ্ডলে অস্থির হইয়া মিহির,
ভাবি দুষ্টরাহু বুঝি আইল অকালে ⟨৩৬৫⟩
মুখ মেলি! চন্দ্রালোকে রোহিণীরমণ
তিলোত্তমা সম্ভব
শশাঙ্ক, আতঙ্কে পান্ডুবর্ণ সুধানিধি,
স্মরিয়া বিনতাসুতে- সুধা অভিলাষী!
মুদিলা নয়ন যত হৈম তারাকুলী
যথা হেরি ভৈরবদানবে বিদ্যাধরী;- ⟨৩৭০⟩
নলিনী তিমিরে! বাসকির শিরোদেশে
কাঁপিলা ভিরু বসুধা! গর্জ্জিয়া উঠিল
সিন্ধু, দ্বন্দ্বে রত সদা- কত⟨চির⟩বৈরি হেরি!
সাজিল তরঙ্গদল রণরঙ্গে মাতি!
এসবে পশ্চাতে রাখি আঁখির নিমিষে, ⟨৩৭৫⟩
চলি গেলা আশুগতি; শত শত মেঘ
ধায় আগে রড়ে ঝড়ে, ভূতদল যথা
ভূতনাথ সহ; একে একে হয়ে পার
যাও অদ্ধি, চলিলা মরুত্‌কুলেশ্বর
অবিশ্রান্ত; ক্লান্তি, শান্তি, সবে অবহেলি ⟨৩৮০⟩
চলে যথা কাল! কতদূরে যমপুরী
ভয়ঙকরী দেখিলেন ভীম সদাগতি।
কোনস্থলে হিমানীতে কাঁপে পাপীপ্রাণ
থরথরি, উচ্চৈস্বরে বিলাপি দুর্ম্মতি;
কোনস্থলে কালাগ্নেয় প্রাচীর বেষ্টিত ⟨৩৮৫⟩
কারাগারে জ্বলে কেহ হাহাকার করি
নিরবধি! কোথাও বিকট মূর্ত্তিধারী
যমদূত প্রহারে প্রচন্দ দন্ড শিরে
অদয়! কোথাও শত শকুনীমন্ডলী
বজ্রনখা, বিদারিয়া বক্ষঃ মহাবলে ⟨৩৯০⟩
ছিন্নভিন্ন করে অস্ত্র! কথাও বা কেহ
তিলোত্তমা সম্ভব
বসি নদীতীরে কাঁদে তৃষায় আকুল,
করিয়া শত মিনতি বেগবতীপদে,
বৃথা; না চাহেন ⟨নাহি চান⟩ সতীদুরাত্মার পানে,
যথা তপশ্বিনী ধনী নয়নরমনী ⟨৩৯৫⟩
জিতেন্দ্রিয়া, কভু নাহি করে কর্ণদান
কামবিবশে! কোথাও হেরি লক্ষ লক্ষ
উপাদেয় ভক্ষদ্রব্য, ক্ষুধাতুর জন
মাগে ভিক্ষা ভক্ষণ, রাজেন্দ্রদ্বারে যথা ⟨৪০০⟩
দরিদ্র, প্রহরী বেত্র আঘাতে শরীর
জরজর! নিরন্তর অগণ্য প্রানীগণ
আসিতেছে দ্রুতগতি চারিদিক্ হতে,
ঝাঁকে ঝাঁকে আসে যথা পতঙ্গের দল
দেখি অগ্নিশিখা, হায়! পুড়িয়া মরিতে!
নিঃস্পৃহ এলোকে বাস করে লোক যত! ⟨৪০৫⟩
হায়রে, যে আশা আসি তোষে সর্ব্বজনে
জগতে, এ দুরন্ত অস্তক পুরে গতি
রোধ তার- বিধাতার এই সে বিধান!
মরুভূমে স্রোতস্বতী⟨প্রবাহিনী⟩ কভু নাহি বহে!
অবিরাম কাটে কীট; পাবক না নিবে! ⟨৪১০⟩
শত সমুদ্র⟨সাগর⟩ কল্লোল জিনি, দিবানিশি
উঠয়ে ক্রন্দনধ্বনি, কাণে লাগে তালি!- (কর্ণ বিদারিয়া
হেরি শমনভবন বিষ্ময় মানিয়া
চলিলা জগৎপ্রাণ পুনঃদ্রুতগতি
যথায় বসেন দেবশিল্পী; কতক্ষণে ⟨৪১৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব
উত্তরকেন্দ্রে ⟨মেরুতে বীর⟩ শূরেন্দ্র উতারিলা আসি।
অদূরে শোভিল বিশ্বকর্ম্মার সদন।
ঘন ঘনাকার ধূম উড়ে হর্মোপরে;
তাহার মাঝারে হৈম গৃহাগ্র অযুত
তাতে, বিদ্যুতের রেখা অচঞ্চল যেন ⟨৪২০⟩
মেঘাবৃত আকাশে, বা বাসবের ধনু
মণিময়! প্রবেশিয়া পুরী, বায়ুপতি
দেখিলেন চারিদিকে ধাতু রাশি রাশি
শৈলাকৃতি; মূর্ত্তিমান্ দেব বৈশ্বানর;-
গলে সোনা সোহাগে পাইয়া সোহাগায় ⟨৪২৫⟩
প্রেমরসে; গলিয়া রজত বাহিরিছে
পুটে উথলিয়া, যথা বিমল সলিল
প্রবাহ, পর্ব্বতযানু উপরে যাহারে
পালে কাদম্বিনী ধনী; লৌহ- যার তনু
অক্ষয়, তাপিলে অগ্নি। মহারাগে ধাতু ⟨৪৩০⟩
জ্বলে অগ্নিসম তেজ, অগ্নিকুন্ডে পড়ি
পুড়িছে- বিষমজ্বালা যেন ঘৃণা করি !⟨,⟩
⟨যথা সহে শোকাগ্নি নীরবে বীর হিয়া!⟩
কাঞ্চন আসনে বসি বিশ্বকর্ম্মাদেব-
দেবশিল্পী- গড়িছেন অপূর্ব্ব গড়ন- ⟨৪৩৫⟩
হেন কালে তথায় আইলা সদাগতি।
হেরি প্রভঞ্জনে দেব অমনি উঠিয়া
নমস্কারি বসাইলা রত্নসিংহাসনে।
কহ আপন কুশল, বায়ুকুলেশ্বর-
কহিতে লাগিলা বিশ্বকর্ম্মা- কহ দেব ⟨৪৪০⟩
স্বর্গের বারতা; কোথা দেবেন্দ্র কুলিশী?
তিলোত্তমা সম্ভব
কিকারণে সদাগতি গতি হে তোমার
এ বিজনদেশে? কহ কোন্ বরাঙ্গণা-
দেবী- কি মানবী- এবে ধরিয়াছে তোমা ⟨৪৪৫⟩
পাতি পীরিতের ফাঁদ? কহ, যত চাহ,
দিব আমি ভূষণ⟨গহনা⟩- অতুল এ জগতে!
এই দেখ নূপুর- ইহার বোল শুনি
বীণাপানি বীণা তার ছিন্ন হয় খেদে!
এই দেখ মেখলা; দেখিয়া ভাব মনে,
বিশাল নিতম্বোপরে কি শোভা ইহার! ⟨৪৫০⟩
এই দেখ মুক্তাহার; উরজকমল
যুগমাঝারে হেরিলে ইহারে, মনোজ
মজেগো আপনি! এই দেখ দেব, সিঁথি;
কি ছার ইহার কাছে, অরে নিশীথিনি,
তোর তারাময় সিঁথি! এইযে কঙ্কন ⟨৪৫৫⟩
হিরামণিখচিত, দেখ, হে গন্ধবহ!
এই দেখ প্রবালকুন্ডল, বীরমণি,
কি ছার ইহার কাছে বনস্থলীকাণে
পলাশ, রমণী মনোরমণভূষণ!
আর যত আছে মোর কাছে কব কত? ⟨৪৬০⟩
হাসিয়া হাসিয়া যদি এতেক কহিলা
বিশ্বকর্ম্মা, উত্তর করিলা মহামতি
শ্বসন, নিশ্বাস বীর ছাড়িয়া বিষাদে;-
আর কি আছে গো দেব সেকাল এখন?
বিশ্বোপান্তে তিমির সাগরতীরে তুমি ⟨৪৬৫⟩
কর বাস, স্বর্গের দুর্দ্দশা নাহি জান!
তিলোত্তমা সম্ভব
হায়, দৈত্যদল এবে প্রবল সমরে,
লন্ডভন্ড করিয়া লুটিছে দেবপুরী
পামর! তমারে স্মরে দেব পুরন্দর!
প্রেরিয়াছে আমায় হেথায় সুরপতি ⟨৪৭০⟩
লইতে তোমায় ব্রহ্মলোকে ত্বরাত্বরি!
চল, দেব, অবিলম্বে, বিলম্ব নাহি সহে;
মহাব্যগ্র শত্রু আজি তব দরশনে!
শুনি পবনের বানী, কহিতে লাগিলা
দেবশিল্পী;- হায়, দেব, একি পরমাদ! ⟨৪৭৫⟩
দৈত্যকুল উজ্জ্বলিয়া, কোন মহারথী
সমুখসমরে বিমুখিলা দেবগতি
বজ্রী? কহ, কার অস্ত্রে রোধ গতি তব,
সদাগতি? কে কথিল তীক্ষ্নপ্রহরণে
যম? নিরস্তিল কেবা জলনাথ পাশ, ⟨৪৮০⟩
অলকানাথের গদা- শৈলচূর্ণকর?
হায়, কে বিন্ধিল⟨বিঁধিল⟩, কহ খরতর শরে
বর্হিণবাহনে? একি অদ্ভুত কাহিনী!
কোথায় হইল রণ? কিসের কারণে?
মরে যবে সমরে তারক মন্দমতি, ⟨৪৮৫⟩
তদবধি দৈত্যদল নিস্তেজ পাবক,-
বিষহীন ফনী,- এবে প্রবল কেমনে?
বিশেষ করিয়া কহ, শুনি শূরমণি!
উত্তরকেন্দ্রে⟨মেরুতে⟩, বীরেন্দ্র⟨বীর⟩, বাস করি আমি
বিশ্বোপান্তে; ওই দেখ, তিমির সাগর ⟨৪৯০⟩
তিলোত্তমা সম্ভব
অকূল, পর্ব্বতাকার লহরী যাহার
উথলিছে নিরবধি- মহা কোলাহলে!
কে জানে স্থল কি জল? বুঝি দুই হবে!
সৃষ্টি অগ্রে একাতমা যখন সনাতন
অজ এভব ঈশ্বর তমঃ ছিল তবে ⟨৪৯৫⟩
রজনীজনক; কিন্তু সিসৃক্ষ যৎকালে
সৃজিলা এ সৃষ্টি স্রষ্টা ত্রিমূর্ত্তি হইয়া,
এইকেন্দ্র⟨মেরু⟩ সীমিলেন জগতের সীমা;-
ও পাশে বসয়ে তমঃ মহাদন্ডধর।
নাহি যান প্রভা দেবী তাহার সদনে ⟨৫০০⟩
পাপীর সদনে যথা মঙ্গলদায়িনী
লক্ষ্মী! এত দূরে আমি কিছু নাহি জানি।
বিশেষ করিয়া কহ সকল বারতা।
উত্তর করিলা তব বায়ুকুলপতি;-
এস্থলে বিলম্ব, দেব, উচিত নাহয়- ⟨৫০৫⟩
চল ব্রহ্মপুরে। যথা বিরাজেন এবে-
দেবরাজ; শুনিবে গো সকল বারতা
তাঁর মুখে; কি সুখে কহিব আমি, হায়,
সিংহদল অপমান শৃগালের হাতে?
স্মরিলে ও কথা কোপানলে ⟨দেহ⟩জ্বলে দেহ! ⟨৫১০⟩
বিধির এ বিধি- তেঁই সহি মোরা সবে
এ লাঞ্ছনা! চল, দেব, চল শীঘ্রগতি!
আজি হে তোমার ভার, উদ্ধার করিতে
দেববংশ,[?]করি দুরন্ত দানবে।
তিলোত্তমা সম্ভব
এতেক কহিয়া, দেব বায়ুকুল রাজা, ⟨৫১৫⟩
দেব দেবশিল্পীসহ, উড়িলা আকাশে
বায়ুবেগে; এড়াইয়া কৃতান্ত নগরী,
বসুধা বাসকিপ্রিয়া, চন্দ্র সুধানিধি,
সূর্য্যলোক, চলিলেন দেব দুইজন
মনোরথগতি; কতদূরে ব্রক্ষপুরী ⟨৫২০⟩
স্বর্নময়ী শোভিল অম্বরে, শোভে যথা
হৈম কমলিনী ধনী মানস সলিলে!
শত শত গৃহচূড়া- হীরকমন্ডিত-
তাতে সারি সারি শত শত সৌধশিরে
কাঞ্চননির্ম্মিত; হেরি ধাতার সদন, ⟨৫২৫⟩
আনন্দে কহিলা বায়ু বিশ্বকর্ম্মার প্রতি;-
ধন্য তুমি দেবকুলে, দেবশিল্পি গুণি!
তোমা ভিন্ন অন্য⟨আর⟩ কার সাধ্য নির্মাইতে
এহেন সুন্দরীপুরী- অতুলা জগতে!
ধাতার প্রসাদে, দেব, এ শক্তি আমার;- ⟨৫৩০⟩
(উত্তরিলা বিশ্বকর্ম্মা) তাঁর গুণে গুণী-
গড়ি এনগর আমি তাঁহার আদেশে!
যথা সরোবর জল বিমল তরল
প্রতিবিম্বে নীলাম্বর তারাময় শোভা
নিশাকালে- এই রমা প্রতিমা, উত্তমা⟨প্রথমে⟩ ⟨৫৩৫⟩
[?]⟨উদয়⟩ ধাতার মনে, ⟨তবে⟩ পাই [?]আমি!
এইরূপ কথোপকথনে দেবদ্বয়
প্রবেশিলা ব্রহ্মপুরী, মন্দগতি এবে!
কতদূরে দেখি দেব পৌলমীরঞ্জনে
তিলোত্তমা সম্ভব
কুঞ্জবনে সহ কার্ত্তিকেয় মহারথী, ⟨৫৪০⟩
পাশী, তপনতনয়, মুরজাবল্লভ
যক্ষরাজ, শীঘ্রগামী দেবশিল্পীদেব
নিকটিয়া করপুটে প্রণাম করিলা
যথাবিধি; হেরি বিশ্বকর্ম্মায় বাসব
আশীষিয়া কহিতে লাগিলা মহোদয়;- ⟨৫৪৫⟩
স্বাগত হে দেবশিল্পি! মরুভূমে যথা
পাইয়া সলিল তৃষাকুল জন সুখী,
তব দরশনে আজি হরষ আমার
অসীম! আইস দেব, শিল্পিচূড়ামণি!
দৈববলে বলী দুই দানব দুর্জয় ⟨৫৫০⟩
সময়ে, অমরপুরী গ্রাসিয়াছে আসি,
হায়, গ্রাসে রাহু যথা সুধাংশুমন্ডলী!
ধাতার আদেশ এই, শুন মহামতি;-
আনি বিশ্বকর্ম্মায়, হে দেবগণ, গড়
বরাঙ্গণা, অতুলা অঙ্গনাকুলে বালা। ⟨৫৫৫⟩
ত্রিলোকে আছয়ে যত স্থাবর জঙ্গম
ভূত, সবা হইতে লইয়া তিল তিল,
সৃজ এক প্রমদা- ভুবন প্রমোদিনী!
তার হাতে হবে নষ্ট দুষ্ট অমরারি!-
শুনি দেবেন্দ্রের বানী শিল্পীন্দ্র অমনি, ⟨৫৬০⟩
নমিয়া বাসবে দেব, বসিলেন ধ্যানে।
আরম্ভিলা তপঃতপোবনে মহামতি।
আকর্ষিলা স্থাবর জখম ভূতকুল
ব্রহ্মপুরে; যাহারে স্মরিলা দেববর,
তিলোত্তমা সম্ভব
পাইলা তখনি তাহারে; পদ্মদ্বয় নয়ে ⟨৫৬৫⟩
গড়িলেন বিশ্বকর্ম্মা রাঙা পা দুখাণি।
বিদ্যুতের রেখা দেব লিখিলা তাহাতে
যেন নাক্ষারসরাগ। নম্বোদরবধূ
আমি⟨রম্ভা⟩ ঊরুদেশে মতী করিলা বসতি।
আনি দিলা নিজ মাঝা কেশরীকামিনী। ⟨৫৭০⟩
খগোল নিতম্ববিম্ব; মেখলাতাহায়
শোভে, যারা তারাবলী শোভেলা খগোবল।
ঐরাবত করে গড়িলেন বহুযুগ।
দাড়িম্বে কদম্বে হইল বিষম বিবাদ;
উভয়ে চাহিল আসি করিবারে বাস ⟨৫৭৫⟩
উরস আনন্দবনে; যে সব দেখিয়া,
মেরুশৃঙ্গাকারে গড়িলেন দেবশিল্পী
পীনকুযশল[?]! শবাশুক মহামতি
হইলা বদন দেব [?] হয়ে,
চেবয়ী হইতে বরি কাদম্বিনী বশী, ⟨৮০⟩
ইন্দ্রেচাপে বানাইয়া মনোহর সিঁথি!
উষার কপালে বলে[?] যে তারা রতন
তেজঃপুঞ্জ–তাহারে করিয়া দুই খান
গড়াইলা চক্ষুদ্বয়, যদিও মৃগিণী
আনি নিজ আখিঁ রাখিলেক দেবপদে। ⟨৭৮৫⟩
আপনি মধুর সখা নিজ ধনু ধরি
বসাইলা যুগল নয়নপদ্মোপরে;
তা দেখিয়া বিশ্বকর্ম্মা হাসি কাড়ি নিলা
তূণতার; সে তূন হইতে বাছি বাছি
খরতর ফুলশর নয়নে অর্পিলা ⟨৭৯০⟩
তিলোত্তমা সম্ভব
দেবশিল্পী। বসুন্ধরা নানারত্ন দিয়া
সাজাইলা বরবপু, পুষ্পলাবী যথা
সাজায় রাজদুহিতা কুসুমভূষণে।
রতিদৃতী কোকিলা চাহিলা কলরবে
দিতে তারে নিজ রব; কিন্তু বিণাপাণি ⟨৫৯৫⟩
আনি সঙ্গে রঙ্গে রাগরাগিণীর কুল
রসনায় আসন পাতিয়া মহা[?]মায়া।
অমৃত সঞ্চারি তবে দেবশিল্পী দেব
জীবাইলা জীবনমোহিনী বরামণা[?]
প্রভা যেন মূক্তিমতী হইলা আবার ⟨৬০০⟩
ধাতার আদেশে–সৃষ্টকুলরোক্ষাদেবী।
হেরিয়া দেবসম্ভভবা বামা, অনুপমা
জগতে হরষে আসিলেন দেবপতি
দেব ইন্দ্র; সুম্নদ মলয় সমীরণ
নিতান্ত কোমল কান্তি ধরিলা পবন। ⟨৬০৫⟩
মহানন্দে জলনাথ হইলা নীরব,
যথা হেরি নয়ন সুভগা শান্তিদেবী
[?]মোহিত হবে মুরজামোহন,
মনে মনে ধনমন সঁপিলেন তারে!
মহাদুখী শিখিধ্বজ, শিখিবর যথা ⟨৬১০⟩
হেরি শিখিনী সুথিনী বরযার কালে।
তিমিরবিলাসী যম হাসিয়া উঠিলা,
হাসে যথা মেঘ হেরি কৌমুদী প্রমদা
শরদে! সাবাসি, ওহে দেবশিল্পি, দেব
তিলোত্তমা সম্ভব
ধাতাবরে দেবরব, সাবাসি তোমারে! ⟨৬১৫⟩
হেনকালে–বিধির অদ্ভুত লীলাখেলা
কেপারে বুঝিতে গো এ ব্রহ্মাণ্ড মণ্ডলে?
হেনকালে পুনর্ব্বার হইল দৈববাণী।
পাঠাও, হে দেবপতি, এ রমা যুবতী
অনুপমা বামাকুলে, পরমরূপসী ⟨৬২০⟩
দেবসম্ভবা, যথায় বসে অসরারি
সুন্দ উপসুন্দাসুর; আদেশ অন[?]
যাইতে এ বরাসণা সহ, লবে মধু,
বঁধু তার; হেরি সুন্দরীর অপরুপ
রূপ মাধুরি, উভয়ে বিহ্বল হইয়া ⟨৬২৫⟩
চাহিবে বরিতে এ'রে,উভেকাম⟨মদে⟩মাতি;
এ বর বর্ণিনী অপাঙ্গ অনলি
জ্বালাইলে কামাগ্নি, দুরন্ত দৈত্যদ্বয়
অবশ্য হইবে ভস্ম দৈত্য কুল সহ।
দেবকুল আশা, দেব, হবে ফলবতী। ⟨৬৩০⟩
তিল তিল লইয়া গড়িয়া এ সুন্দরী
দেবশিল্পী,তেঁই নাম রাখ তিলোত্তমা।
শুনি দেবদল তবে আকাশসম্ভবা
সরস্বতী ভারতী, নমিলা ভক্তিভাবে
সাষ্টাঙ্গে; তৎপরে যবে প্রশংসা করিয়া ⟨৬৩৫⟩[?]
বিদায়িলা দেবশিল্পী বিশ্বকর্ম্মা দেবে।
তিলোত্তমা সম্ভব
প্রণামি দিক্‌পানদলে বিশ্বকর্ম্মা দেব
চলি বালা নিজ দেশে; তবে সুরপতি
লয়ে তিলোত্তমায় বাহির হইলা শূর
ভগ্নপুঁর হতে, যথা দেবাসুর যবে ⟨৬৪০⟩
মথিলা সাগর, জলনিধি বাহিরিলা
ভুবন আনন্দময়ী ইন্দিরার সাথে।


ইতি তা তিলোত্তমা সম্ভব কাব্যে
সম্ভব নাম
তৃতীয়ঃ সর্গ।

⟨26th nov.

⟨Parts of this Book are
in the author's own
& parts in his Pundits' Hand-writing⟩


1.20. তিলোত্তমা সম্ভব।
চতুর্থ স্বর্গ।

Begun 23rd Jany 1860


যথা সুবর্ণ-বর্ণিনী বিহঙ্গীসুবর্ণবিহঙ্গী যথা আদরে, বিস্তারি
পাখা- শত্রুধন কান্তি আভায় যাহার
মলিন- চেতনে ধণীঅতিপরম যত্নে⟩ শিখায় শাবকে
উড়িতে, হে জগদম্বে, অম্বর প্রদেশে;-
দাসেরে করিয়া সঙ্গে রঙ্গে আজি তুমি ⟨৫⟩
ভ্রমিয়াছ নানা স্থানে। কাতর সে এবে;
কুলায়ে লয়ে তাহারে চল, গো জননি!
সফল নয়ন⟨জনম⟩ তার তোমার প্রাসাদে,
বীনাপানি⟨দয়াময়ি⟩! যথা কুন্তীনন্দন কৌরব-
ধীর যুধিষ্টির- সশরীরে মহাবলী ⟨১০⟩
ধর্ম্মবলে প্রবেশিলা স্বর্গ, তর বরে
দীন আমি দেখিনু মানব আঁখি কভু
নাহি দেখিয়াছি যাহা, শুনিনু ভারতী-
তব বীণাধ্বনি বিনা- অতুল জগতে!
চল ফিরে যাই যথা কুসুম-কুন্তলা ⟨১৫⟩
বসুমতী। শুভঙ্করী কিঙ্করী তোমারি,
কল্পনা, দিয়াছে যারে, তোমার আদেশে,
দিব্য চক্ষু, ভুল না। হে ভুবনমোহিনি⟨কমলবাসিনি⟩,
রসিতে রসনা তার তব সুধা রসে!
বরষি সঙ্গীতামৃত মনীষী তুষিবে- ⟨২০⟩
এই ভিক্ষা করে দাস- এই দীক্ষা মাগে।
তিলোত্তমা সম্ভব।
যদি অধিগুণ যে, অধিগুণরূপধরি
নিদাঘের, নাশে সে আশার ফু⟨ফ⟩লফুল,
সেও ভাল! অধমে, মা, অধমের গতি।
ধিক্‌ সে যাচ্‌ঞা যে সফলা -ফলবতী।⟩ নীচ কাছে লব্ধ কামা! ⟨২৫⟩
মহানন্দে মহেন্দ্র সসৈন্যে মহামতি
উতরিলা যথা বসে বিন্ধ্য গিরিবর
কামরূপী,- হে অগস্ত্য, তব অনুরোধে
অদ্যাপি অচল!- শত শত শৃঙ্গ শিরে,
ভীম বীর ভদ্র শিরে জটা জূট যথা ⟨৩০⟩
বিকট! অশেষ দেহ শেষের যেমতি।
দ্রুতগুতি শূন্যপথে দেবরথ, রথী,
মাতঙ্গ, তুরঙ্গ, যত চতুরঙ্গ-দল
আইলা, কঞ্চুক তেজঃপুঞ্জে উজ্বলিয়া
চারিদিক্‌। কাম্য নামে গহন-কানন, ⟨৩৫⟩
যথা খান্ডব- পাণ্ডব-ফুলগুণীর গুণে
দহি⟨হবির্বহ⟩ যাহে হবির্বহ নীরোগী হইলা;-
সে কাননে দেব সেনা প্রবেশিলা বলে
প্রবল। আতঙ্কে, বিহঙ্গম, পশুকুল
আশু পালাইলা সবে ঘোরতর রবে, ⟨৪০⟩
যেন দাবানল আসি, গ্রাসিবার আশে
বনরাজি, পশিল সে বনে- ভয়ঙ্কর!
কাতারে কাতারে সেনা প্রবেশিল আসি
মহারণ্যে, চূর্ণিয়া অগণ্য তরুবর,
ঝড় যথা, কিম্বা করি [?] যূথ, মত্ত মদে। ⟨৪৫⟩
অধীর হইয়া ত্রাসে বিন্ধ্য মহীধর
শীঘ্র আসি শচীকান্ত নমুচিসূদন
পততলে কহিতে লাগিলা কৃতাঞ্জলি-
পুটে; "কি কারণে, দেব, কোন অপরাধে
তিলোত্তমা সম্ভব।
অপরাধী তব পদে কিঙ্কর? কেমনে ⟨৫০⟩
এ অসহভার, প্রভু, সহিবে এ দাস?
প্রবঞ্চি বলিরে পাঞ্চজন্য- নিনাদক
বামণ যেমতি পাঠাইলা নরবরে
অতল পাতালে, সেইরূপে বুঝি আজি
ইচ্ছা তব, সুরনাথ, মজাইতে মোরে ⟨৫৫⟩
রসাতলে! "হাসি উত্তারিলা দেবপতি
অসুরারি;- "যাও, বিন্ধ্য, চলি নিজস্থানে
অভয়ে; কি অপকার তোমার সম্ভবে
মোর হাতে? ভুজবলে নাশিয়া দিতিজ-
কুল, উপকার, গিরি, করিব তোমার, ⟨৬০⟩
আপনি হইব মুক্ত বিপন হইত;-
এই হেতু আসিয়াছি তোমার সদনে।"
হেন মতে বিদায় করিয়া বিন্ধ্যাচলে,
দেব সৈন্য পানে চাহি কহিতে লাগিলা
বাসব; "হে সুরদল ত্রিদিব নিবাসি, ⟨৬৫⟩
অমর! হে দৈত্য ⟨দিতিসুত⟩ গর্ব্ব সদাখর্ব্বকারি
সমরে! হে শুরবৃন্দ, নীরানন্দ আজি
তোমা সবে। রণ- ভূমে [?]বিমুখ যে রথী,
কত যে ব্যাথিত সে তা কে পারে বর্ণিতে!
কিন্তু দুঃখ দূর এবে কর, হে বীরগণ! ⟨৭০⟩
পুনরায় জয় আসি আশু বিরাজিবে
এই কেতন উপরে। আজি দৈত্যচয়
অবশ্য হইবে ক্ষয় ঘোরতর রণে।
দিয়াছি মদনে আমি, বিধির প্রসাদে,
যে শর- সম্বরিবে সে অব্যর্থ শরে? ⟨৭৫⟩
⟨লয়ে তিলোত্তমায়- অতুলা ধনী রূপে-⟩
ঋতুপতি সহ রতিপতি সর্ব্ব-জয়ী
গেছে চলি যথায় নিবাসে দেব অরি
পামর! থাকহ সবে সুসজ্জ হইয়া।
সুন্দ উপসুন্দ যবে পড়িবে সমরে
অমনি পশিব মোরা সবে দৈত্য-দেশে ⟨৮০⟩
বজ্রগতি, পাশে যথা মদকল করী
নলবনে, দলিয়া সকলে পদতলে।"
তিলোত্তমা সম্ভব।
শুনি সুরেশ্রের বানী, সুর সৈন্যদল⟨যত⟩
হুহুঙ্কারি নিষ্কোশিলা অগ্নিময় আসি
অযুত, সহসা পূরি আভায় কানন! ⟨৮৫⟩
টঙ্কারিলা ধরি ধনু ধনুর্ধর ⟨দল⟩ বলী
রোষে; আষ্ফালিলা শূল শূলী- ব্যাগ্রসবে
মারিতে- মারিতে রণে- যা থাকে কপালে!
ঘোর রবে গরজিলা গজ; হয়ব্যূহ
সে রবের সহ। মিশাইলা হেসা⟨ষা⟩ রব! ⟨৯০⟩
মহা কোলাহলে বিশ্ব [?] লাগিল কাঁপিতে!
শুনি সে ভৈরব রব দানব ⟨ভীষণ স্বন দনুজ দুর্ম্মতি⟩
হীনবীর্য্য হয়ে ভয়ে প্রমাদ গণিল
অমরারি, যথা শুনি খগেন্দ্রের ধ্বনি
শ্রুতিবিদার⟨ণ⟩, ম্রিয়মাণ[?]⟨না⟩গকুল। ⟨৯৫⟩
রতনে খচিত বলি বীর বলে ধরি
করে, দেবকেতু মিলিলেন চিত্ররথ
রথী; শোভিল সে কেতু ধূমকেতু যথাl
তারাশির- উজ্জ্বলিয়া অসীম গগণ।
চারিদিকে যাত্রীদল নানা যন্ত্র লয়ে
বাজাইল রণবাদ্য- যে বাদ্যের বোলে
হেন কালে আচম্বিতে আসি উতরিলা
কাম্যবনে নারদ, দীদিবি রবি যথা
দ্বিতীয়। হরষে বন্দি দেব ঋষি বরে,
কহিলেন হাসি ইন্দ্র- দেব কুলপতি।-
"কি কারণে এ নীবিড় কাননে, নারদ ⟨১০০⟩
তপোধন, আগমন আজি গো তোমার?
দেখ চারি দিকে, দেব, নিরীক্ষণ করি
ক্ষণকাল; খরতর করবাল আভা-
হবির্বহ নহে যাহে উজ্জ্বল এ স্থল!
নহে যজ্ঞধূম ও- ফলক সারি সারি ⟨১০৫⟩
সুবর্ণমন্ডিত- অগ্নিময় অগ্নিশিখাময় ধূম
যথা, কিম্বা মেঘরাশি- তড়িত জড়িত!"
আশীসি⟨ষ⟩য়া দেবেশে হাসিয়া দেবঋষি
নারদ উত্তর করিলেন সকৌতূকে।-
"তোমা সম, শচীপতি, কে আছে গো আজি ⟨১১০⟩
তাপস? যে কালাগ্নি জ্বালিয়া চারি দিকে
বসিয়াছ তপে, দেব, দেখি কাঁপি আমি
চিরতপোবনবাসী! অবশ্য পাইবে
মনোনীত বর তুমি। তব রিপুস্বয়
তিলোত্তমা সম্ভব।
ভাতৃভেদে ক্ষয় আজি নিশ্চয় হইবে।" ⟨১১৫⟩
তবে সুর সেনানী কহিলা মৃদুস্বরে
অগ্রসরি;- "কৃপাকরি কহ, মুনিবর,
ভাতৃভেদ ভিন্য অন্য পথ কি কারণে
রোধ শমনের পক্ষে নাশিতে দানব-
দল-পতি সুন্দ উপসুন্দ মন্দমতি? ⟨১২০⟩
যে দম্ভোলি তুলি করে, নাশিলা সমরে
বৃত্রাসুরে সুরপতি; যে শরে তারকে
সংহারিনু রণে আমি;- কিসের কারণে
নিরস্ত সে সব অস্ত্র এ দোহাঁর কাছে?
কার বর-বলে এত বলী দিতিসুত?" ⟨১২৫⟩
উত্তর করিলা তবে দেবর্ষি নারদ।-
"ভক্‌ত বৎসল যিনি, তাঁর বলে বলী
দৈত্যদ্বয়। শুন দেব, অপূর্ব্ব কাহিনী।
হিরণ্যকশিপু দৈত্য, যাহারে নাশিলা
চক্রপাণি নরসিংহ রূপে, তার কুলে ⟨১৩০⟩
নিকুম্ভ নামে অসুর- সুর পুর রিপু,
কিন্ত, বজ্রি তব বজ্র ভয়ে সদা ভীত
যথা গরুৎমন্ত⟨ত্মান⟩ শৈল; তার পুত্র দোঁহে
সুন্দ উপসুন্দ- এযে ভুবন বিজয়ী।
এই বিদ্ধাচলে আসি তাই দুইজন ⟨১৩৫⟩
করিল কঠোর তপঃ ধাতার উদ্দেশে
বহুকাল। তপে তুষ্ট সদা পিতামহ;
"বর মাগ" বলি আসি দাঁড়ালে সম্মুখে[?]⟨আসি দিলা দরশন দিলা।⟩
যথা সর- সুপ্ত পদ্ম রবি দরশনে
প্রফুল্লিত, হেরি বিরিঞ্ছিরে দৈত্যদ্বয় ⟨১৪০⟩
করযোড়ে কহিতে লাগিল মৃদুস্বরে;-
"হে ধাতঃ, হে বরদ, অমর কর, দেব,
আমা দুই জনে! তব বর- সুধা পানে
মৃত্যুঞ্জয় হব, প্রভু, এই নিবেদন।"
উত্তর করিলা তবে দেব সনাতন ⟨১৪৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
অজ;- "জন্মে মৃত্যু, দৈত্য। দিবস রজনী-
এক [?]⟨যায়⟩ আর আসে- সৃষ্টির বিধান।
অন্য বর মাগ, বীর, যাহা দিতে পারি।"
"তবে যদি"- উত্তর করিল দৈত্যদ্বয়-
"তবে যদি অমর না কর পিতামহ ⟨১৫০⟩
আমা দোঁহে, তোমার প্রসাদে যেন মরা
ভাতৃভেদ ভিন্য অন্য কারণে না মরি।"
"স্বস্তি"⟨"ওম্‌"⟩ বলি বর দিলা কমল-আসন।
একপ্রাণ দুই ভাই চলিল স্বদেশে
মহানন্দে। যেযে যেখানে আছিল দানব ⟨১৫৫⟩
মিলিল আসিয়া সবে এ দোঁহার সাথে।
যথা নদ, পর্ব্বত-সদন ছাড়ি যাবে
বাহিরায় প্রবাহ হুউঙ্কার রব করি
বীর দর্পে, কতশত জলস্রোত আসি
মিশি তার সহ, বীর্য্য বৃদ্ধি তার করে;- ⟨১৬০⟩
এইরূপে মহাবলী নিকুম্ভ-নন্দন
যুগ-[?]⟨বলী⟩বাহু পরাক্রমে লভিয়াছে এবে
স্বর্গ; কিন্তু ত্বরায় মরিবে দুই জন।"
এতেক কহিয়া তবে দেবর্ষি নারদ
সি⟨ষ⟩বিয়া দেব-দলে বিদায় হইয়া ⟨১৬৫⟩
চলি গেলা ব্রহ্মপুরে ধাতার সদনে।
কাম্যবনে রহিলা দেবেন্দ্র সৈন্য সহ,
যথা সিংহ, হেরি দূরে বারণ ঈশ্বরে।
সাবধানে নীবিড়-কানন মাঝে পশি
ব্যগ্রচিত্তে চাহে বীর একদৃষ্ট হয়ে ⟨১৭০⟩
তার পা'নে। এই মতে রহিলেন যত
দেববৃন্দ কাম্যবনে বিদ্ধ্যের [?] কন্দরে।
হেথা মীণধ্বজ সহ মীণধ্বজরথে
বসন্ত সারথি, চলিলেন তিলোত্তমা-
অতুলা জগতে ধনী। মৃদুমন্দ গতি, ⟨১৭৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
চলিল বিমান শূন্য পথে, যথা ভাসে
অম্বর-সাগরে স্বর্ণ-বর্ণ মেঘবর,
যাবে অস্তাচল চুড়া উপরে দাঁড়ায়ে
কমলিনী পানে ক্ষণ⟨ফিরে⟩ চাহেন ভাস্কর
কমলিনী সখা। যথা সে [?]নের সনে ⟨১৮০⟩
সৌদামিনী, মীনধ্বজে বিরাজ তেমনি
অনুপমা রূপে বামা- আয়ত লোচনা!
যথায় বিন্ধ্য-মালায় দেব উপবনে
কেলি করে সুন্দ উপসুন্দ মহাবলী
অমরারি, তথায় চলিলা তিন জন। ⟨১৮৫⟩
হেরি কামকেতু দূরে বসুধা সুন্দরী
-আইল বসন্ত জানি- কুসুম-রতনে
সাজিলা উল্লাসে; মহানন্দে পিকদল
আরম্ভিল মদন-কীর্ত্তণ কল স্বরে।
মুঞ্জরিল কুঞ্জবন, গুঞ্জরিল অলি ⟨১৯০⟩
চারি দিকে; সুমন্দ্র মলয় সমীরণ
ফুল কুল উপহার সৌরভ লইয়া
আসি সম্ভাষিল সুখে ঋতুবংশ রাজা।
"হে সুন্দরি"- মৃদু হাসি কহিলা মদন-
"ভীরু, উন্মীলিয়া আঁখি- সরসী⟨নলিনী⟩ যেমতি⟨ন⟩ ⟨১৯৫⟩
নিশা অবসানে [?]⟨মিলে⟩ কমল-নয়ন,- মেলে
চেয়ে দেখ চারি দিকে⟨,⟩ তব আগমনে
কত সুখী⟨খে⟩ বসন্তের সখী বসুন্ধরা,-
⟨নানা আভরণে সাজি হাসিছে কামিনী,⟩
কুলবধূ বরিবারে কুলনারী যথা!
ত্যজি রথ চল এবে- ওই দৈত্যবন। ⟨২০০⟩
যাও চলি অভয়ে, হে সুচারুহাসিনি!
অন্তরীক্ষে তব রক্ষা হেতু- আশা-সেতু
তুমি দেব-কুলের[?]- বসন্ত সহ আসি
থাকিব তোমার সঙ্গে, রঙ্গে যাও চলি,
হে যুবতি,⟨মধুমতি,⟩ যথায় বিরাজ দৈত্যদ্বয়!" ⟨২০৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
প্রবেশিলা কুঞ্জবনে কুঞ্জরগামিনী
তিলোত্তমা, প্রবেশ যে বাসরে যেমতি
শরমে ভয়ে কাতরা নব কুল বধু
লজ্জাশীলা। মৃদুগতি চলিলা সুন্দরী,
মুহূর্মুহঃ চাহি চারি দিকে, কুরঙ্গিণী⟨ফুল বনে⟩⟨অজানিত⟩ ⟨চাহে যথা⟩ ⟨২১০⟩
ভীরু যথা অজ্ঞাত কুসুম বনে⟨অজ্ঞাত ভীরু কুরঙ্গী চাহে যথা।⟩⟨অজানিত⟩ ফুলবনে চাহে যথাকুরঙ্গিণী ধনী⟨কভু⟩,⟩
চমকে রমণী শুনি নুপূরের ধ্বনি ⟨কভু⟩!
কভু মর মর পাতা কুলের মর্ম্মরে,
কভু মলয় সৌরভ নিশ্বাসে, কভুবা
কোকিলের কুহরবে। গুঞ্জরিলে অলি
মধুলোভা, কাঁপে বামা- কমলীনি যথা ⟨২১৫⟩
সলিল ⟨পবন⟩ হিল্ললে। এই রূপে একাকিনী
ভ্রমিতে লাগিলা বালা গহনকাননে।
সিহরিলা বিন্ধাচল ও পদ পরশে,
সম্মোহন বাণাঘাতে যোগীন্দ্র যেমতি
চন্দ্রচূড়! বনদেবী, যথায় বসিয়া ⟨২২০⟩
বিরলে, গাঁথিতেছিলা ফুল রত্ন মালা-
(বরগুঞ্জমালা যথা গাঁথে ব্রজবালা
দোলাইতে কুঞ্জবিহারীর কমগলে)
হেরি সুন্দরীর রূপ, সরায়ে অলক,
রহিলেন একদৃষ্টে চাহি তার পানে ⟨২২৫⟩
তথায়, বিস্ময় ধনী মানি মনে মনে!
বনদেব- তপস্বী- মুদিলা আঁখি, যথা
হেরি সৌদামিনী ঘনপ্রিয়ার গগণে
দিনমণি। মৃগরাজ কেশরীসুন্দর
নিজ পৃষ্ঠাসন সঁপিল নামিয়া
যেন জগৎধাত্রী আদ্যাশক্তিরে- উল্লাসে! ⟨২৩০⟩
হায় রে, কে আছে আজি এ নিকুঞ্জবনে,
চেতন। কি অচেতন- যাহার হৃদয়
হেরি এ নারীরতনে সুখের সাগরে
নাহি ভাসে? উদিলে আকাশে নিশামণি
তিলোত্তমা সম্ভব।
হাসে বিশ্ব প্রেমামোদে হেরি সে বদন! ⟨২৩৫⟩
ভ্রমিতে ভ্রমিতে সতী- অতুলা জগতে
রূপে- উতরিলা যথা বনরাজী মাঝে
শোভে সরঃ, নভস্তল বি[?]মল যেমতি।
কল কল স্বার জল ঝরি নিরন্তর
পর্ব্বত বিবর হতে, সৃজে সে বিরলে ⟨২৪০⟩
জলাশয়। চারিদিকে শ্যাম তট তার
শত রঞ্জিত কুসুমে। উজ্জ্বল দর্পণ
বনদেবীর সে সরঃ- খচিত রতনে!
হাসে তাহে কমলিনী, দর্পণে যেমনি
বন দেবীর বদন! মৃদু মন্দ রবে ⟨২৪৫⟩
পবন হিল্লোলে বারি উছলিছে কূলে।
এই সরোবর [?] তীরে আসি সীমন্তিনী
(কান্তা এবে) বসিলা বিরাম লোভে লাভ-লোভে।
ক্ষণকাল বসি বামা চাহি সরঃ পানে,
আপন প্রতিমা হেরি- ভ্রান্তিমদে মাতি- ⟨২৫০⟩
এক দৃষ্টে তার পানে চাহিতে লাগিলা
বিবশা! "এ হেন রূপ"- ভাবি কহিলা সুন্দরী
মৃদুস্বরে- "কভু কি দেখেছ কারো আঁখি?
ব্রক্ষ্মপুরে দেখিয়াছি আমি দেবপতি
বাসব; দেব সেনানী; আর দেবগণ ⟨২৫৫⟩
বীর শ্রেষ্ঠ; দেখিয়াছি ইন্দ্রাণী রূপসী
দেবকুল নারী যত; বিদ্যাধরী দল;
কিন্তু কারে⟨র⟩ তুলিব⟨তুলনা⟩ এ লালনার সহ
অতুলা⟨সাজে⟩? হায় রে⟨আহা⟩ মরি, ⟨মনে⟩ ইচ্ছা করে সদা ⟨যেন⟩
কিঙ্করী হইয়া ওঁর সেবি পা দুখানি!" ⟨২৬০⟩
বুঝি এ বনের দেবী, মোরে দয়া করি
দয়াময়ী, জলতলে দিলা দরশন।"
এতেক কহিয়া ধনী অমনি উঠিয়া
নামাইলা শির;- যেন পূজার বিধানে-
তিলোত্তমা সম্ভব।
প্রতিমূর্ত্তি প্রতি; সে ও শির নমাইল! ⟨২৬৫⟩
বিস্ময় মানিয়া সতী কৃতাঞ্জলিপুটে
উচ্চৈঃস্বরে কহিলা- "কে তুমি, হে রমণি?
দাসী করো এ দাসীরে রাখ তব পাশে!"
আচম্বিতে "কে তুমি? কে তুমি, হে রমণি-
হে রমণি?" এই ধ্বনি বাজিল কাননে! ⟨২৭০⟩
মহাভয়ে ভীতা সতী চাহিতে লাগিলা ⟨চমকি চাহিলা⟩
চারিদিকে,! হেন কালে হাসিয়া মন্মথ
মধুসহ রতিবঁধু আসি দেখা দিলা।
"কাহারে ডরাও তুমি, ভুবন মোহিনি?"
(কহিলেন ফুল ধনু) "এই দেখ আমি ⟨২৭৫⟩
বসন্ত সামন্ত সহ আছি। সীমন্তিনি,
তব কাছে। ওই যে দেখিছ জলে বামা-
তোমারি প্রতিমা [?]⟨ধনি⟩এই যে⟨ওই⟩মধুধ্বনি-
তব ধ্বনি শিখি প্রতিধ্বনি ⟨শিখি⟩ নিনাদিছে।
হেরি ও রূপমাধুরি, নারী তুমি যদি ⟨২৮০⟩
এত বিহ্বলা, সুন্দরি,⟨বিবশা, রূপসি⟩, ভেবে দেখ মনে
পুবপুরুষ কুলের দশা! যাও ত্বরাকরি;
অদূরে পাইবে এবে দেবারি পামর।"
ধীরে ধীরে পুনঃ ধনী মরালগামিনী
চলিলা কানন পথে। কত স্বর্ণ লতা ⟨২৮৫⟩
মুকুলিত সাধিল ধরিয়া পা দুখানি
বসিতে⟨রহিতে⟩⟨থাকিতে⟩ তাদের সাথে,⟨!⟩ কত তরু বর⟨মহিরুহ,⟩
মদন জ্বালায় জ্বলি দিলা পুষ্পাঞ্জলি,⟨!⟩
কত যে মিনতি স্তুতি করিলা কোকিলা
কপোতীর সহ; কত গুন্‌ গুন্‌ করি ⟨২৯০⟩
আরাধিল অলিদল- কি কহিব তার?
আপনি ছায়া সুন্দরী- ভানুবিলাসিনী-
তরুমূলে ফুল ফল ডালায় সাজায়ে
তিলোত্তমা সম্ভব।
দাঁড়াইলা সখী করে⟨ভাবে⟩ বরিতে বামারে!
নীরবে চলিলা [?]সাথে সাথে প্রতিধ্বনি। ⟨২৯৫⟩
কলরবে প্রবাহিনী- পর্ব্বতদুহিতা-
লাগিলা ডাকিতে। মহানন্দে বনচর
নাচিল হেরিয়া দূরে সে সুর সুন্দরী⟨বনসুশোভিনী⟩
আভাময়ী- যথা, রে দণ্ডক, তোর ⟨নিবিড় কাননে⟩ বনে-
(কত যে তপস্যা তোর কে পারে বুঝিতে?) ⟨৩০০⟩
হেরি বৈদেহীরে- রঘুরঞ্জন রঞ্জিনী!
সাহসে সুরভি বায়ু- ত্যজি কুবলয়ে-
মুহূর্মুহঃ অলকান্ত উড়াইয়া কামী
চুম্বিলা বদন-শশী। তা দেখি কৌতূকে
অন্তরীক্ষে মধুসহ হাসিলা মদন⟨হাসে শাম্ব করি⟩।- ⟨৩০৫⟩
এই রূপে ধীরে ধীরে চলিলা রূপসী।
আনন্দ সাগরে আজি মগ্ন দিতিসুত
মহাবলী। দৈববলে দলি দেব দলে-
বিমুখিয়া সম্মুখ সমরে দেববরে-
ভ্রমিতেছে দেববনে ভাই দুই জন। ⟨৩১০⟩
কে পারে আঁটিতে দোঁহে এ তিন ভুবনে?
লক্ষ লক্ষ রথ, রথী, পদাতিক, গজ,
অশ্ব; শত শত নারী বিশ্ববিনোদিনী,
সঙ্গে রঙ্গে কেলি করে নিকুম্ভনন্দন
জয়ী। কোথায় নাচিছে বীনা বাজাইয়া ⟨৩১৫⟩
তরুমূলে বামাকুল, ব্রজবালা যথা
শুনি মুরলীর ধ্বনি কদম্বের তলে।
কোথায় গাইছে কেহ মধুর সুস্বরে।
কোথায় বা চর্ব্য, চূষ্য⟨চোষ্য⟩, লেহ্য, পেয় রসে
ভাসে কেহ কোথায় বা বীরমদে মাতি, ⟨৩২০⟩
মল্ল সহ যুঝে মল্ল ক্ষিতি টলটলি⟨মলি⟩
বারণে বারণে রণ মহাভয়ঙ্কর
তিলোত্তমা সম্ভব।
কোনস্থলে। কোথায় ভাঙিলা তুঙ্গ শৃঙ্গ,
হুহুঙ্কারি উঠিছে দানব নভস্তলে
বাতাকার, উথলিয়া অম্বর-সাগর ⟨৩২৫⟩
যথা উথল যে সিন্ধু রুষিয়া তিমি[?]⟨রি⟩
যথা উথলিয়া[?] রুষি[?]
মীণরাজ- [?] কোলাহলে পূরিয়া গগণ!
কোথায় বা কেহ পশি বিমল সলিলে
প্রমদা সহিত কেলি করে নানা মতে
উন্মাদ মদন শরে। কেহবা কুঠীরে ⟨৩৩০⟩
কমল আসনে বসে প্রাণসখী লয়ে।
রাশি রাশি আসি শোভে দিবাকর করে
উদ্গীরি পাবক যেন। চাল সারি সারি-
যথা মেঘপুঞ্জ- ঢাকে সে নিকুঞ্জবন।
ধনুঃ তূণ অগণ্য; ত্রিশূলাকার শূল ⟨৩৩৫⟩
সর্ব্বভেদী। এ সকল নিকটে বসিয়া
কথোপকথনে রত যোধ শল শত শত।
যে যারে ঘোর সমরে প্রচন্ড আঘাতে
বিমুখিলা, তার কথা কহে সেই জন।
কহে কহে- সেনানীর কাটিনু কবজ; ⟨৩৪০⟩
কেহ কেহ- দুরন্ত কৃতান্তে গদা মারি
খেদাইনু; কেহ কেহ- ঐরাবত শুঁড়ে
চোখ চোখ হানি শর অস্থিরিনু তারে।
কেহ বা দেখায় দেব-আভরণ; কেহ
দেব অস্ত্র; দেব বস্ত্র আর কোন জন। ⟨৩৪৫⟩
কোন⟨কেহ⟩ দুষ্ট তুষ্ট হয়ে পরে নিজ শিরে
দেব কাঞ্চন কিরীট।- এই রূপে এবে
বিহারযে দৈত্যদল সমান বিজয়ী সমরে।
[?]বিধি বিধি কে বুঝিতে পারে
[?]তুমি! ⟨৩৫০⟩
⟨-হে বিভো, জগতপতি, দয়াসিন্ধু তুমি,⟩
⟨তেঁই ভবিতব্যে, দেব, রেখেছ ⟨রাখিলা⟩ গোপনে!⟩

⟨In all future Editions of this poem, the following lines should be[Page]inserted here─⟩

তিলোত্তমা সম্ভব।
কনক আসনে বসে ভাই দুই জন-
সিসুন্দ-উপসুন্দাসুর। শিরোপরি শোভে
দেবরাজছাত্র, তেজে আদিত্য আকৃতি।
শত শত বীর- বীতিহোত্রমূর্ত্তি- বেড়ে
দৈত্যদ্বয়ে, দেবরাজে গন্ধর্ব্ব যেমতি, ⟨৩৫৫⟩
করে চন্দ্রহাস- হৈল চন্দ্রাকার ঢ়াল-
মহাবীর বীর্য্যে পূর্ণ, কালকূটে যথা
মহোরগ- চকমকি বীর আভরণে।
পারিজাত মালা গলে- মহেন্দ্র ভূষণে
ভূষিত, মহেন্দ্র তুল্য রূপে অনুপম ⟨৩৬০⟩
ভাতৃদ্বয়! চারিদিকে দৈত্য কুলপতি
নানা উপহার সহ দাঁড়ায় বিনত
ভাবে, প্রসন্ন বদনে প্রশংসি দুজনে,
দৈত্যকুল অবতংস। দূরে নৃত্যকরী
নাচে, ⟨নাচে⟩ তারাবলী যথা নাচে নভস্তলে ⟨৩৬৫⟩
স্বর্ণময়ী। বন্দে বন্দী মহানন্দ মনে-
"জয়, জয়, অমরারি! যার ভুজবলে
পরাজিত আজিতেয় দিতিসুত রিপু
বজ্রী! জয়, জয়, বীর বীরচূড়ামনি,
দানবকুল শেখর! যার বাণাঘাতে- ⟨৩৭০⟩
করী যথা কেশরীর প্রচণ্ড আঘাতে⟨প্রহারে⟩
আজিবন যায় দূরে- স্ববীশ্বর আজি
ত্যাজি স্বর সুরপতি⟨নাথ⟩ ভ্রমিছে একাকী-
অনাথ! হে দৈত্যকুল, উজ্জ্বল গো আজি
তুমি। হে দানব[?]কুলবধূ[?]⟨দৈত্যকুলবালা, দৈত্যকুলবধূ,⟩ ⟨হে দানববালা, হে দানববধূ⟩ ⟨৩৭৫⟩
কর গো মঙ্গল ধ্বনি দানব ভবনে।
হে মহি, হে মহীতল, তুমিও হে দিব,
আনন্দসাগরে আজি মজ, ত্রিভুবন।
দৈব বলে বলী যে, বিধাতা তার প্রতি
অনুকূল, অধর্ম্মে সে কভু নহে রত!⟨সমরে সে চিরঅভেদ্য শরীর!⟩" ⟨৩৮০⟩
মহানন্দে সুন্দ উপসুন্দাসুর বলী
অমরারি তুষি যত দৈত্যকুল পতি"
তিলোত্তমা সম্ভব।
মধুর সম্ভাষে, এবে সিংহাসনত্যজি─
উঠিলা, কুসুমবনে ভ্রমণ প্রয়াস
একপ্রাণ দুই জন─ বাগর্থ যেমতি। ⟨৩৮৫⟩
"হে দানব,"─ আরম্ভিলা নিকুম্ভ-নন্দন
সুন্দ,─ "বীর দলশ্রেষ্ঠ,অমর মর্দ্দণ!
যার বাহু-পরাক্রমে পুঁজি আজি মম
ত্রিদিব ভৈরব⟨বৈভব⟩! শুন, হে সুকারি রথী
ব্যূহ, যার যাহা ইচ্ছা, সেই তাহা কর। ⟨৩৯০⟩
চিরবাদী রিপু আজি জিনিয়া বিবাদে
ঘোরতর পরিশ্রমে, বিরাম-সাধনে
মনদান কর সবে।" উল্লাসে দনুজ,
শুনি দনুজেন্দ্র বাণী, অমনি নাদিল।
শুনে⟨সে⟩ ভৈরব রবে ভীত আকাশ-সম্ভবা ⟨৩৯৫⟩
প্রতিধ্বনি রড়ে পালাইলারড়ে⟨পালাইলা রড়ে;⟩ মূর্চ্ছা যায়⟨পায়ে⟩
খেচর, ভূচর সহ, পড়িলা ভূতলে!
থর থরি গিরিবর বিন্ধ্য মহামতি
কাঁপিলা! কাঁপিলা বিশ্ব প্রমাদ গণিয়া⟨ভয়ে বসুধা সতীর ⟨বসুধা সুন্দরী।⟩
দূরকাম্য বনে যথা বসেন বাসব, ⟨৪০০⟩
দেবপতি⟨শুনি⟩ সে ঘোর ঘর্ঘর, ত্রস্ত হয়ে সবে
নীরবে এ ওঁর পানে লাগিলা চাহিতে!
চারিদিকে দৈত্যদল চলিল কৌতূকে,
যথা অলিকুল, ছাড়ি মর্ম্মর-নির্ম্মিত
পুরী, উড়ে চারিদিকে⟨ঝাঁকে ঝাঁকে⟩ কুসুম-কাননে ⟨৪০৫⟩
মধু লোভে, গায়ে ⟨গীত⟩ গুণ গুণ স্বরোগীত
মঞ্জু কুঞ্জে রমনী রঞ্জন দুই ভাই
ভ্রমে─ যথা অশ্বিনীকুমার যুগ, রূপে
অনুপম, কিম্বা যথা পঞ্চবটী বনে
রাম রামানুজ সূর্পনখা মনোহর ৪১০
দোঁহে, কিম্বা যথা ব্রজে যমুনা পুলিনে
তিলোত্তমা সম্ভব।
গোপিনীরমণ চক্রপাণি হলধর।
মহামোদে দুই ভাই ভ্রমে চারিদিকে।
─ হে ধাতঃ, জগৎপিতঃ দয়াসিন্ধু তুমি,
তেঁই ভবিতব্যে, প্রভু রেখেছ গোপনে! ৪১০
মঞ্জু কুঞ্জে রমণীরঞ্জন দুই ভাই
ভ্রমে─ যথা অশ্বিনীকুমার যুগ, রূপে
অনুপম; কিম্বা যথা পঞ্চবটীবনে
রাম রামানুজ─ সূপর্নখা মনোহর⟨যবে কামিনী রাক্ষসী⟩! ⟨৪১০⟩
সূপর্নখা হেরি দোঁহে বিহ্বল হইল।⟨মাতিল মদনে⟩
ভ্রমিতে ব্রমিতে দৈত্য আসি উতরিলা
যথায় ফুলের মাঝে বসি একাকিনী
তিলোত্তমা। সহসা সুন্দের পানে চাহি
কহে উপসুন্দাসুর─ "কি আশ্চর্য্য, দেখ ⟨৪১৫⟩
কহে ভ্রাতুঃ⟨সখে⟩, কি অপূর্ব্ব সৌরভে পূর্ণ আজি
বনস্থলী! বসন্ত কি আইল আবার?
আইস দেখ কোন ফুল ফুটি আমোদিছে
কানন?" হাসিয়া উত্তরিলা সুন্দাসুর।
"রাজসুখে সুখী প্রজা; তুমি আমি, বলি, ⟨৪২০⟩
সসাগরা পৃথিবী অমরালয়সহ
ভুজবলে জিনি রাজা; আমাদের সুখে
কেননা সুখিনী হবে বনস্থলী ধনী?"
এইরূপে কৌতূকে ভ্রময়ে দুইভাই,
না জানি কালরূপিনী ভুজঙ্গিণী রূপে ⟨৪২৫⟩
মণিময় কবরী─ সে ফুল⟨ফুটিছে ⟨বনে⟩ সে ফুল⟩ বনে, ⟨যার⟩ পরিমলে
ত[?] মত্ত যার⟨এবে⟩ দুইজনে─ অলি⟨যথা⟩ পায়ে দূরে
বকুলের গন্ধ যথা আকুল হৃদয়। বকুল বাগ অলি─আকুল মধুলোভে।বকুলের মত ⟨বকুল বাগ আকুল অলি মধুলোভে।⟩
কুসুমকুলের মাঝে বসে সকৌতূকে
দেবদূতী, কুসুম-কুল ঈশ্বরী যেন ⟨৪৩০⟩
নলিনী। কমল করে আদরে সুন্দরী
ধরে যে কুসুম, তার কমনীয় শোভা
তিলোত্তমা সম্ভব।
বাড়ে শত গুণ যথা রবির কিরণে
মণি-আভা! একাকিনী বসিয়া ভাবিনী,
হেনকালে সুন্দ উপসুন্দাসুর বলী ⟨৪৩৫⟩
আসি উতরিলা তথা─ পরমসুন্দর।
চমকিলা বিধুমুখী দেখিয়া সম্মুখে
দৈত্যত্রয়, যথা যবে ভোজরাজবালা
কুন্তী, দুর্ব্বাসার মন্ত্র জপি সুবদনা,
হেরিলা ভাস্করে সতী যমুনা পুলিনে। ⟨৪৪০⟩
বীরকুল চূড়ামণি নিকুম্ভ-নন্দন
উভে; ইন্দ্রসমরূপ─ অতুল ভুবনে।
হেরি বীরবরে ধনী বিস্ময় মানিয়া
বিশ্বরমা এক দৃষ্টে লাগিলা চাহিতে, [?]
হেরি সূর্য্যমুখী যেন যুগলতপনে⟨তপনযুগলে⟩⟨৪৪৫⟩
"দেখ, সখে, কি আশ্চর্য্য ?" কহিল শূরেন্দ্র
সুন্দ; "দেখ চাহি, ভাই, কুসুমমাঝারে!
দাবানলে⟨দাবানলে⟩ উজ্জ্বল বুঝি এ বনস্থলী
আজি? কিম্বা ভগবতী সতী আবির্ভূতা
হেথা! চল, যাই ত্বরা, পূজি পা দুখানি। ⟨৪৫০⟩
দেবীর চরণপদ্ম সদ্মে যে সৌরভ
বিরাজে তাহাতে পূর্ণ আজি বনরাজী।"
মহাবেগে দুই ভাই ধাইল সকাশে
বিবশ! অমনি মধু, মন্মথে সম্ভাষি,
মৃদুস্বরে ঋতুবর কহিতে⟨লাগিলা কহিতে⟩ ⟨৪৫৫⟩
"হান তব ফুলশর ফুল ধনু ধরি,
ধনুর্ধর! যথা বনে পাইলে কিরাত
মৃগরাজে!" অন্তরীক্ষে থাকি রতিপতি
শরবৃষ্টি করি দোঁহে অস্থির করিলা,
যথা মেঘ আড়ালে লুকায়ে মেঘনাদ ⟨৪৬০⟩
ইন্দ্রজীত, ভেদে বানে রাঘব-নন্দনে।
তিলোত্তমা সম্ভব।
ফুল শরে জর জর, উভয়ে ধরিল
রূপসীরে। মেঘময় হইল আকাশ
সহসা। শোনিত বিন্দু[?] পড়িল চৌদিকে।
দূরে ঘোর নির্ঘোষে ঘোষিল কাল মেঘ। ⟨৪৬৫⟩
কাঁপিলা বসুধা। দৈত্যকুল রাজলক্ষ্মী
আকুলা পূরিলা দেশ হাহাকার রবে।
কামমদে মত্ত এবে উপসুন্দাসুর
বলী সুন্দাসুর পানে চাহিয়া কহিলা
রোষে; "কি কারণে তুমি স্পর্শ এ বামারে ⟨৪৭০⟩
ভ্রাতৃ বধূ তব, বীর?" সুন্দ উত্তরিলা─
"বরিনু কন্যায় আমি তোমার সমুখে
এখনি! আমার নারী গুরু হয় তব⟨হে তোমার⟩
অতএব শীঘ্র তুমি ছাড়ি দেহ এরে।"
যথা প্রজ্বলিত অগ্নি আহুতি পাইলে ⟨৪৭৫⟩
আরো জ্বলে, উপসুন্দ─ হায়, মন্দমতি!
মহা কোপে কহিল─ "রে অধর্ম্মমাচারি
কুলাঙ্গার, ভ্রাতৃবধু মাতৃসম মানি;─
তার অঙ্গ পরশিস্‌ অনঙ্গপিড়নে?"
"কি কহিলি, পামর? অধর্ম্মাচারী আমি? ⟨৪৮০⟩
কুলাঙ্গার? ধিক, শত ধিক্‌, পাপীযান[?],
তোরে। সিংহী সতী কভুকেশরীকামিনি সঙ্গেশৃগালের স্পৃহা কেশরীকামিনি সঙ্গে শৃগালের ⟨শৃগালের স্পহা কেশরীকামিনী⟩
সঙ্গমের[?]হয় রে অধম?⟨স্পৃহা কভু ফলে⟩ ⟨সঙ্গে সঙ্গমের স্পহা কভু ফলে কি? পামর ⟨অধম⟩!"⟩
এতেক কহিয়া রোষে নিষ্কোশিলা অসি
সুন্দাসুর! তা দেখিয়া বীর মদে মাতি, ⟨৪৮৫⟩
হুহুঙ্কারি নিজ অস্ত্র খুলিল⟨ধরিলা⟩ অমনি
উপসুন্দ─ গ্রহ দোষে বিগ্রহ প্রয়াসী!
যথা করী, করিণী কারণে কালরণে
পর্ব্বতকন্দরে, যুঝিলেক দুই ভাই
প্রাণপণে। দোঁহার আঘাতে ক্ষত দোঁহে ⟨৪৯০⟩
কাতর হইয়া এবে⟨শেষে⟩ ⟨পড়িল⟩ ভূতলে!
ক্ষণকালে চেতন পাইয়া সুন্দাসুর
সুরারি কহিল উপসুন্দ পানে চাহি;─
তিলোত্তমা সম্ভব।
"হায়, ভাই‌, কি কর্ম্ম করিনু মোরা আজি!
এত যে করিনু তপঃ ধাতায় তুষিতে; ⟨৪৯৫⟩
এত যে যুঝিনুসবে⟨দাহে⟩ বাসবেব সহ;-
এ দুষ্টা রমণী নষ্ট করিলআসিয়া ⟨সেসব?⟩
কামে বশীভূত যে, এ দুর্গতি সতত
⟨বালি বন্ধে সৌধ, হায় কেন নির্ম্মান⟩
⟨এত যত্নে? কামবশীভূত⟨মদে রত⟩ যে দুর্ম্মতি⟩
এ নৃপতি⟨সতত প্রজাতি⟩তার জগতে বি[?]
[?]⟨কিন্তু⟩এই দুঃখ, ভাই, রহিল অন্তরে-
রণ ক্ষেত্রে শত্রু জিনি মরিনু দুজনে, ⟨৫০০⟩
মরে যথা মৃগরাজ পড়ি ব্যাধ ফাঁদে!"
এতেক কহিয়া সুন্দাসুর মহানামী⟨মতি⟩
বিষাদে নিশ্বাস ছাড়ি ত্যজে কলেবর
অম রারি, যথা হায়, গান্ধারী নন্দন,
নরশ্রেষ্ঠ, কুরুবংশ ধ্বংস গণি মনে,!
⟨যবে ফের নিশাকালে[?]
⟨পান্ডব শিশুর শির দিন রাজ[?] ⟨৫০৫⟩
মহাশোকে শোকী তবে উপসুন্দবলী
কহিল; "হে দৈত্যপতি, কিসের কারণে
লুটায় শরীর তব ধরনীর তলে?
উঠ, ধীর, চল, পুনঃ নাশ সে⟨দমি সে⟩ সমরে
অমর! হেবীর⟨শূ⟩রমণি, কে রাখিবে আজি ⟨৫১০⟩
দানবকুলের মান তুমি না উঠিলে?
হে অগ্রজ, তোমার অনুজ আমি ডাকি
উপসুন্দ! এ দাসে রে কি দোষে ছাড়িলে?
⟨অল্পদোষে দেবী তব পদে⟩
⟨এ দাস![?] [?] ক্ষমিয়া তারে[?]
নয়ে এ বামারে ভাই,কেলি কর উঠি!"-
এইরূপে বিলাপিয়া উপসুন্দাসুর ⟨৫১৫⟩
অকালে কালের হস্তে আত্মা সমর্পিলা
মহাবীর। শৈলাকারে রহিলা দুজনে
ভূমিতলেপড়ি বনে-যথা শৈল- নীরব- অচল!
সমরে পড়িল দৈত্য। কন্দর্প অমনি
দর্পে শংখ ধরি নিনাদিলা মীণকেতু।⟨৫২০⟩
লয়ে সে জয় নিনাদ আকাশ[?]সম্ভবা
প্রতিধ্বনি রচে ধনী ধাইল আশুগা
মহারঙ্গে। পর্ব্বত কন্দর, তুঙ্গ শৃঙ্গে
পশিল স্বরতরঙ্গ। যথা কাম্যবনে
দেবদল; কতক্ষণে উতরিলা তথা ⟨৫২৫⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
নিরাকারা দূতী।"উঠ," কহিলা সুন্দরী─
"শীঘ্রগতি উঠ, ওহে ত্রিদিব ঈশ্বর!
ভ্রাতৃ ভেদে ক্ষয় আজি দানব দুর্জ্জয়।"
যথা অগ্নিশিখা স্পর্শে বারুদের রাশি,
দ্রুত ইরম্মদরূপে, আকাশ প্রদেশে ⟨৫৩০⟩
গরজি উঠে নিমিষে,উঠিলা তেমতি
দেবসৈন্য শূন্যপথে! রতনে খচিত
বলি বীর বলে ধরি করে চিত্ররথ
রথী উন্মীলিলা দেবকেতন কৌতূকে। ৫৩৫
তারাশির, তেজে[?]ভস্ম করি সুর অরি!
বাজাইল রণবাদ্য বাদ্যকর দল
মোর ক্বনে।⟨নিক্কণে।⟩মহাবেগে চলিলা সকলে⟨চলিলা সবে[?]
চলিলেন বাথুপতি খগপতি যথা
হেরি দূরে নাগবৃন্দ- ভয়ংকর গতি! ⟨৫৪০⟩
সাপটি প্রচন্ড দন্ড চলিলা শমন
হরষে। চলিলা ধনুঃ টঙ্কারিয়া রথী
সেনানী। চলিলা পাশি, অলকার নাথ
গদাপাণি। স্বর্নরথে চলিলা বাসর,
ত্বিষায় জিনিয়া ত্বিষাম্পতি[?]মহারাজা। ⟨দিনপতি। দিনমনি।⟩ ⟨৫৪৫⟩
চলে বাসবীয়চমূ জীমূত যেমতি
বাড়সহামহারড়ে; কিম্বা চলে যথা
প্রমথনাথ সহিত প্রমথের কুল
নাশিতে দক্ষের যজ্ঞ⟨প্রণয়কালে⟩,ভভম্ভম রবে-
ভভম্ভম রবে যবে রবে শিঙ্গা ধ্বনি। ⟨৫৫০⟩
ক্ষৌরনাদে দেবসৈন্য প্রবেশিল আসি
দৈত্যদেশে। যে যেখানে আছিল দানব,
মহাত্রাসে হতাশ কেহবা,কেহ[?]যুঝি,
মরিল সমরে। ক্ষণকালে নদ নদী
প্রস্রবন রক্তময় হইয়া রহিল। ⟨৫৫৫⟩
শৈলকার শব রাশি পরশে গনন।
শকুনী, গৃধিনী[?]⟨যত⟩ বিকট-মূরতি-
তিলোত্তমা সম্ভব।
ঝাঁকে ঝাঁকে আইল উড়ি আকাশ যুড়িয়া
মাংস লোভে। বায়ুসখা সুখে বায়ু সহ
লাগিলা দহিতে শত শত দৈত্যপুরী। ⟨৫৬০⟩
মরিল দানব শিশু─ দানব বনিতা।
হায় রে যে ঘোর বাত্যা দলে তরুদল
বিপিনে, নাশে সে মূঢ় মুকুলিত লতা─
কুসুমকাঞ্চন কান্তি! বিধির এ লীলা!
বিলাপী বিলাপ ধ্বনি─ জয়ী জয় নাদ ⟨৫৬৫⟩
মিশিয়া, পূরিল এবে আকাশ মণ্ডলী।
কত যে মারিলা যম কে পারে বর্ণিতে?
কত যে চূর্ণিলা ভাঙ্গি তুঙ্গ শৃঙ্গ বলী
প্রভঞ্জন;─ কত যে কাটিলা তীক্ষ্ণ শরে
সেনানী;─ কত যে যূথনাথে গদাঘাতে ⟨৫৭০⟩
নাশিলা অলকানাথ;─ কত যে প্রচেতা
পাশে ⟨পাশী⟩ পশি[?] আর কত যে বাসব মহামতি
[?] ⟨পাশী⟩,─ কে গণিতে পারে গণিতে? কার সাদ্ধি⟨সাধ্য⟩ এত?
দানবকুল নিধনে দেবকুল নিধি
শচীকান্ত, নিতান্ত কাতর হয়ে মনে
দয়াময় ঘোর রবে শঙ্খ নিনাদিলা ⟨৫৭৫⟩
রণভূমে[?]লে⟩। অমনি নিরস্ত হয়ে যত
দেবসেনা, আসিয়া বেড়িলা দেবরাজে।
কহিলেন সুনাসীর গভীর বচনে;─
"সুন্দউপসুন্দাসুর, হে শূরেন্দ্র দল,
অরি মম, যমাগারে গেছে দোঁহে চলি ⟨৫৮০⟩
অকালে কপাল দোষে। আর কারে ডরি?
তবে বৃথা জীব⟨প্রাণী⟩ হত্যা কর কি কারণে?
নীচের শরীরে বীর কভু কি প্রহারে
অস্ত্র? উচ্চতরু সেই ভস্ম ইরম্মদে।
তিলোত্তমা সম্ভব।
যাক্‌ চলি নিজালয়ে দিতিসুত যত। ⟨৫৮৫⟩
বিষহীণ ফণী দেখি কে মারে তাহারে?
আনহ চন্দন কাষ্ঠ কেহ, কেহ মৃত;
আইস সবে দানবের প্রেত কর্ম্ম করি
যথা বিধি। বীরকুলে সামান্য সে নহে,
তোমা সাবা যার শরে কাতর সমরে ⟨৫৯০⟩
অসুরারি! বজ্র অগ্নি অবহেলা করি
জিনিল যে আমায় আপন বাহু বলে,
কেমনে তাহার দেহ দিব আমি আজি
খেচর ভূচর জীবে? বীরশ্রেষ্ঠ যারা,
বীর রিপু পূজিতে বিরত কভু নহে।" ⟨৫৯৫⟩
এতেক কহিলা যদি বাসব, অমনি
জ্বালাইলা চিতা চিত্ররথ মহারথী।
রাশি রাশি আনি কাষ্ঠ সুরভি, ঢালিলা
মৃত তাহে। আসি শুচি─ সর্ব্বশুচিকারী─
দহিলা দানব দেহ। অনুমৃতা হয়ে, ⟨৬০০⟩
সুন্দ উপসুন্দাসুর মহিষী রূপসী
[?]⟨দোঁহে⟩ গেলা ব্রহ্মলোকে পতি সহ সতী।
⟨Author's own hand-writing from beginning [?]
তবে তিলোত্তমা পানে চাহি সুরপতি
জিষ্ণু কহিলেন দেব মৃদুমন্দ স্বরে।─
তরিলে দেবতাকুলে অকূল পাথারে ⟨৬০৫⟩
হে কল্যাণি, করিনু আবার স্বর্গলাভ,
এ সুখ্যাতি তব, সতি, ঘুষিবে জগতে
চিরদিন। যাও এবে ধাতার আদেশে⟨বিধির এ বিধি⟩
সূর্য্যলোকে সুখে পশি আলোকসাগরে ⟨৬১০⟩
তিলোত্তমা সম্ভব।
করবাস, যথা দেবী কেশব বাসনা─
ইন্দুবদনা ইন্দিরা─ জলধির তলে!
চলি গেলা তিলোত্তমা তারাকারা ধনী
সূর্য্যলোকে। সূরসৈন্য সহ সুরপতি
অমরাপুরীতে দেব পুনঃ প্রবেশিলা। ⟨৬১৫⟩


ইতি শ্রীতিলোত্তমা সম্ভবে কাব্যে
স্বর্গলাভ⟨বাসব-বিজয়⟩ নাম
চতুর্থঃ সর্গঃ।


7th February 1860

Lower Chitpore Road

⟨Begun 1st Aug 1859
Fin.d 7th Feb 1860⟩

Michael Madhusudana Dutt.
শ্রীমাইকেল মধুসূদন দত্ত।



⟨author's own hand-writing⟩

মান্যবর শ্রীযুক্ত⟨বাবু⟩ যতীন্দ্রমোহন ঠাকুর মহোদয়


যথাবিধি⟨বিনয় পুরঃ পর⟩ নিবেদনমেতত্‌। যে উদ্দেশে তিলোত্তমার সৃজন ⟨সৃষ্টি⟩ হয়, তাহা সফল হইলে ভগবান⟨দেবরাজ⟩ ইন্দ্র তাঁহাকে সূর্য্যমণ্ডলে প্রতিষ্ঠিত করেন। এই আদেশ [?]⟨আদর্শের⟩ অনুকরণে আমি এই আভিনব কাব্য আপনাকে ⟨সম⟩র্পণ করিলাম। মহাশয় যদি অনুগ্রহ প্রদর্শন পূর্ব্বক ইহাকে আশ্রয় দেন, তাহা হইলে আমি আমার পরিশ্রম সার্থক বোধ করিব।

যে ছন্দোবন্দে এই কাব্য বিরচিত⟨প্রণীত⟩ হইল, তদ্বিষয়ে আমার কোন কথাই বলা বাহুল্য; কেননা এরূপ পরীক্ষাবৃক্ষের ফল সদ্যঃ পাকে⟨পরিণত হয়⟩ না। তথাপি আমার বিলক্ষণ প্রতীতি হইতেছে যে এমন কোন সময় অবশ্যই উপস্থিত হইবেক, যখন এ দেশে সর্ব্বসাধারণ জনগণ ভগবতী ভারতীর⟨বাগ্‌দেবীর⟩ চরণ হইতে মিত্রাক্ষর স্বরূপ নিগড়⟨শৃঙ্খল⟩ ভগ্ন দেখিয়া আনন্দসাগরে মগ্ন⟨চরিতার্থ⟩ হইবেন। কিন্তু হয় তো সে শুভকালে এগ্রন্থ গ্রন্থকার⟨কাব্য-রচয়িতা⟩ এতাদৃশী ঘোরতর মহানিদ্রায় আচ্ছন্ন⟨আবৃত⟩ থাকিবেক, যে কি ধিক্কার, কি ধন্যবাদ কিছুই তাহার কর্ণকুহরে প্রবিষ্ট হইবেক⟨প্রবেশ করিবেক⟩ না।

সে যাহা হউক, এ কাব্য মসমীপে⟨আমার নিকটে⟩ সর্ব্বদা সমাদৃত থাকিবেক, যে হেতু মহাশয়ের পাণ্ডিত্য, গুণগ্রাহকতা, এবং বন্ধুতাগুণে যে আমি কতদূরকি যে পর্য্যন্ত যে উপকৃত হইয়াছি, এবং হইবারও প্রত্যাশা করি, ইহা তাহার এক প্রধান অভিজ্ঞান স্বরূপ। আক্ষেপের বিষয় এই যে মহাশয় আমার প্রতি যে রূপ অনুরাগ⟨স্নেহভার⟩ প্রকাশ করেন, আমার এমন কোন গুণ নাই যদ্দ্বারা আমি উহার যোগ্য হইতে পারি । ইতি।




ধবলনামেতে শৃঙ্গ ইত্যাদি।


Dhawala by name a Peak
on Himalaya's kingly bow-
dwelling high unto the heavens,
Even robd in virgin snow;
And indeed with soul divine; [?]
vast & morely[?] like the Lord
Siva―mightiest of the gods,
By holiest [?] adord
When with spotless garment clad, he
Stands sublime [?] in prayer,
With his arms uplifted high,
His tow'ring head held in the air!―
Forests, groves and trees & creepers
Blossoms, flowers and all that gem
Every mountain's [?] brow
Like gold-and-emerald diadem
Grow not here; as if Earth's Lord
of earthly [?] sick, disclaims
Life's gay vanities & follies―
Breaking these Delusions' chains!
Birds that ever sweetly warble
Bees that wander on the wing
Seeking honey from each flower,
Come not here: the forest-king,-
Mountain-bodied Elephant―
Tiger, Bear and all that move
And live & breathe in wood-land bow,
In dark, dim forest, boundly prove―
Of the wilderness the Lotus,
She―the [?] lovely-eyed gazelle,
And the she-snake in whose locks
The brightest gems are said to dwell,
And the snake with poison hoarded―
Ne'er approach this frowning hill-
[?]ful,wild⟨del⟩, majestic,stands it―
Solitary―stern―and still!
Housing in its sunless glens
Aye the torrent-flood is sounding,
Like the roaring Bhogavati
Through Hill's larksome valley bounding!
All that people earth and in
⟨God norandor⟩ goddess, man nor⟨or⟩ woman―⟩
N⟨All⟩ that people earth or air,⟩
⟨as to pathless floating⟨lofty⟩ castle―⟩
⟨go not―may not o'er to there!⟩
Round it blows the howling tempest
Like tremendous Rudra's breath,
When with terrors clad he the he dooms
This vast Creation all to Death!
And the clouds around it cover
Fierce and gloomy night & day,
andLike the demons that round sw[?]
Dance in wild & demon-play!!





নিতাই। ভাই! এই কাল স্বরুপ কুপ্রথা থাকাতে যে দেশের
কত অনিষ্ট ঘটিতেছে তাকি বর্ণনা করা যায়।



Who have not [?] seen
a God appears to give doctrines
to man, so we can infer
that never did a God appear.




My dear Rajah Bahadur,

If you will allow us,
my friend Vidyasagara &[?]
will call between 2 & 3 P.M.
for we wish to see you very [?]

Yours in [?],
Madhusudana Datta

P.S. Where shall we find you?



My dear Sir:
I got the enclosed from Baboo
M.Bose last Evening. I was not aware
that the affair had been settled

I have added[?] a few brief
notes to তিলোত্তমা―and will prepare
a glossary for it. The first Book
being full of description of an ordinary
kind, is easy enough. The Second
Book is harder. The Scene of it is laid
in Brahma's Heaven. Ditto of the third
& last Book. Some say, that there [Page] ought to be a fourth Book-describing
the death of the brothers সুন্দ & উপসুন্দ–
but I hear a Law-Examination is
coming & I must bid adieu to the
"Harp of my Fathers." Besides, the excitement
or inspiration I think is gone. At any
rate, my head is full of other Dreams,
now. I have been past[?]reading Dantes
"vision", & it has made such an impression
upon me that I long to try something
like it in our own form[?] language, but
that Law–-& the accursed lust of gold
I am heafraid, will do me up.Hang[?]
the idea of abandoning–-of ceasing to haunt wander

–There the Muses haunt,
Clear spring, or shady grove, or sunny hill,
Smit with the love of sacred song!–"

For the sake of filthy pice! And g[?]
my dear Sir, is the destiny of

Yours most [?]



My Dear Sir I am indeed very happy to find that
you percieve some music, however faint, in
my verses. The day, I hope, is not far distant
when you will recognize fully and do justice to
the producer of Blank verse in our language.

As I am anxious to convert you
and my other valued friends to my literary creed,
you must pardon my persecutingyou a little
till you are completely of my way of thinking.
I enclose the second paragraph of the second সর্গ–also written as if it were in prose. May
I beg that you will be good enough to read it over
carefully[?] altering any expression that may be
replaced by a better one or at any rate marking any
line that may strike you as harsh or otherwise
condemnable. If you will kindly give poor me
some ten minutes a day, you will lay me under
the greatest[?]obligation & perhaps help
one to produce a Poem that will materially
alter the character of our language & it may be [Page] do something towards finding[?] me a poor[?]
name in our literature

With kind regards,
Yours [?]
Michael ms Dutt


P.S. I know that all people who have
got "Hobbies" to ride upon, make themselves
very ridiculous: now ― this Blank verse
is my Hobby; but I am sure you won't
laugh at me. I am ready to sacrifice
my life to improve the tone of our poetry




My dear Sir,
I crave the licence to forward for
your kind acceptance the manuscript of the
Tilottama Sambhava. It is mostly in the author's
own hand-writing. The interest you take in the
work induces me to believe that you will not
refuse it a corner in your Library as a sort of
[?] curiosity; and I am vain enough
to fancy that your descendants will not regard
with indifference a "Relic" so intimately connected
with the History of their accomplished ancestor
and (perhaps) with that of a certain literary
Revolution in the Country.

Praying God to lengthen your
days so that you may benefit our Country by your
talents, your taste, your appreciation of men [Page] of letters, & your generosity towards them. I
subscribe myself, my dear sir,

Ever yours very faithfully
21st May 1860.



My dear Sir
I am sure you will be pleased
to hear that Padmavati is about to
make her appearance soon. An
amateur company belonging to Bow[?]
Bazar, is to act the Playis b


that both yours & the d[?]
will for my sake, do the need[?]ful [?]
combined brilliant style. There are two[?]
songs in the Second act–one [?]of them[?]
sung by a young lady(behind the stage)
–the said young lady being very
much in love though she does not
know with whom! & the other, a



Jatindra mohana Tagore
Pathorea ghatta